সিরাজগঞ্জে ২২১ ভরি স্বর্ণ ছিনতাইয়ে জড়িত পুলিশ!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার হাইওয়ে ভিলা রেস্তোরাঁর সামনে গত ২৪ জুন বগুড়াগামী নৈশকোচ থেকে ২শ ২১ ভরি স্বর্ণ ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ সদস্যদের জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ।



সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার হাইওয়ে ভিলা রেস্তোরাঁর সামনে গত ২৪ জুন বগুড়াগামী নৈশকোচ থেকে ২শ ২১ ভরি স্বর্ণ ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ সদস্যদের জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে গ্রেপ্তার ৪ পুলিশ কনস্টেবলসহ ৬ আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ৭ দিনের রিমান্ড চেয়েছে।

রিমান্ড আবেদনের জবাবে শনিবার সিরাজগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হামিদুল ইসলাম ১৬ আগস্ট শুনানির তারিখ ধার্য করেছেন।

যেভাবে রহস্য উদঘাটিত হয়

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ জুন স্বর্ণ ছিনতাইয়ের ঘটনার পর অভিযুক্তরা ভাগবাটোয়ারা শেষে যে যার কর্মস্থলে চলে যান।

এর মধ্যে কনস্টেবল ওয়াসিম হোসেন বাবু তার গ্রামের বাড়ি বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার কালাইহাটা কলাকোপায় যান। গ্রামে ফিরেই তিনি দেড় লাখ দিয়ে ডিসকভারি মডেলের একটি মোটরসাইকেল কেনেন।

এরপর কয়েক শতক জমি কেনা ছাড়াও স্থানীয় একটি মসজিদে ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেন। পুলিশের সামান্য একজন কনস্টেবল হয়ে এত টাকা খরচ করতে দেখে এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়।

এরই সূত্র ধরে স্বর্ণ-ব্যবসায়ী রায়হান আলী কনস্টেবল ওয়াসিম হোসেন বাবুকে সনাক্ত করেন। তার পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার পর গত ১২ আগস্ট সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ থানায় মামলা (নং-১০) করেন।

পরে ডিবি পুলিশ ওয়াসিম হোসেন বাবুকে সিরাজগঞ্জের পুলিশ লাইন থেকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ছিনতাই ঘটনায় তার জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপর ৩ কনস্টেবল শাহনেওয়াজ ওরফে সুমন, রাজু আহম্মেদ, গোলাম রব্বানী এবং পুলিশ সোর্স বগুড়া সদরের শাখাবাড়িয়া গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে আতাউর রহমান ও ঠেঙ্গামারা দক্ষিণপাড়ার মৃত বাচ্চু মিয়ার ছেলে দৌলতজাহানের নাম প্রকাশ করেন।

এরই ভিত্তিতে ডিবি পুলিশ এ ৩ কনস্টেবলকে সিরাজগঞ্জ পুলিশ লাইন থেকে এবং অপর ২ জনকে বগুড়া থেকে গ্রেপ্তার করে।

ডিবি পুলিশের বক্তব্য

ডিবি পুলিশের ওসি মতিয়ার রহমান বাংলানিউজকে বলেন, ‘এসআই রাকিবুল হাসানকে তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আমরা ৭ দিনের রিমান্ড চেয়েছি। রিম্যান্ড পেলেই জিজ্ঞাসাবাদে পুরো তথ্য বেরিয়ে আসবে।’

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে গ্রেপ্তারদের কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে তা এখনই প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না।’

এ প্রসঙ্গে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার মোশারফ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ‘যদিও এটা আমাদের বিভাগের জন্য একটি বড় ধরনের দুর্নাম। তারপরেও আসামি যেই হোক না কেন, তাকে আইনের হাতে শেষ পর্যন্ত পড়তেই হবে।’  

উল্লেখ্য, গত ২৪ জুন ঢাকা থেকে বগুড়াগামী টি.আর.পরিবহনের নৈশকোচ উত্তরবঙ্গ মহাসড়কের রায়গঞ্জ উপজেলার হাইওয়ে ভিলা রেস্তোরাঁয় যাত্রা বিরতি করে।

এ সময় পুলিশের পোশাকধারী ৩ জন ও সাদা পোশাকে ১ জন কনস্টেবল হাতে ছড়িসহ ৬ ব্যক্তি মানিকগঞ্জ জেলার চারিগ্রামের রমজান আলী ব্যাপারীর ছেলে স্বর্ণ-ব্যবসায়ী রায়হান আলী ব্যাপারীকে (বর্তমানে বগুড়ার সিকিনধারা ম-লপাড়ার বাসিন্দা) নামিয়ে একটি সিএনজিচালিত অটোরিক্সায় তুলে নিয়ে যায়।

অটোরিক্সাটি বগুড়ার দিকে রওনা হওয়ার পর ওই ব্যবসায়ীর কাছে থাকা ২শ ২১ ভরি স্বর্ণ, মোবাইল ফোন ও ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

পরে তারা ব্যবসায়ী রমজান আলীকে বগুড়া জেলার শেরপুরে নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার পর থেকে স্বর্ণ-ব্যবসায়ী রায়হান আলী পুলিশ সদস্যদের সনাক্ত করার জন্য গোপনে অনুসন্ধান করতে থাকেন। পরে পুলিশ কনস্টেবল ওয়াসিম হোসেন বাবুর পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি রায়গঞ্জ থানায় একটি ছিনতাই মামলা দায়ের করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০১১

‘কর্ণফুলী বাঁচলে দেশ বাঁচবে’ গ্রন্থের প্রকাশনা উৎসব
‘ধূমপানের কথা বলে বাঁশঝাড়ে নিয়ে পাঠাওচালকে হত্যা করা হয়’
মঙ্গলবার শুরু সিইউডিএসর ১৬তম বিতর্ক কর্মশালা
মেলায় ‘রাজার কঙ্কাল’ নিয়ে সাখাওয়াত টিপু 
পথশিশুদের পাশে মেহজাবীনের হাসি ফাউন্ডেশন


উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণায় বাংলাদেশ সম্ভাবনাময়
রাজশাহীতে চার দিনব্যাপী পিঠা উৎসব শুরু
বঙ্গবন্ধু বিষয়ক দুই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
ওপার বাংলার ‘ওরা ৭ জন’ এখন পাবনায়
দ. আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি দলে ফিরলেন ডু প্লেসিস-রাবাদা