php glass

রোববার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেললাইনের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের অংশ হিসেবে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

চট্টগ্রাম: ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের অংশ হিসেবে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আগামী ৩ এপ্রিল (রোববার) কক্সবাজারের ঝিলংজায় বহু কাঙ্খিত এই প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক গিয়াসউদ্দিন আহমেদ বাংলানিউজকে জানান, দিনব্যাপী এই সফরে প্রধানমন্ত্রী বিমানবাহিনীর ঘাঁটি উদ্ধোধন, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের নিজস্ব ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং সাবমেরিন কেবল স্টেশনের আপগ্রেড কার্যক্রমের উদ্ধোধন করবেন।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজার সার্কিট হাউসে আইনজীবী ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে  পৃথক বৈঠক করবেন। বিকেলে কক্সবাজারে জেলে পার্ক মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।  

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর এই সফরের দুই দিন আগে ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ে প্রকল্প এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শনে চট্টগ্রামে আসছে এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) উচ্চ পর্যায়ের একটি দল।

এডিবির পরিচালক শ্রী ওয়াইদু ওয়াটি’র নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সফর করবেন। রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এই সময় তাদের সাথে থাকবেন।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা রেলভবনের প্রধান পরিকল্পনা কর্মকতা বিজয় কৃঞ্চ চক্রবর্তী বাংলানিউজকে জানান, ১৮৫২ কোটি টাকা ব্যয়ে এই রেললাইন নির্মিত হবে। এর মধ্যে ৬৭০ কোটি টাকা সরকার যোগান দিবে। বাকী ১২০০ কোটি টাকার এখনো সংস্থান হয়নি।

তিনি বলেন, এডিবি এই টাকা দেবে বলে প্রাথমিকভাবে আমরা আশা করছি। এডিবি’র অর্থায়নে এই প্রকল্পের ডিটেইল ডিজাইন তৈরি করতে পরামর্শক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, প্রকল্পের আওতায় চট্টগ্রামের দোহাজারি থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার এবং রামু থেকে মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী গুনদুম পর্যন্ত ১২৮ কিলোমিটার সিঙ্গেল লাইন মিটার গেজ ট্র্যাক নির্মিত হবে। ২০১২ সালের জুন মাসের মধ্যে জমি অধিগ্রহণ সম্পন্ন করে রেললাইন নির্মাণ কাজ শুরু করার কথা রয়েছে।
 
রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী ইউসুফ আলী মৃধা বাংলানিউজকে বলেন, ‘এডিবি প্রতিনিধি দল শুক্রবার মহানগর প্রভাতীতে চট্টগ্রামে পৌঁছাবেন। রেলওয়ের ইন্সপেকশন কারে তারা ঢাকা-চট্টগ্রাম রেললাইন সরেজমিন পরিদর্শন করবেন। পরদিন শনিবার তারা কক্সবাজারে প্রস্তাবিত ট্রান্স এশিয়ান রেললাইন এলাকা  পরিদর্শনে যাবেন।’

এই সফরের সময় ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের পাশাপাশি ঢাকা-মাওয়া এবং মাওয়া-ভাঙ্গা রেললাইন নির্মাণের ব্যাপারে অর্থায়নের জন্য তাদের অনুরোধ করা হবে বলে জানান তিনি।  

প্রসঙ্গত জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে শুরু হওয়া এই রেল নেটওয়ার্কে বাংলাদেশসহ ২০টি দেশ যুক্ত হবে। বাংলাদেশের এই রেললাইন চীনের কুনমিং পর্যন্ত  যাওয়ার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০২ ঘণ্টা, মার্চ ২৯, ২০১১

ksrm
বাচ্চাকে মারপিটের নালিশ নিয়ে হনুমান দল থানায়!
মৃত ব্যক্তির বয়স্ক ভাতা উত্তোলন করছেন নারী ইউপি সদস্য!
মুষ্টিমেয় শিক্ষক আন্দোলনের কলকাঠি নাড়াচ্ছেন
নকলায় বাসচাপায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত
জাতীয় নারী দাবায় শীর্ষস্থানে রানী হামিদ


আন্দোলনের মুখে ইবি প্রক্টরকে অব্যাহতি
ফরিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এনজিও কর্মকর্তা নিহত
বিজয়নগর সায়েম টাওয়ার থেকে আটক ১৭
চট্টগ্রাম বিভাগীয় ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন ছাগলনাইয়া পাইলট
ইয়েমেনের কাছে হেরে গেলো বাংলাদেশের কিশোররা