php glass

পুলিশের ফাঁকা গুলি, ১৪৪ ধারা জারি

হাতিয়ায় সংসদ আজিমের বাসায় হামলা-ভাংচুর, আহত শতাধিক

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

নোয়াখালীর হাতিয়ায় সাবেক সাংসদ মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে সাংসদ ফজলুল আজিমের বাসভবনে হামলা হয়েছে। এতে সংসদ সদস্যের শতাধিক সমর্থক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

হাতিয়া (নোয়াখালী): নোয়াখালীর হাতিয়ায় সাবেক সাংসদ মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে সাংসদ ফজলুল আজিমের বাসভবনে হামলা হয়েছে। এতে সংসদ সদস্যের শতাধিক সমর্থক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

সোমবার সকালের এ ঘটনায় প্রশাসন পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, হামলাকারীরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে আতংক সৃষ্টি করে সাংসদের বাসভবন ও কয়েকটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে এবং জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে এসে অনির্দিষ্ট কালের জন্য পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেন।

ঘটনাস্থলে বিপুল পরিমাণ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সাংসদের ঘনিষ্ঠ সূত্রের দাবি, ফজলুল আজিম গত কয়েক দিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ ও উন্নয়নমূলক কর্মকা- পরিদর্শন শেষে সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় ঢাকা যাওয়ার প্রাক্কালে প্রকাশ্যে মুন্সিয়া বাহিনী, নিজাম ডাকাত, আজাদ ডাকাত, নহেল বাহিনী, রবীন্দ্র বাহিনী, রাহিম ডাকাত, বাগরাজ, পান কামাল, এনায়েত কাজি, আজহার ডাকাত, মালেক ডাকাত, হাবিব ডাকাতসহ অন্তত ৩ শতাধিক সশস্ত্র ডাকাত রিভলবার, পিস্তল, পাইপগান, রামদা, ঢাল, কিরিচসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ হাতিয়া শহরের ডাকবাংলো এলাকায় এমপির বাসভবনে হামলা চালায়। এসময় দস্যুবাহিনীর আক্রমণ থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পান সাংসদ ফজলুল আজিম। গুলির শব্দে আতঙ্কিত হয়ে লোকজন প্রাণ ভয়ে পালাতে থাকে।

সাংসদের লোকজন জানান, হামলা শেষে দস্যুরা সাংসদ আজিম প্রতিষ্ঠিত হাতিয়া আদর্শ মহিলা কলেজে হামলা চালিয়ে অধ্যক্ষ আকরাম হোসেন ও ইমামুল হোসেন ফারুকের মোটরসাইকেল ভাংচুর করে এবং তাদের অধ্যক্ষের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় এমপির বাসায় নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছে।

আহতরা হচ্ছেন- আব্দুর রহমান (২৫), ফিরোজ উদ্দিন (৩০), তারেক আজিজ (৩০), রাহেনা বেগম (৪৫), রাশেদ (২৮), জারদারি (৩৫), আব্দুল মোমেন (৫৫), কামাল (৪৫), হেলাল (৪০), শামিম (২৫), মাহবুব (৪০), তুহিন (২২), হাছিব (৪২), আকরাম (৩৫), মান্নান (৪২), ইব্রাহীম (৩০), শাহিন (৪০), ছালা উদ্দিন (৪০), চেয়ারম্যান আলা উদ্দিন বাবু (৪০), আহছান উল্যাহ বাহার (৫৫) আব্দুল বাতেন (৩৩), আবুল কালাম (৩৫), তারেক (৩৫), সুমন (২৪), মনির উদ্দিন (৬৫), মোঃ রাসেল উদ্দিন (২৮), নহেল উদ্দিন (৩৫), সাহাব উদ্দিন (৪০), পৌর মেয়র ইউসূফ আলী (৪৫), মনজু (২৪), আমজাদ হোসেন (২৪), ইরাজ উদ্দিন (২৩), হাছান মাহমুদ (২৫), ওয়ালী উল্যাহ (২৮), বাকের হোসেন (২৪), আবুল কালাম (২৮) প্রমুখ। বাকিদের নাম পাওয়া যায়নি। আহতদের হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক কয়েকজন জানান, গত কয়েক দিন ধরে মোহাম্মদ আলী হাতিয়ার বিভিন্ন স্থান থেকে বনদস্যু মুন্সিয়া বাহিনীর সদস্যদেরকে তার বাসভবনে একত্রিত করে সংগঠিত করে সংসদ সদস্যের উপর হামলা করার জন্য। এসব দস্যুরা এর আগেও কয়েক বার সাংসদের ওপর হামলা করেছিল।

এব্যাপারে সাংসদ ফজলুল আজিম বাংলানিউজকে বলেন, ‘জলদস্যু-বনদস্যুদের বিরুদ্ধে জাতীয় সংসদে বারবার আমি বক্তব্য দেওয়ায় দস্যুরা তাদের গডফাদার মোহাম্মদ আলীর সঙ্গে একত্রিত হয়ে আমার বাসভবনে হামলা করে আমার কর্মকর্তা কর্মচারীদের ওপর হামলা চালায়। আমার বাসভবন থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্রসহ বহু মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।’

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সাবেক এমপি মোহাম্মদ আলী অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমার লোকজন সাংসদের বাসায় হামলা করেনি। তার বাসার সামনে দিয়ে পৌর অফিসে যাচ্ছিল। পরে আমি সংঘর্ষের খবর শুনি।’

তিনি তার লোকজনের গোলাগুলির বিষয়টিও অস্বীকার করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হারণ-আর-রশীদ বলেন, ‘দস্যুদের সশস্ত্র মহড়া, সংসদ সদস্যের বাসায় ভাংচুরের ঘটনায় আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটায় অনির্দিষ্ট কলের জন্য পৌর এরাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৫ ঘণ্টা, ১৬ মে, ২০১১

রাজনীতিকে ব্যবসা বানাতে চান অনেকে: বিপ্লব বড়ুয়া
 আসন্ন নির্বাচনে অংশ নিতে ‘প্রচণ্ড চাপে’ হিলারি 
প্রধানমন্ত্রীকে বিএনপির এমপি হারুনের ধন্যবাদ
পিএসএলে নেই কোনো বাংলাদেশির নাম
রোহিঙ্গাদের এনআইডি: ২ ইসি কর্মচারী ৭ দিনের রিমান্ডে


বগুড়ায় চার জেলার ২৮ করদাতাকে সম্মাননা
সুন্দরবনে অনুপ্রবেশের অভিযোগে আটক ৫৫
কলকাতায় শীতের আমেজ
‘সুস্থ জীবনযাপনে খাবার গ্রহণ পরিমিত হওয়া প্রয়োজন’
আরেকটা ‘চমক’ দেখাতে পারবে বাংলাদেশ?