মঙ্গলবার মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

মেডিক্যাল কলেজগুলোতে অনলাইনে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া মঙ্গলবার রাত ১২ টা ১ মিনিটে শুরু হবে। আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর। ভর্তি পরীক্ষা হবে ২৩ সেপ্টেম্বর।

ঢাকা: মেডিক্যাল কলেজগুলোতে অনলাইনে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া মঙ্গলবার রাত ১২ টা ১ মিনিটে শুরু হবে। আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর। ভর্তি পরীক্ষা হবে ২৩ সেপ্টেম্বর।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়-  ১৬ আগস্ট থেকে অনলাইনের মাধ্যমে সরকারি-বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলোতে ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সের ১ম বর্ষে ভর্তির আবেদনপত্র পূরণ কার্যক্রম শুরু হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক স্বাস্থ্য  অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. খন্দকার মো: সিফায়েত উল্লাহ, অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডা. এ এফ এম সাইফুল ইসলাম, পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. শাহ আবদুল লতিফ, টেলিটকের মহাব্যবস্থাপক (মার্কেটিং) হাবিবুর রহমান, সেন্টার অব মেডিক্যাল এডুকেশনের পরিচালক ডা. এ বি এম হান্নান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মকবুলুর রহমান প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মাধ্যমিক (এসএসসি), উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) অথবা সমমানের পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে নূন্যতম জিপিএ-৮ অর্জনকারীরা ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে এ দু’টির কোন একটিতে প্রাপ্ত জিপিএ-৩.৫০ কম হলে ওই শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবেন না।

ভর্তি ফিস বাবদ ৬শ’ টাকা টেলিটক মুঠোফোন থেকে এসএমএস’র মাধ্যমে জমা দিতে হবে। আবেদনপত্র www.dghs.teletalk.com.bd এই ঠিকানায় পাওয়া যাবে।

আবেদনের জন্য অনলাইনে প্রবেশের পূর্বে ডিজিটাল ক্যামেরায় তোলা অথবা স্ক্যান করা পার্সপোর্ট সাইজের ছবি ও শিক্ষার্থীর নিজের স্বাক্ষরের স্ক্যান করা ছবি প্রস্তুত রাখতে হবে। শিক্ষার্থীর সঙ্গে যোগাযোগসহ অন্যান্য কাজে ব্যবহারের জন্য কমপক্ষে একটি মোবাইল নম্বর দিতে হবে।

ফরম পূরণের পূর্বেই নিজস্ব পছন্দ অনুযায়ী মেডিক্যাল কলেজ, ডেন্টাল কলেজ/ইউনিট বাছাই করে নিতে হবে। একবার পছন্দক্রম চূড়ান্তের পর তা পরিবর্তন করা যাবে না।

প্রত্যেক কলেজের জন্য পৃথক কোড নম্বর রয়েছে। ভর্তি ফরম যথাযথভাবে পূরণ শেষে একটি কোড নম্বর দেয়া হবে। এই কোড নম্বর ব্যবহার করে টেলিটক মোবাইলের মাধ্যমে ভর্তি ফি জমা দিতে হবে।

মেডিক্যালে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হচ্ছে। পাশাপাশি বিজ্ঞপ্তিটি www.dghs.gov.bd এই ঠিকানায়ও পাওয়া যাচ্ছে।

অধ্যাপক ডা. খন্দকার মো: সিফায়েত উল্লাহ বলেন, এর আগে মেডিক্যালে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অনেক ভোগান্তি পোহাতে হতো। ভর্তি পদ্ধতি অনলাইনে করার ফলে এ ভোগান্তি কমে আসবে।

তাছাড়া সরকার ডিজিটালাইজড কার্যক্রমকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। সরকারের এই অগ্রগতির সঙ্গে তালমিলাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ইতোপূর্বে বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। ভবিষ্যতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের যাবতীয় কার্যক্রম অনলাইনের মাধ্যমে করার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান তিনি।

অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. শাহ আবদুল লতিফ জানান, এইচএসসি পাশের পর প্রথমবারে যেকোন মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ™ি^তীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে নিরুৎসাহিত করতে জিপিএ এবং ভর্তি পরীক্ষায় অর্জিত মোট নম্বরের উপর থেকে পাঁচ নম্বর কেটে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এর মাধ্যমে নতুন শিক্ষার্থীরা বেশি সুযোগ পাবেন বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সরকারি-বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলোতে ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর একযোগে অনুষ্ঠিত হবে। এরআগে এই দুটি পরীক্ষা অধিদপ্তরের কেন্দ্রীয় তত্ত্বাবধানে পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত হতো।

এদিকে শিক্ষার্থীদের ক্রমবর্ধমান চাহিদার প্রেক্ষিতে এ বছর থেকে সকল সরকারি মেডিক্যাল কলেজে বর্তমান আসন সংখ্যার উপর ১০ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

পাশাপাশি নতুন আরও ৩টি সরকারি ও ১টি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ চালু করা হচ্ছে। এই ৪টি নতুন কলেজের প্রতিটিতে ৫০ জন করে মোট ২শ’ শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবেন।

অধ্যাপক ডা. শাহ আবদুল লতিফ বলেন, নতুন ৩টি মেডিক্যাল কলেজ চালু হলে সরকারি মেডিক্যাল কলেজের সংখ্যা ২১টি হবে।

এসব মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে মোট ২ হাজার ৬৮৬ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবেন। এছাড়া ঢাকা ডেন্টাল কলেজ ও চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল সংলগ্ন ডেন্টাল ইউনিটে বিডিএস কোর্সে ২৬৫টি আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে।

এর বাইরে এমবিবিএস কোর্সে ৭৪টি এবং বিডিএস কোর্সে ১৫টি সংরক্ষিত আসন রয়েছে। বেসরকারি খাতে ৪৪টি মেডিক্যাল কলেজ পরিচালিত হচ্ছে। বেসরকারি কলেজে মোট আসন সংখ্যা ৩ হাজার ৩৫০টি। বেসরকারি ১৩টি ডেন্টাল কলেজে আসন রয়েছে ৭৬৫টি। অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. শাহ আবদুল লতিফ বলেন, মেডিক্যালে ভর্তির কার্যক্রম অনলাইনে এই প্রথম চালু করা হচ্ছে। এনিয়ে বিভ্রান্তির কিছু নেই। শিক্ষার্থীদের জন্য এ পদ্ধতিকে অনেক সহজ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শিক্ষার্থীরা ফরম পূরণ করতে গিয়ে কোন সমস্যায় পড়লে নিচের নম্বরগুলোতে যোগাযোগ করতে পারবে।

নম্বরগুলো হচ্ছে-০১৫৫০১৫৭৭৫০, ০১৫৫০১৫০০৫৬, ০১৫৫০১৫০০৮০, ০১৫৫০১৫০০৬৬, ০১৫৫০১৫০০৬৪। এছাড়া ই-মেইল করেও সমস্যার সমাধান পাওয়া যাবে। ই-মেইল[email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০১১

করোনা: ফরজ নামাজের পরেই বন্ধ মসজিদের দরজা
চমেক হাসপাতালে পিপিই দিলো সানশাইন চ্যারিটি
চট্টগ্রামে আরও ১০৪ জনের করোনা পরীক্ষা, আক্রান্ত নেই
করোনা: বাংলাদেশে শুধু বয়স্ক নয়, ঝুঁকিতে সব বয়সীরাই
পুলিশ প্রধান হিসেবে আমি অত্যন্ত গর্বিত ও আনন্দিত: আইজিপি


জাতীয় অধ্যাপক সুফিয়া আহমেদের ইন্তেকাল
কোয়ারেন্টিনে থাকা ব্যক্তিকে অ্যাপে নজরদারি করবে পুলিশ
মসজিদে মুসল্লি নিয়ন্ত্রণে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নজরদারি
করোনার মধ্যে বিয়ে: সেই সরকারি কর্মকর্তা চাকরি থেকে বরখাস্ত
ভারতে বাড়ছে লকডাউনের মেয়াদ: মমতা