‘এমন কিছু করে গেলাম যাতে সারাজীবন মনে রাখেন’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থী মারজিয়া জান্নাত সুমী আত্মহত্যার ঘটনায় বিভিন্ন জনের বিভিন্ন ধারণার ফলে আসলে কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তার কারণ সম্পর্কে ধূম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।



জাবি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থী মারজিয়া জান্নাত সুমী আত্মহত্যার ঘটনায় বিভিন্ন জনের বিভিন্ন ধারণার ফলে আসলে কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তার কারণ সম্পর্কে ধূম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।

তবে প্রেমঘটিত কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে কেউ কেউ ধারণা করছেন।

এদিকে, সুমীর বান্ধবীরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলানিউজ প্রতিবেদককে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মনিরুজ্জামান শিকদার সুমনের সঙ্গে তার দীর্ঘ এক বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। ¯œাতকোত্তর পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ার পর তারা বিয়ে করবেন বলেও সুমী মাঝে মাঝে আমাদের বলত। কিন্তু সুমির আগের বিয়ের কথা মনিরুজ্জামান জানতে পেরে তাকে বিয়ে করতে অপারগতা প্রকাশ করে।

এ কারণেই সুমী আত্মহত্যা করেছে বলে তাদের ধারণা।

এদিকে সুমীর আত্মহত্যার পর উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মনিরুজ্জামান শিকদার সুমনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘গত এক সপ্তাহ ধরে সুমীর সাথে আমার কথা হয়নি। আমরা বিয়ে করব এটা আমাদের পারিবারিক সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু সুমী আমার কাছে তার আগের বিয়ের কথা গোপন করেছিল। পরে তা জানাজানি হলে আমার পরিবার থেকে এ বিয়েতে আগ্রহ দেখায়নি। তাই আমিও তার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেই।’

এদিকে সুমী আত্মহত্যার পর তার রুম থেকে একটি ডায়েরি উদ্ধার করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। তবে ডায়েরিতে কী লেখা সে সম্পর্কে পুলিশ কিছু জানায়নি।

তবে সুমীর হলের শিক্ষার্থী সূত্রে জানা যায়, ওই ডায়েরিতে সুমী তার বাবা-মায়ের কাছে ক্ষমা চাওয়াসহ উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মনিরুজ্জামান শিকদার সুমনকে উদ্দেশ্য করে কিছুকথা লিখে গেছেন।

ওই শিক্ষার্থী জানান, ডায়েরিতে সুমনের উদ্দেশ্যে সুমী লিখেছেন, ‘সুমন ভাই, আপনি হয়তো আমাকে মনে রাখবেন না। তাই আমি এমন কিছু করে গেলাম যাতে আপনি আমাকে সারা জীবন মনে রাখেন।’

আর বাবা-মায়ের উদ্দেশ্যে লিখেছেন, ‘বাবা আমি তোমাদের অনেক ভালবাসি। আমি তোমাদের যোগ্য সন্তান হতে পারলাম না।’

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আত্মহত্যার ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। এছাড়া তার বাবা-চাচা মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে লিখিত দিয়ে মরদেহ নিয়ে গেছেন।’

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ৩৫তম ব্যাচের মেধাবী ছাত্রী মারজিয়া জান্নাত সুমী (২৪) আত্মহত্যা করেন। স্নাতক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগে প্রথম স্থান অর্জনকারী সুমী গত ২ আগস্ট ¯œাতকোত্তর পরীক্ষা শেষ করে হলেই অবস্থান করছিলেন।

সুমীর গ্রামের বাড়ি জামালপুর। দুই ভাই-বোনের মধ্যে তিনি বড় ছিলেন। তার পিতার নাম আব্দুস সালাম।

এদিকে সুমির মৃত্যুর খবরে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবিরসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সংগঠন গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৬ ঘণ্টা, ১০ আগস্ট, ২০১১

গর্বের সঙ্গে বাংলার ব্যবহার চায় ভারতের নদীয়ার প্রতিনিধিদল
ভেঙে পড়লো রাসিক মেয়র লিটনের সংবর্ধনা মঞ্চ
রামুতে বর্ণমালা হাতে হাজারো শিক্ষার্থীর কন্ঠে একুশের গান
ভাষাশহীদদের প্রতি বিরোধী দলীয়নেতা রওশনের শ্রদ্ধা
মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা


একুশে ফেব্রুয়ারি: বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন
বাংলায় দেওয়া রায়ে বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ
প্রথম প্রহরেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনস্রোত
একুশের প্রথম প্রহরে উপচেপড়া ভিড় শহীদ মিনারে
মাতৃভাষা বাংলার জন্য আত্মত্যাগের দিন