‘ট্রানজিটের জন্য পুরো প্রস্তুত চট্টগ্রাম বন্দর’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ট্রানজিট রুট হিসেবে ব্যবহারের জন্য চট্টগ্রাম বন্দর পুরোপুরি প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন বন্দরের নতুন চেয়ারম্যান কমোডর এম আনোয়ারুল ইসলাম। মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম বন্দর ভবনের সম্মেলন কে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে তিনি এ কথা জানান।

চট্টগ্রাম: ট্রানজিট রুট হিসেবে ব্যবহারের জন্য চট্টগ্রাম বন্দর পুরোপুরি প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন বন্দরের নতুন চেয়ারম্যান কমোডর এম আনোয়ারুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম বন্দর ভবনের সম্মেলন কে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে তিনি এ কথা জানান।

কমোডর আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে বন্দরে অবকাঠামোগত যেসব সুযোগ সুবিধা আছে তা দিয়ে বন্দরকে ট্রানজিটের আওয়তায় আনা হলেও আরও প্রায় ৩০ শতাংশ সুবিধা অব্যবহৃত থাকবে।

এছাড়া আগামী বছরের জুনে দশ লাখ টিইউস হ্যান্ডলিং মতা সম্পন্ন নিউমুরিং কন্টেইনার টার্মিনালের কাজ শেষ হলে এ সুযোগ আরও বাড়বে বলে জানান তিনি।

এ সময় বন্দর চেয়ারম্যান বলেন, গত বছর চট্টগ্রাম বন্দরের মাধ্যমে ১৩ লাখ ১৩ হাজার টিইইউএস কনটেইনার পণ্য পরিবহন হয়েছে।

ট্রানজিট সুবিধা দিলে পণ্য পরিবহনের পরিমাণ গড়ে মাত্র সাত থেকে সাড়ে সাত শতাংশ বাড়বে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, বাড়তি পণ্য পরিবহনের মাধ্যমে প্রতিবেশী তিন দেশ ভারত, নেপাল ও ভুটানকে ট্রানজিট সুবিধা দিতে চট্টগ্রাম বন্দর এ মুহূর্তে পুরোপুরি প্রস্তুত।

বন্দরের বর্তমান অবকাঠামো ও যন্ত্রপাতি দিয়েই তা সম্ভব বলে জানান বন্দও চেয়ারম্যান।

মতবিনিময়ের কালে আরও উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (প্ল্যানিং অ্যান্ড অ্যাডমিন) নজরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘প্রতিবেশী দেশগুলোকে ট্রানজিট সুবিধা দেওয়া হলে বাংলাদেশের অভ্যন্তর দিয়ে উত্তর-পূর্ব ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে  বছরে প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ মেট্রিক টন পণ্য পরিবহন করা হবে। এর মধ্যে ১ কোটি ৬০ লাখ টন পণ্য পরিবহন করা হবে স্থলবন্দর দিয়ে এবং সমুদ্রবন্দর দিয়ে যাবে ২০ লাখ টন।’  

উল্লেখ্য, নজরুল ইসলাম ট্রানজিট বিষয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের গঠিত এক নম্বর উপ-কমিটির  কমিটির সদস্য।

মতবিনিময়কালে বন্দর চেয়ারম্যান আরও জানান, চট্টগ্রাম বন্দরকে আধুনিকায়নের পাশাপাশি বন্দর সম্প্রসারণে মাস্টার প্ল্যান তৈরি করা হচ্ছে।

এছাড়া কর্ণফুলী কন্টেইনার টার্মিনাল নামে নতুন আরও একটি কন্টেইনার টার্মিনাল স্থাপন, কর্ণফুলী নদীর নাব্যতা রায় ক্যাপিটাল ড্রেজিং, বন্দরের অভ্যন্তরের নিরাপত্তা জোরদার করতে আরও সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হচ্ছে।  

এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন নৌ-বাহিনীর কর্মকর্তা  কমোডর এম আনোয়ারুল ইসলাম। চেয়ারম্যান হিসাবে এই ছিল তার সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হওয়া।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৬ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০১১

Nagad
শোরুমে ডাকাতি: সুমনের স্বীকারোক্তি, রানা কারাগারে
‘বিএনপি আমলে সাহেদ হাওয়া ভবনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন’
করোনা: ঢাকাসহ চার জেলায় পশুর হাট না বসানোর প্রস্তাব
নোবেলজয়ী কবি পাবলো নেরুদার জন্ম
ঢাকার পথে সাহারা খাতুনের মরদেহ


ভিয়েতনামে মানবপাচারের ঘটনায় আটক তিনজন রিমান্ডে
পল্লবীতে ভুয়া চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানে অভিযান, আটক ৩
রাজশাহীতে বাসচাপায় অটোরিকশার চালকসহ নিহত ২
‘আদিম’ মুক্তির আগেই নির্মিত হচ্ছে সিক্যুয়েল
লকডাউনে ভিডিওচিত্র বানিয়ে খুদে শিক্ষার্থী প্রিয়তির রোবট জয়