php glass

বিক্ষিপ্ত ঘটনার মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে হরতাল: আহত ৪৪, আটক ৬৪

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত ঘটনার মধ্য দিয়ে বিএনপি, জামায়াত, ইসলামী ঐক্যজোটসহ সমমনা দলগুলোর ডাকে রোববার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হচ্ছে। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, বিভিন্ন জেলায় পুলিশের সঙ্গে পিকেটারদের সংঘর্ষে ৪৪ জন আহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় পুলিশ ৬৪ জনকে আটক করেছে।

ঢাকা: দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত ঘটনার মধ্য দিয়ে বিএনপি, জামায়াত, ইসলামী ঐক্যজোটসহ সমমনা দলগুলোর ডাকে রোববার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হচ্ছে। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, বিভিন্ন জেলায় পুলিশের সঙ্গে পিকেটারদের সংঘর্ষে ৪৪ জন আহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় পুলিশ ৬৪ জনকে আটক করেছে।

উল্লেখ্য, ‘আদালতের রায় অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা রাখার কোনও সুযোগ নেই’- সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন বক্তব্যের পর বিরোধী দল বিএনপি এ হরতালের ডাক দেয়। পরে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ঐক্যজোটসহ সমমনা দলগুলো  হরতালে সমর্থন ও একাত্মতা ঘোষণা করে।

দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে হরতাল নিয়ে বাংলানিউজ প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ

নোয়াখালী: বাংলানিউজের নোয়াখালী প্রতিনিধি জামাল হোসেন বিষাদ জানান, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হরতাল সমর্থনে বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব শাহজাহানের নেতৃত্বে মিছিল পৌর বাজারের সামনে থেকে শুরু করে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

জেলা শহর মাইজদী বাজার ও দত্তেরহাট এলাকায় হরতাল সমর্থকরা পিকেটিং, টায়ারে অগ্নিসংযোগ করে। এ সময় সংবাদকর্মী মনির হোসেন ও ক্যামরাম্যান মশিউর রহমান পিকেটরদের হামলায় আহত হন। দত্তেরহাটে পুলিশের লাঠি চার্জে আরো ৭/৮ জন কর্মী আহত হন। তাদের নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হরতালে পিকেটিংয়ের সময় ৬ জনকে আটক করে পুলিশ। এদিকে শনিবার রাতে জেলার সদর, বেগমগঞ্জ, কোম্পানিগঞ্জ ও সোনাইমুড়ি থেকে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের আরো ২২ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি, সদর সার্কেল) আ ফ ম নিজাম উদ্দিন জানান, হরতাল চলাকালে কিছু জায়গায় পিকেটররা সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা চালায়।

নরসিংদী: এদিকে হরতালের সমর্থনে নরসিংদীতে পুলিশ ও পিকেটারদের মধ্যে সংঘর্ষে বিএনপি শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য খায়রুল কবির খোকনসহ ১০জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন আমাদের নরসিংদী প্রতিনিধি মোর্শেদ শাহরিয়ার।

শহরের বাজির মোড় থেকে খোকনের নেতৃত্বে হরতালের পক্ষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটিতে পুলিশ বাধা দিলে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সঙ্গে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করলে পুলিশ ও পিকেটারদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে ১০ জন আহত হয়।

এ সময় পুলিশ পারভেজ নামে একজনকে আটক করে।

রংপুর: দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিএনপির নেতা-কর্মীরা শহরে মিছিল বের করার চেষ্ট করলে পুলিশ বাধা দেয়। এরপর বিক্ষুব্ধ কর্মীরা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রশিদুল হকসহ তিনজন পুলিশ আহত হয়। পরে পুলিশ তাদের ধাওয়া করলে পিকেটাররা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

এ ঘটনার পর পুলিশ বিএনপি অফিস ঘিরে রেখে আশেপাশের সড়ক বন্ধ করে পিকেটারদের আটক করতে তল্লাশী শুরু করেছে।

