সড়কে খানা-খন্দক: উত্তরাঞ্চলের ১২ রুটের বাস চলাচল বন্ধ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে জলাবদ্ধতা ও খানা-খন্দক সৃষ্টি হওয়ায় ওই সড়কে চলাচলকারী বাস মালিকরা বুধবার সকাল থেকে বাস পরিচালনা থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।



গাজীপুর: ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে জলাবদ্ধতা ও খানা-খন্দক সৃষ্টি হওয়ায় ওই সড়কে চলাচলকারী বাস মালিকরা বুধবার সকাল থেকে বাস পরিচালনা থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

মহাসড়ক গাড়ি চলাচলের উপযোগী না হওয়া পর্যন্ত মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে তারা উত্তরাঞ্চলের ১২টি রুটে বাস চলাচল বন্ধ রাখবেন বলে আল্টিমেটাম দিয়েছেন। তবে গাজীপুর-চৌরাস্তা থেকে বুধবার দুপুরেও উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি রুটে সীমিত সংখ্যক বাস চলাচল করতে দেখা গেছে।
 
মহাখালী বাস টার্মিনাল সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি আলহাজ মো. আবুল কালাম জানান, গাজীপুর থেকে ময়মনসিংহ পর্যন্ত মহাসড়ক যান চলাচলের উপযোগী নেই। মহাসড়কে স্থানে স্থানে পানি জমেছে। ছোট-বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে গাজীপুর সদর উপজেলার ভোগড়া বাইপাস, সাইনবোর্ড, বাসন সড়ক, মালেকের বাড়ি, উল্কা সিনেমা হলের পশ্চিম পাশের এলাকা এবং শ্রীপুর উপজেলার মাওনা এলাকায় মহাসড়কটি সবচেয়ে বেশি খারাপ হয়ে পড়েছে। এসব এলাকার পানি নিষ্কাশনের ভালো ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই মহাসড়কে হাঁটু পানি জমে যায় এবং বিটুমিন নষ্ট হয়ে ছোট-বড় খানা-খন্দকের সৃষ্টি হয়। ক’দফা বর্ষণে মহাসড়কে সৃষ্ট এসব খানা-খন্দক সংস্কার না হওয়ায় পরিবহন চলাচল প্রায় প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। তাই বাস মালিকরা স্ব-প্রণোদিত হয়েই মহাখালী থেকে ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর, কিশোরগঞ্জের (আংিশক) ও নেত্রকোনাসহ উত্তরাঞ্চলের ১২টি বিভিন্ন রুটে বাস চলাচল বুধবার থেকে বন্ধ রেখেছে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতি গাজীপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক কামরুল আহসান রাসেল সরকার বাস চালানো বিরত রাখার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ইতোপূর্বে জুলাই মাসে একই কারণে (মহাসড়ক সংস্কারের দাবিতে) জেলা প্রশাসন ও যোগাযোগ মন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। কিন্তু কর্তৃপক্ষ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সংস্কারের আশ্বাস দিলেও আজ পর্যন্ত তার পুরোপুরি বাস্তবায়ন নেই। তাই বাস মালিকরা বাস পরিচালনা থেকে বিরত রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

গাজীপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ফজলে রব্বের সাথে বুধবার সকালে তার কার্যালয়ে গিয়েও পাওয়া যায়নি। মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেও বন্ধ পাওয়া গেছে।

তবে এর আগে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, মহাসড়কে ওভার লোডেড ট্রাক ও গাড়ি চলার কারণে বিভিন্ন স্পটে রাস্তা নষ্ট হচ্ছে। ফলে মহসড়ককে ব্যবহার উপযোগী রাখা সম্ভব হচ্ছে না। তাছাড়া মহাসড়কের আশেপাশে বিভিন্ন গার্মেন্টস  ফ্যাক্টরির ডাইং ও ওয়াশিং ফ্যাক্টরিগুলোর নিজস্ব ড্রেনেজ না থাকায় তাদের বর্জ্য পানি সড়কের ড্রেনে ছেড়ে দেয়। এতেও সড়ক নষ্ট হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৪ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০১১

শরীয়তপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো ২ কলেজছাত্রের
আড়াইহাজারে যুবলীগ নেতাসহ ৫ জনের জেল
ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে জ্বলে উঠলো ৫২শ' মোমবাতি
সারাদেশে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা
গর্বের সঙ্গে বাংলার ব্যবহার চায় ভারতের নদীয়ার প্রতিনিধিদল


ভেঙে পড়লো রাসিক মেয়র লিটনের সংবর্ধনা মঞ্চ
রামুতে বর্ণমালা হাতে হাজারো শিক্ষার্থীর কন্ঠে একুশের গান
ভাষাশহীদদের প্রতি বিরোধী দলীয়নেতা রওশনের শ্রদ্ধা
মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা
একুশে ফেব্রুয়ারি: বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন