গ্রামীণ ব্যাংকের ক্ষুদ্র ঋণ

সবিতার খাট-সোফা নিলামে বিক্রির ঘটনায় মামলা নেয়নি পুলিশ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

গ্রামীণ ব্যাংক থেকে নেওয়া ঋণের কিস্তি সময়মত দিতে ব্যর্থ হওয়ায় চট্টগ্রামে সবিতা দেবের ঘরের মালামাল নিলামে বিক্রির ঘটনায় মামলা নেয়নি পুলিশ।

চট্টগ্রাম: গ্রামীণ ব্যাংক থেকে নেওয়া ঋণের কিস্তি সময়মত দিতে ব্যর্থ হওয়ায় চট্টগ্রামে সবিতা দেবের ঘরের মালামাল নিলামে বিক্রির ঘটনায় মামলা নেয়নি পুলিশ।

সবিতা দেবের ছেলে উজ্জ্বল চৌধুরী সোমবার স্থানীয় বোয়ালখালী থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা না নিয়ে উল্টো তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ১২ মে বাংলানিউজে চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার পোপাদিয়া ইউনিয়নের বিদগ্রামে ঋণগ্রহীতা সবিতা দেবের ঘর থেকে খাট, সোফা, ফ্যান খুলে সেগুলো নিলামে বিক্রি করে দেওয়ার সংবাদ প্রকাশিত হয়।

অমানবিক এ কর্মকান্ডে বোয়ালখালী জুড়ে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

উজ্জ্বল চৌধুরী বাংলানিউজকে জানান, মামলা করতে যাওয়ার পর বোয়াখালী থানায় কর্তব্যরত অফিসার প্রায় দু’ঘণ্টা তাকে একটি কক্ষে বসিয়ে রাখেন। এসময় পুলিশ কর্মকর্তারা তাকে থানার পরিবর্তে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন। এক পর্যায়ে তিনি মামলা নেওয়ার অনুরোধ জানাতে ওসির কক্ষে ঢুকলে ওসি তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে মামলা নেওয়া হবে না জানিয়ে তাকে বের করে দেন।

মামলা না নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বোয়ালখালী থানার ওসি জহুরুল হক সবুজ বাংলানিউজকে বলেন, ‘উজ্জ্বলের যে অভিযোগ তাতে ফৌজদারি আইনে মামলা হয় না। গ্রামীণ ব্যাংক থেকে তার মা টাকা নিয়েছিল, টাকা ফেরত দিতে পারেনি তাই মালামাল নিলামে বিক্রি হয়েছে। এটা আইনসঙ্গত কিনা সেটা পরীক্ষা করবে গ্রামীণ ব্যাংক। কিন্তু ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ বিষয় তো ফৌজদারি আইনের আওতায় পড়ে না।’

ওসির এ বক্তব্যের বিষয়ে চট্টগ্রাম আদালতের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ‘দায়িত্ব এড়াতে ভুল ব্যাখা দিয়ে ওসি মামলা গ্রহণ করেননি। ঋণ গ্রহীতার ঘরে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ফৌজদারি আইনের ৪৪৮ ধারায়, সম্মতি ছাড়া মালামাল নেওয়ার অপরাধে একই আইনের ৩৮০ ধারায় ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের মাধ্যমে মালামাল লুটের অপরাধে ওই আইনের ৩৮৪ ধারায় মামলা নেওয়া যেত।’

অ্যাডভোকেট বাবুল বলেন, ‘গ্রামীণ ব্যাংক ঋণ দিয়েছে তাদের ঋণ আদায়ের অধিকার আছে। কিন্তু কেউ ঋণখেলাপী হলে আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে প্রথমে লিগ্যাল নোটিশ, পরে আদালতে মামলা করতে হবে। আদালত আদেশ দিলে তারপর স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ অধিগ্রহণ করা যাবে।’

এদিকে থানা মামলা না নেওয়ার পর উজ্জ্বলের পক্ষ থেকে আদালতে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