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে রোববার সকালে হরতালে সমর্থনে বের হওয়া বিএনপির মিছিল থেকে যুবদলের জেলা কমিটির সভাপতি ও মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক পৌর প্যানেল মেয়রসহ ৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ সময় পুলিশের সঙ্গে মিছিলকারীদের ধ্বস্তাধ্বস্তির ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশের লাঠিচার্জে ১০ জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রতিনিধি তানভীর হোসেন।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ শহর ছাড়া জেলার ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ, সোনারগাঁও, রূপগঞ্জ, বন্দর এলাকাতেও শান্তিপূর্ণ হরতাল পালিত হচ্ছে। দূরপাল্লার কোন বাস চলাচল করেনি। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

সদর মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকতার হোসেন বাংলানিউজকে জানান, সকালে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মিছিল করার চেষ্টা করলে সেখানে বাধা দেওয়া হয়।

খাগড়াছড়ি: বাংলানিউজের খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা প্রদীপ চৌধুরী জানান, প্রধান বিরোধী দলের ডাকা হরতাল পালিত হলেও কোথাও কোন অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেনি। শহরের দোকান-পাট বন্ধ এবং কোন যানবাহন চলাচল করছে না।

তবে শনিবার রাতে জেলার যুবদল নেতাসহ ৭ জনকে আটক করে পুলিশ।
 
ঝালকাঠি: ঝালকাঠিতে বিএনপি আহুত হরতাল চলছে ঢিমেতালে। তবে সকালে বরিশাল-ঝালকাঠি মহাসড়কের কলেজমোড়, বৈদারাপুর ও ঢাপড় এলাকায় গাছ ফেলে এবং টায়ার জালিয়ে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে পিকেটাররা।

শনিবার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সদর ও নলছিটি উপজেলা থেকে ৪ বিএনপি নেতা-কর্মীকে আটক করে।
 
খুলনা: বাংলানিউজের জেলা প্রতিনিধ শেখ হেদায়েতুল্লাহ জানান, বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, পুলিশের লাঠিচার্জ, পিকেটারদের ইট-পাটকেল নিক্ষেপ, খন্ড খন্ড মিছিল আর পুলিশের আটকের মধ্য দিয়ে খুলনায় পালিত হচ্ছে হরতাল।

নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে হরতাল সমর্থনে পিকেটিং করার সময় পুলিশের লাঠিচার্জে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। এ সময় পুলিশ ১৫ জনকে আটক করেছে।

এদিকে নগর বিএনপি সভাপতি সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু বাংলানিউজকে জানান, বিএনপি তথা চার দলীয় জোটের ডাকে দেশব্যাপী হরতাল পালিত হচ্ছে। কিন্তু হরতালকে নস্যাৎ করতে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর বেধড়ক লাঠিচার্জ করেছে। তারা শান্তিপূর্ন মিছিল করতেও দিচ্ছে না।

যশোর:  জেলা প্রতিনিধি তৌহিদ জামান জানান, হরতালের সমর্থনে রোববার সকালে যশোরের অভয়নগরে মিছিল বের করার চেষ্টা করলে লাঠিপেটায় উপজেলা জামায়াতের নায়েবে আমির অধ্যাপক আব্দুল করিম আহত হন। তাকে স্থানীয় থানা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

অভয়নগর থানা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, হরতালবিরোধীদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় আহত হয়েছেন তিনি। পুলিশ লাঠিপেটা করেনি।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩১ ঘণ্টা, জুন ০৫, ২০১১

মায়ের ওপর অভিমান, রাজধানীতে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
নোয়াখালীতে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে প্রাণ গেলো দু’জনের
প্রণব মুখার্জি-খান আতার জন্ম
খালেদার মুক্তির জন্য স্বেচ্ছায় কারাভোগে রাজি ফেনী বিএনপি
‘মাথাপিছু আয় ৬০০০ ডলারের আগেই সবার কাছে গাড়ি থাকবে’


দলের জন্য সবটুকু অভিজ্ঞতা ঢেলে দেবেন গিবস
কর দিতে হয়রানি হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা: অর্থমন্ত্রী
মিয়ানমারে গণহত্যার বিচার শুরু, সন্তুষ্ট রোহিঙ্গারা
বিশ্বসভ্যতার ইতিহাসই মানবাধিকার অর্জনের ইতিহাস
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নানা আয়োজন সিএমপির