মাদারীপুরে বিপদসীমার ১৫ সেমির উপরে পদ্মার পানি, ব্যাপক ভাঙন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: মাদারীপুর পৌরসভা

walton

গত ৪ দিনের টানা বর্ষণে মাদারীপুরের পদ্মা, আড়িয়ালখাঁ ও কুমারনদসহ সকল নদ-নদীতে অস্বাভাবিক পানি বেড়েছে।



মাদারীপুর: গত ৪ দিনের টানা বর্ষণে মাদারীপুরের পদ্মা, আড়িয়ালখাঁ ও কুমারনদসহ সকল নদ-নদীতে অস্বাভাবিক পানি বেড়েছে।

বুধবার সকাল পর্যন্ত পানি বেড়ে পদ্মানদীর কাওরাকান্দি পয়েন্টে ১৫ সেন্টিমিটার (সেমি) উপর দিয়ে, আড়িয়ালখাঁ ও কুমারনদের বিপদসীমার ১ সেমি নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানির তোড়ে দক্ষিণাঞ্চলের গুরুত্বপুর্ণ টেকেরহাট বন্দরের উত্তর প্রান্তসহ জেলার শিবচর, রাজৈর ও সদরের ব্যাপক এলাকায় নদীভাঙন দেখা দিয়েছে।

মাদারীপুর পৌরসভাসহ শিবচর ও কালকিনির পৌরসভার অনেক স্থানে ভয়াবহ জলাবদ্ধতায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে মানুষ।

পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ স্থানীয় সূত্রগুলো পানি বৃদ্ধি, নদীভাঙন ও জলাবদ্ধতাজনিত জনদুর্ভোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউনিয়নের ৩০টি গ্রাম পানিবন্দি হয়েছে। শিবচরে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে পদ্মাবেষ্টিত চরাঞ্চলের ৪টি ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ ।

অপর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা, খাল-নালা দখল হয়ে যাওয়ায় মাদারীপুর শহরের পানিছত্র, দরগাখোলা, কালীবাড়ি এলাকা, শিবচর পৌরসভার কালীবাড়ি, বাজারের পোস্ট অফিস এলাকাসহ অনেক স্থান, কালকিনি পৌরসভার থানার মোড়, পুরান বাজার এলাকায় মারাত্মক জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এর ফলে পানিবন্দি হয়ে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন এসব এলাকার হাজার হাজার বাসিন্দা।

এদিকে, আড়িয়ালখাঁ ও কুমারনদে অস্বাভাবিক পানি  বেড়ে যাওয়ায় জেলার শিবচরের সন্ন্যাসীরচর, নীলমুখী ও রাজৈরের বদরপাশা শংকরদি, হোসেনপুরের গোয়ালবাতান, জেলা সদরের শিরখাড়ায় ব্যাপক নদীভাঙন দেখা দিয়েছে।

ভাঙনে বুধবার সকাল পর্যন্ত এসব এলাকায় শতাধিক ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

এছাড়াও দক্ষিণাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসাকেন্দ্র রাজৈরের টেকেরহাটের উত্তরপাড় ও ঢাকা-খুলনা মহাসড়েকর নদী শাসন বাঁধও ভাঙনের শিকার হয়েছে।

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, ‘আমরা শিবচরের নিলুখী ও সন্ন্যাসীরচরে নদীভাঙনের শিকার মানুষজনের কিছু তালিকা পেয়েছি। শিগগিরই তাদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হবে।’

আড়িয়ালখাঁর পানি বিপদসীমায় পৌঁছার সত্যতা নিশ্চিত করেন মাদারীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী অখিল বিশ্বাস।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০২ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০১১

গর্বের সঙ্গে বাংলার ব্যবহার চায় ভারতের নদীয়ার প্রতিনিধিদল
ভেঙে পড়লো রাসিক মেয়র লিটনের সংবর্ধনা মঞ্চ
রামুতে বর্ণমালা হাতে হাজারো শিক্ষার্থীর কন্ঠে একুশের গান
ভাষাশহীদদের প্রতি বিরোধী দলীয়নেতা রওশনের শ্রদ্ধা
মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা


একুশে ফেব্রুয়ারি: বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন
বাংলায় দেওয়া রায়ে বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ
প্রথম প্রহরেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনস্রোত
একুশের প্রথম প্রহরে উপচেপড়া ভিড় শহীদ মিনারে
মাতৃভাষা বাংলার জন্য আত্মত্যাগের দিন