উজ্জ্বলের সঙ্গে থানায় যাওয়া স্থানীয় ইউপি সদস্য অরুণ ভঞ্জ বাংলানিউজকে বলেন, ‘গ্রামীণ ব্যাংকের লোকজন যে অমানবিক আচরণ করেছেন সেটার বিরুদ্ধে আমরা গ্রামবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ করে যাব। আমাদের পরামর্শেই উজ্জ্বল থানায় মামলা করতে গিয়েছিল। থানা মামলা না নেওয়ায় আমরা এখন আদালতে লড়ব।’

এর আগে গত ১১ মে দুপুরে সবিতা দেবের বাড়িতে ঢুকে তার মায়ের সঙ্গে গ্রামীণ ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া একই গ্রুপের ১০-১৫ জন নারী সদস্য তাদের ঘরে লুটপাট করে বলে অভিযোগ করেন উজ্জ্বল। এসময় গ্রামীণ ব্যাংকের রফিক নামে একজন ‘কালেকশন ম্যানেজার’ ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন নির্দেশনা দেন বলেও তিনি বাংলানিউজের কাছে অভিযোগ করেন।

উজ্জ্বল জানান, তাদের ঘর থেকে তিনটি খাট লুট করে প্রতিটি তিন হাজার টাকায়, এক সেট সোফা ৪ হাজার টাকায়, একটি সিলিং ফ্যান দেড় হাজার টাকায় ও দুটি চেয়ার (একটি হাতওয়ালা ও অপরটি হাতলবিহীন) একশ’ টাকায় নিলামে বিক্রি করা হয়। ঋণগ্রহীতা নারী সদস্যরাই আবার সেগুলো নিলামে কিনে নেন।

উজ্জ্বল চৌধুরী বাংলানিউজকে জানান, তার মা গ্রামীণ ব্যাংকের কানুনগোপাড়া শাখার অধীনে ৮ নম্বর কেন্দ্রের ৪ নম্বর গ্রপের সদস্য। ব্যাংক থেকে সদস্য হিসেবে গত এপ্রিল মাসের প্রথম দিকে ৪০ হাজার টাকা ও তিন মাস আগে আরও ২০ হাজার টাকাসহ মোট ৬০ হাজার টাকা ঋন নেন তার মা। দুটি ঋণ সমন্বয় করে তার মা’র পরিশোধের জন্য সাপ্তাহিক কিস্তি ছিল ১ হাজার ১৭০ টাকা।

উজ্জ্বল জানান, গ্রামীণ ব্যাংক ও আরও কয়েকজন নারী সদস্যের কাছ থেকে টাকা নিয়ে সবিতা চিকিৎসার জন্য এপ্রিলের মাঝামাঝিতে কলকাতা যান। এরপর গ্রামীণ ব্যাংকের গত দু’সপ্তাহের কিস্তি পরিশোধ করতে পারেননি উজ্জ্বল।

কিস্তি দিতে না পারায় উজ্জ্বলকে বুধবার সকালে গ্রামীণ ব্যাংকের কানুনগোপাড়া শাখায় তলব করে নিয়ে গিয়ে কর্মকর্তা ও গ্রুপ সদস্যরা অপমান করেন। এক পর্যায়ে ঋণগ্রহীতা সদস্যরা তার ঘরে গিয়ে লুটপাটের ঘটনা ঘটান।

বাংলাদেশ সময়: ২০১১, মে ২৩, ২০১১

বেনাপোলে প্রায় আড়াই মাস আটকা ১৯ ভারতীয় ট্রাকচালক
মোরা ত্রাণ চাই না, বেড়ি চাই
রবীন্দ্র সরোবর যেন সবুজের গালিচা
ফলন ভালো হলেও বিক্রি নিয়ে দুশ্চিন্তায় পাহাড়ের কৃষক
করোনায় মারা গেলেন প্রথম কোনো ফুটবলার


শ্বাসকষ্ট নিয়ে চবি শিক্ষকের মৃত্যু
প্রথম ইউরোপীয় দেশ হিসেবে ‘করোনামুক্ত’ মন্টেনিগ্রো
উল্লাপাড়ায় ঘুড়ি কেনাবেচা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত এক
ইডিইউতে হারমনি অব আর্টস আজ ও কাল
বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস রোববার