php glass

স্বপ্ন পূরণ হলো না বাপ্পীর

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

তারাবো থেকে ফিরে: স্বপ্ন ছিলো অনার্স শেষ করে উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশে যাবেন। বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরণ করবেন। বেসরকারি একটি জুট মিলের অবসরপ্রাপ্ত চাকুরে বাবার একমাত্র ছেলে হিসেবে পরিবারের হাল ধরবেন। ছয়বোন আর বৃদ্ধ বাবা-মায়ের এমনই আশা ছিলো।

তারাবো থেকে ফিরে: স্বপ্ন ছিলো অনার্স শেষ করে উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশে যাবেন। বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরণ করবেন। বেসরকারি একটি জুট মিলের অবসরপ্রাপ্ত চাকুরে বাবার একমাত্র ছেলে হিসেবে পরিবারের হাল ধরবেন। ছয়বোন আর বৃদ্ধ বাবা-মায়ের এমনই আশা ছিলো।

চট্টগ্রামের চাঁদগাও থানার প্রত্যন্ত গ্রাম মোহরা থেকে পরিবারের সবাইকে ছেড়ে উচ্চশিক্ষার জন্য ঢাকায় আসা বাপ্পীর সেই স্বপ্ন পূরণ হলো না। কথাগুলো বলছিলেন রোববার বাস চাপায় নিহত তৈয়ব নূর চৌধুরী বাপ্পীর চাচা মো. তারেক।

রোববার চিটাগং রোডের কাঁচপুরে ট্রাক চাপায় নিহত হন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগ প্রথম ব্যাচের সপ্তম সেমিস্টারের ছাত্র তৈয়ব নূর চৌধুরী বাপ্পী।

মো. তারেক জানান, ইস্পাহানি জুট মিলের চাকরি করতো বাপ্পীর বাবা। অবসর নেওয়ার পর এখন ছোট্ট একটি মুদীর দোকান আছে তার। মা কিডনি রোগে আক্রান্ত। ছয় মেয়ের পর একমাত্র ছেলে বাপ্পীকে ঘিরেই ছিল পরিবারের সুখ-দুঃখ। লাশ বাড়ী নিয়ে কিভাবে তাদের শান্তনা দেব ভাবতে পারছি না।

বাপ্পীর বন্ধুরা জানান, বাপ্পীর স্বপ্ন ছিলো জগন্নাথ থেকে অনার্স শেষ করে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা নেবে, বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরণ করবে। এসএসসি ও এইচএসসিতে এ প্লাস পেয়েছিল সে। ২০০৫ সালে জগন্নাথ বিশ্বিবদ্যালেয় ভর্তির পর থেকে নিয়মিত ক্লাস করতো। ভদ্র মার্জিত ছাত্র হিসেবে পরিচিত ছিলো ক্লাসের ছাত্র-শিক্ষককদের কাছে।

বিভাগে ফলাফলের দিক থেকে চতুর্থ বাপ্পী সামনে সপ্তম সেমিস্টারের ফাইনাল পরীক্ষা ৬/৭ মাস পর  অনার্স শেষ করতেন। কিন্তু ঘাতক বাস বাপ্পীর প্রাণ কেড়ে নিলো। কেড়ে নিলো বাপ্পীর বাবা নূরুল ইসলাম চৌধুরীর বুকের মানিককে। ছয়বোনের একমাত্র ভাইকে।

ভোরের আলো ফোটার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিদিন ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হতেন বাপ্পী। নিয়মিত ক্লাস করে বিকেলে সূর্যের আলো নিভে যাওয়ার আগেই ওয়েলগ্রুপের বাংলোতে তার কক্ষে ফিরতেন। পড়াশোনার পাশাপাশি চলতো আড্ডা।

পহেলা বৈশাখে গ্রামে যাবেন বলে ঠিক করেছিলেন। আর এ ছুটিতে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজারকে তার বাড়ীতে যাওয়ার আমন্ত্রণও জানিয়েছিলেন।

ম্যানেজার আনোয়ার পারভেজ বলেন, প্রায় চার বছর ধরে বাপ্পী ভাই এখানে থাকেন। তার মত ভদ্র ও হাসিখুশি তরুণ আর দেখিনি।

এসময় তিনি বাপ্পীর ব্যবহার্য বিছানা আর সকালে যে থালায় ভাত খেয়ে বেড়িয়ে গেছেন তা প্রতিবেদককে দেখিয়ে কেঁদে ফেলেন।   

বাপ্পীর মৃত্যুর খবরে পুরো ক্যাম্পাসজুড়ে চলছে শোকের মাতম। বাপ্পীকে একনজর দেখার জন্য কাঁচপুরে ছুটে যান তার বন্ধু সহপাঠীরা। মার্কেটিং বিভাগ ৭ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী মুন্নী, সৈকত, সেতু সিকদার, উর্মী জানান, বাপ্পী আমাদের কাউকে কখনও ঘোমড়া মুখে দেখতে পারতো না। যতক্ষণ ওর সাথে থাকতাম ততক্ষণ ও সবাইকে মাতিয়ে রাখতো। ও একদিন ক্লাস না করলে মনে হতো সমস্ত ক্লাসে প্রাণ নেই।

বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জাকির হোসেন বলেন, ছেলেটি অত্যন্ত নম্র স্বভাবের। প্রায় সময়ই আমার কাছে আসতো পড়াশোনা সংক্রান্ত পরামর্শ নিতে। আজ তার এই করুণ পরিণতি বিভাগের কোনো শিক্ষক-কর্মচারী কেউ মেনে নিতে পারছেনা।

তার মৃত্যুর খবর শুনে কোনো শিক্ষকই আজ ক্লাস নিতে পারেননি। সবাই ছুটে গেছেন তাদের প্রিয় ছাত্রটিকে শেষবারের মত এক নজর দেখতে।

বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মেসবাউদ্দিন বলেন, এমন করুণ মৃত্য কেউ মেনে নিতে পারে না। বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরণের একমাত্র অবলম্বন যেন আর এভাবে হারিয়ে না যায় এবং আর যাতে কোনো বাপ্পীকে এভাবে প্রাণ না দিতে হয় এজন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১০, ২০১১

ksrm
হংকংয়ে শুরু হচ্ছে কান চলচ্চিত্র উৎসব
র‌্যাগিং বন্ধে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নির্দেশ
জাবি উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ
'সিরিয়ায় তুর্কি অভিযানে বাস্তুচ্যুত প্রায় ৩ লাখ'
সাইবার আক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতার বিকল্প নেই


‘চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে নেতৃত্ব দিতে তরুণদের গড়ে তুলতে হবে’
৫৫ কোটি ২৩ লাখ টাকা নিট আয় বিএসসির
রংপুর মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজের পরিবেশক সম্মেলন
দুর্নীতির অভিযোগ পেলে সিটি নির্বাচনে মনোনয়ন নয়
নাশকতা মামলায় আব্বাস-আলালসহ ৫৬ জনের বিচার শুরু