ট্রানজিট কী এবং কেন?

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ট্রানজিটই এখন দেশজুড়ে প্রধান আলোচনা। বিশেষ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের ঢাকা সফরের প্রাক্কালে এটিই এখন প্রধান ইস্যু। যদিও এরই মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়ে দিয়েছেন ট্রানজিট নিয়ে মনমোহনের সফরে কোনো চুক্তি নয়, সম্মতিপত্র সই হচ্ছে।

ঢাকা: ট্রানজিটই এখন দেশজুড়ে প্রধান আলোচনা। বিশেষ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের ঢাকা সফরের প্রাক্কালে এটিই এখন প্রধান ইস্যু। যদিও এরই মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়ে দিয়েছেন ট্রানজিট নিয়ে মনমোহনের সফরে কোনো চুক্তি নয়, সম্মতিপত্র সই হচ্ছে।

তারপরেও ট্রানজিট নিয়ে জনমনে রয়েছে নানান ভাবনা। ট্রানজিট বিষয়টিই বা কি, তাও অনেকের কাছে সুস্পষ্ট নয়। ট্রানজিটের সাধারণ ধারনাটি হচ্ছে একটি দেশ দ্বিতীয় দেশের ভূখণ্ড ব্যবহার করে তৃতীয় কোনো দেশের জন্য যখন পণ্য বহন করে নিয়ে যাওয়া। এক্ষেত্রে প্রথম দেশটি দ্বিতীয় দেশটিকে ট্রানজিট-সুবিধা দিচ্ছে। বাংলাদেশ যখন ভারতের ভূখণ্ড  ব্যবহার করে নেপাল বা ভুটানে পণ্য পাঠাবে তখন ভারত বাংলাদেশকে ট্রানজিট সুবিধা দিলো তা নিশ্চিত হবে।

তবে ভারতের জন্য বাংলাদেশর ট্রানজিট সুবিধাটির ব্যাখ্যা একটু ভিন্নরকম। ভারত বাংলাদেশের ট্রানজিট চাচ্ছে দুটি উদ্দেশ্যে। এক. তাদের নিজেদের দেশের মধ্যেই একস্থান থেকে অন্যস্থানে পণ্য পরিবহনে বাংলাদেশের ভূখণ্ড ব্যবহার করার জন্য। দুই. বাংলাদেশের বন্দরকে ট্রানজিট বন্দর হিসেবে ব্যবহার করে অন্য দেশে পণ্য সরবরাহ করার জন্য। বন্দর পর্যন্ত পৌঁছাতে যে রুটটি ব্যবহার করা হবে সেটিও হবে ট্রানজিট রুট।

তবে ভারত থেকে ভারতে যে পণ্য সরবরাহ করা হবে তার জন্য বাংলাদেশের ভূখণ্ড ব্যবহারকে ট্রানজিট না বলে করিডোর বলাই সঠিক বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, এখানে তৃতীয় কোনো দেশের সম্পৃক্ততা নেই। কিন্তু ট্রানজিটের ক্ষেত্রে তৃতীয় দেশের সম্পৃক্ততা থাকতে হয়।  

ভৌগলিকভাবে বিশাল ভুখণ্ডের ভারতের প্রায় পেটের মধ্যে ঢুকে থাকা একটি ছোট্ট দেশ বাংলাদেশ। যার তিনদিকেই রয়েছে ভারতীয় সীমান্ত। এ অবস্থায় কলকাতা থেকে বাংলাদেশের ওপর দিয়ে আগরতলায় যখন ভারতীয় পণ্যবাহী বাহন যাওয়ার সুযোগ পাবে তখন তা হবে করিডর-সুবিধা।

তবে ভারত যখন বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বা মংলা বন্দর ব্যবহার করে তৃতীয় কোনো দেশে পণ্য পাঠাবে বা তৃতীয় দেশ থেকে আসা পণ্য নিজের দেশে নিয়ে যাবে তখন এই বন্দরগুলো হবে ভারতের ট্রানজিট বন্দর। আর বন্দর থেকে যেই রেল বা সড়কপথ ব্যবহার করে ভারতে ওই পণ্য নেওয়া হবে সেটি হবে ভারতের জন্য বাংলাদেশে ট্রানজিট রুট।

