দেশের জলে ভাসছে মুক্ত জাহান মণি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

সোমালি জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার পাঁচ মাস পর দেশে ফিরেছে বহুল আলোচিত বাংলাদেশি জাহাজ এমভি জাহান মণি। ১০০ দিন জিম্মি থাকা ওই জাহাজটি এখন দেশের মুক্ত জলে ভাসছে।



চট্টগ্রাম: সোমালি জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার পাঁচ মাস পর দেশে ফিরেছে বহুল আলোচিত বাংলাদেশি জাহাজ এমভি জাহান মণি। ১০০ দিন জিম্মি থাকা ওই জাহাজটি এখন দেশের মুক্ত জলে ভাসছে।

ব্রাজিল থেকে দেশীয় একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের প্রায় এক লাখ মেট্রিক টন চিনি নিয়ে শনিবার রাত ৯টায় জাহাজটির বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়া পয়েন্টে পৌঁছে জাহান মণি।

 পরে রোববার বেলা ১২টায় জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙ্গরে নোঙ্গর ফেলে।

জাহাজটির মালিক প্রতিষ্ঠান ব্রেভ রয়েল শিপ ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির নির্বাহী কর্মকতা ক্যাপ্টেন গোলাম মোস্তফা জাহাজটির চট্টগ্রাম বন্দরে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ৩৮ হাজার টন আকরিক খনিজ নিয়ে গ্রিসে যাওয়ার পথে গত বছরের পাঁচ ডিসেম্বর জাহাজটি ছিনতাই করে সোমালি জলদস্যুরা।

এরপর জলদস্যুরা অস্ত্রের মুখে জাহাজের নাবিকদের জিম্মি করে সেটিকে জলদস্যুদের মুক্তাঞ্চল হিসেবে পরিচিত সোমালিয়ার গারাকাদ নামক অঞ্চলে নিয়ে গিয়ে আটকে রাখে।

এরপর শুরু হয় জলদস্যুদের সঙ্গে জাহাজ মালিক এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুক্তিপণ নিয়ে দেন দরবার।

নির্দিষ্ট অংকের মুক্তিপণের বিনিময়ে ছিনতাইয়ের একশ’ দিন পর গত ১৪ মার্চ জাহাজটি ছেড়ে দেয় জলদস্যুরা।

তবে জাহাজ মালিক এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বরাবর মুক্তিপণ দেওয়ার বিষয়টি নাকচ করা হয়েছে।

এদিকে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মুক্তির দু’দিন পর সোমালিয়া থেকে জাহাজটি আকরিক নিয়ে গ্রিসের উদ্দেশে রওনা দেয়।

১৭ এপ্রিল গ্রিসের ক্রিসানোনোখি বন্দরে পৌঁছার পর আকরিকগুলো খালাস করা হয়।

এরপর জাহাজটির সরাসরি দেশে আসার কথা থাকলেও এর মধ্যে জাহাজটিকে চিনি আমদানির জন্য বুকিং দেয় দেশীয় একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান।

চিনি বোঝাইয়ের জন্য এমভি জাহান মণি মে মাসের শেষদিকে ব্রাজিলের তারানাগুয়া বন্দরে পৌঁছায়।

চিনি বোঝাই করে গত ২৮ জুন জাহাজটি ব্রাজিল থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের উদ্দেশে রওনা দেয়।

জাহাজটির মালিক কবির স্টিল অ্যান্ড রি-রোলিং মিলের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান বাংলানিউজকে বলেন, ‘খুব ভালো লাগছে। জাহাজটি শুধু আমার ব্যক্তিগত সম্পদ নয়, এটি দেশের সম্পদ। জাহাজটি দেশে আসায় দেশের সম্পদ দেশে ফিরে এসেছে।’

ব্রেভ রয়েলের কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন গোলাম মোস্তফা বাংলানিউজকে জানান, এমভি জাহান মণি ফিরে আসায় কবির স্টিল এবং ব্রেভ রয়েলের কর্মকর্তাদের মধ্যে এখন প্রাণচাঞ্চল্য বিরাজ করছে।

রোববার সকালে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা প্রায় সবাই বন্দরে গিয়ে জাহাজটি ঘুরে ঘুরে দেখেছেন।

জাহাজটি আপাতত দেশে থাকবে বলে জানিয়েছেন ক্যাপ্টেন গোলাম মোস্তফা।

উল্লেখ্য, ছিনতাইয়ের সময় জাহাজটিতে ২৫ নাবিক এবং এক নাবিকের স্ত্রীসহ মোট ২৬ জন ছিলেন।

জাহাজটি মুক্ত হওয়ার পর পর গত ২১ মার্চ তারা দেশে ফিরে আসেন।

চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সেদিন তাদের স্বাগত জানিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মণি, নৌপরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খানসহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩১ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০১১

গর্বের সঙ্গে বাংলার ব্যবহার চায় ভারতের নদীয়ার প্রতিনিধিদল
ভেঙে পড়লো রাসিক মেয়র লিটনের সংবর্ধনা মঞ্চ
রামুতে বর্ণমালা হাতে হাজারো শিক্ষার্থীর কন্ঠে একুশের গান
ভাষাশহীদদের প্রতি বিরোধী দলীয়নেতা রওশনের শ্রদ্ধা
মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা


একুশে ফেব্রুয়ারি: বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন
বাংলায় দেওয়া রায়ে বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ
প্রথম প্রহরেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনস্রোত
একুশের প্রথম প্রহরে উপচেপড়া ভিড় শহীদ মিনারে
মাতৃভাষা বাংলার জন্য আত্মত্যাগের দিন