ময়মনসিংহ-ঢাকা মহাসড়কে ধর্মঘটের ৫ম দিন চলছে: বিচ্ছিন্ন ৫ জেলা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ময়মনসিংহ-ঢাকা মহাসড়ক দ্রুত সংস্কার ও জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে পরিবহন মালিকদের ডাকা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট রোববার ৫ম দিনে পড়লো।



ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহ-ঢাকা মহাসড়ক দ্রুত সংস্কার ও জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে পরিবহন মালিকদের ডাকা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট রোববার ৫ম দিনে পড়লো।

এ ধর্মঘটের ফলে ঢাকা থেকে একেবারেই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বৃহত্তর ময়মনসিংহের ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, জামালপুর, শেরপুর ও নেত্রকোণা জেলা।

গুরুত্বপূর্ণ এ মহাসড়কে পরিবহন ধর্মঘট চলায় হাজার হাজার যাত্রীকে প্রতিদিন অসহনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এদিকে, ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকা থেকে তেল, ময়দা, চিনি, মসল্লা, আটাসহ প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য ময়মনসিংহের বাজারে আসতে পারছে না। এতে করে বাজারে ভোগ্যপণ্যের সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। এভাবে আরও ২/১ দিন চলতে থাকলে ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে দেবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে ঢাকাগামী বাস চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীরা চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছেন। অনেক যাত্রীকে ময়মনসিংহ থেকে লোকাল বাসে মাওনা পর্যন্ত যাতায়াত করতে দেখা গেছে। এসব যাত্রীর কাছ থেকে ৩ থেকে ৪ গুণ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনেক যাত্রীকে বাধ্য হয়ে টাঙ্গাইল ঘুরে ঢাকা পৌঁছাতে হচ্ছে। গত বুধবার থেকে শুরু হয়েছে এ ধর্মঘট।

শহরের টাঙ্গাইল বাসস্ট্যান্ড মোড় এলাকায় অনিক ও বীথি নামে  দুই যাত্রী অভিযোগ করেন, ‘পরিবহন ধর্মঘট থাকায় টাঙ্গাইল ঘুরে আমাদের সাভার পৌঁছাতে হয়েছে। এতে সময়ও যেমনি বেশি লেগেছে, তেমনি খরচও হয়েছে বেশি!’

এ প্রসঙ্গে ময়মনসিংহ জেলা পরিবহন মোটর মালিক সমিতির মহাসচিব রবিউল হোসেন শাহীন বাংলানিউজকে বলেন, ‘রাস্তা পুরোপুরি মেরামত করা না হলে আমরা যান চলাচল শুরু করবো না। আমাদের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবেই।’

ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি মো. ইকরামুল হক টিটু বলেন, ‘ময়মনসিংহ থেকে ঢাকায় প্রতিদিন ১শ থেকে ১শ ২৫টি ট্রাক চলাচল করে। এসব ট্রাকে ময়মনসিংহ থেকে চাল যায় এবং ঢাকা থেকে তেল, ময়দা, আটা, চিনি, মসল্লাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগপণ্য আসে। বুধবার থেকে পরিবহন ধর্মঘট শুরু হওয়ায় ট্রাক চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এভাবে ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকলে সমস্যা ঘনীভূত হবে। এতে পণ্যের দাম ও সঙ্কট উভয়ই
বাড়তে পারে।’  

অপরদিকে, সড়ক ও জনপথ বিভাগ ময়মনসিংহ সার্কেল অফিস সূত্র মতে, গত দু’বছরে ময়মনসিংহ সড়ক ও জনপথ বিভাগ সড়কটি মেরামত ও উন্নয়নে ৬ কোটি ৯৫ লক্ষ টাকা খরচ করেছে। এ বিপুল অঙ্কের টাকা খরচ করেও সড়কের এ বেহাল অবস্থা দেখে সাধারণ মানুষের মনে অর্থ ব্যয়ের স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। যদিও এ ব্যাপারে কোনে কথা বলতে নারাজ সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তারা। সড়ক ও জনপথ বিভাগের ময়মনসিংহের নির্বাহী প্রকৌশলী জর্সিস সরকারকে মুঠোফোনে ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০১১

‘কর্ণফুলী বাঁচলে দেশ বাঁচবে’ গ্রন্থের প্রকাশনা উৎসব
‘ধূমপানের কথা বলে বাঁশঝাড়ে নিয়ে পাঠাওচালকে হত্যা করা হয়’
মঙ্গলবার শুরু সিইউডিএসর ১৬তম বিতর্ক কর্মশালা
মেলায় ‘রাজার কঙ্কাল’ নিয়ে সাখাওয়াত টিপু 
পথশিশুদের পাশে মেহজাবীনের হাসি ফাউন্ডেশন


উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণায় বাংলাদেশ সম্ভাবনাময়
রাজশাহীতে চার দিনব্যাপী পিঠা উৎসব শুরু
বঙ্গবন্ধু বিষয়ক দুই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
ওপার বাংলার ‘ওরা ৭ জন’ এখন পাবনায়
দ. আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি দলে ফিরলেন ডু প্লেসিস-রাবাদা