ট্রানজিট সুবিধার জন্য আন্তর্জাতিক কিছু বিধিবিধান মেনে চলতে হয়। এর জন্য রয়েছে বার্সেলোনা ট্রানজিট কনভেনশন-১৯২১ ও নিউইয়র্ক ট্রানজিট কনভেনশন-১৯৬৫। এ ছাড়া ডব্লিউটিওর জেনারেল এগ্রিমেন্ট অন ট্যারিফস অ্যান্ড ট্রেড (গ্যাট) দলিলের পঞ্চম ধারায় (আর্টিকেল-৫)-এ ট্রানজিটের রীতি-নীতির উল্লেখ রয়েছে যা ডব্লিউটিওভৃক্ত সব সদস্য দেশের জন্য প্রযোজ্য। ট্যারিফস অ্যান্ড ট্রেড (গ্যাট) দলিলের পঞ্চম ধারায় (আর্টিকেল-৫) ‘ট্রানজিটের স্বাধীনতা’ বিষয়টি সম্পর্কে নীতিবিধান উল্লেখ করা হয়েছে। এটি ডব্লিউটিওর সদস্য সব দেশের জন্য সমভাবে প্রযোজ্য।

বার্সেলোনা কনভেনশনে দুটি সার্বভৌম রাষ্ট্রের মধ্যে ট্রানজিট চুক্তি স্বাক্ষরের সুযোগ নিশ্চিত করা হয়েছে। নিরাপত্তার বিবেচনায় ট্রানজিট সুবিধা সীমিত করার সুযোগও এ কনভেনশনে নিশ্চিত করা হয়েছে।   

ট্রানজিটের বিপরীতে কোনো শুল্ক আদায় করার সুযোগ নেই। তবে এই পণ্য পরিবহনের অবকাঠামো ব্যবহার, তা রক্ষণাবেক্ষণ, নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ইত্যাদির সেবার জন্য মাশুল আদায় করা যাবে।বার্সেলনা কনভেনশনের ধারা ৩এ ট্রানজিটের অধিকার দিতে কোনো ধরনের অর্থ গ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে তবে ট্রানজিট পরিচালনা ব্যয় নির্ধারণ করে তা আদায় করার সুযোগ রেখেছে। গ্যাটের পঞ্চম ধারার ৩ থেকে ৬ উপধারার শর্ত অনুসারে দুই ভাগে মাশুল আদায় করা যায়। এক. পণ্য প্রবেশ ও বহির্গমন পয়েন্টে  বিভিন্ন সেবার বিনিময়ে মাশুল ও সার্ভিস চার্জ আদায় ও দুই. ট্রানজিট পণ্যবাহী যানবাহনের ওপর নিবন্ধন ফি, শুল্ক ও কর, টোল ইত্যাদি অথবা মাশুল আদায়। স্থানীয় পরিবহণ ও ট্রানজিট পরিবহনের জন্য এসব ফি একই হারে প্রযোজ্য হবে।  

তবে বাংলাদেশের শুল্ক আইনে ট্রানজিট বাবদ ফি ও সার্ভিস চার্জ আরোপ-সংক্রান্ত ধারা ১২৯ অর্থবিল ২০১১-১২ দ্বারা বাতিল করা হয়েছে। অর্থাৎ বাংলাদেশে ট্রানজিট মাশুল আরোপের আপাতত কোনো সুযোগ নেই।

বাংলাদেশ সময় ১৬০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১১

অধ্যক্ষ নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যুতে বসুন্ধরা পরিবারের শোক
ইবনে খালদুনের জন্ম, নেহরুর প্রয়াণ
খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন মান্না
রংপুরে মদপানে পাঁচজনের মৃত্যু
করোনায় ঢাকায় আইনজীবীর মৃত্যু


রাজধানীতে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ
ডা. জাফরুল্লাহর জন্য ফল পাঠালেন খালেদা জিয়া
করোনায় আক্রান্ত হয়ে কাউন্সিলর মাজহারের মৃত্যু
শিবগঞ্জে বজ্রপাতে গৃহিণীর মৃত্যু
ধান মাড়াই মেশিনে চাপা পড়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু