ঢাকা, বুধবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০, ২১ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

সড়ক অবরোধ, গাড়ি ভাঙচুর

বাড্ডায় দিনেদুপুরে ব্যবসায়ীকে খুন করে ১৬ লাখ টাকা ছিনতাই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১১
বাড্ডায় দিনেদুপুরে ব্যবসায়ীকে খুন করে ১৬ লাখ টাকা ছিনতাই

ঢাকা: রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছিনতাইকারীরা দিনে দুপুরে ব্যস্ত রাস্তায় শত শত লোকের চোখের সামনে সাঁতারকুল রাইস এজেন্সির ব্যবস্থাপক শামসুল ইসলামকে (৪৮) গুলি করে ১৬ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। পরে ওই ব্যবসায়ী হাসপাতালে মারা গেছেন।

লোমহর্ষক এ ঘটনার প্রতিবাদে বিুব্ধ এলাকাবাসী রাস্তা অবরোধ করে ব্যাপক ভাংচুর চালিয়েছেন।

নিহতের ভাগিনা ও রাইস এজেন্সির মালিক জাকির হোসেন বাংলানিউজকে জানান, নিহত শামসুল ইসলাম পুরো ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান দেখাশুনা করত। প্রায়ই ব্যবসার টাকা তিনি ব্যাংকে জমা দিতেন। রোববারও টাকা জমা দিতে রিক্সাযোগে যাওয়ার সময় ছিনতাইকারীরা গুলি করে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

ছিনতাই করে পালানোর সময় জামাল হোসেন, আলমগীর ও সালেক সরকার নামের তিন ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত চার লাখ টাকা উদ্ধার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের পর মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে ওই তিন ছিনতাইকারীকে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন থানার ডিউটি অফিসার এসআই আবদুল কাউয়ুম।

আটককৃতরা স্থানীয় একটি ছিনতাই চক্রের সদস্য বলে পুলিশ জানায়।

বাড্ডা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহাদাত হোসেন বাংলানিউজকে জানান, বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে ব্যবসায়ী শামসুল ইসলাম হত্যার প্রতিবাদে স্থানীয় জনতা ওই এলাকার প্রগতি স্মরণী সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে তারা বেশ কিছু গাড়ী ভাংচুর করে।

এসময় রাস্তার উভয় পাশে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বাড্ডা থানার ওসি মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে জনতার সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় সড়কের দুই পাশের দোকানপাট বন্ধ করে ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভে যোগ দেন।

প্রায় দুই ঘণ্টা রাস্তা অবরোধের কারণে প্রগতি স্মরণী সড়কের দুইপাশে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়।

সন্ধ্যা সোয়া সাতটার দিকে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।  

ছিনতাইয়ের ব্যাপারে ওসি মজিবুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে উত্তর বাড্ডার চ/৯৭ এর সাঁতারকুল রাইস এজেন্সির ব্যবস্থাপক শামসুল ইসলাম (৪৮) প্রায় ১৬ লাখ টাকা নিয়ে ইসলামী ব্যাংকের মধ্যবাড্ডা শাখায় জমা দেওয়ার জন্য যাচ্ছিলেন। পথে প্রগতি স্মরণী সড়কের রাজভোগ মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের সামনে কয়েকজন ছিনতাইকারী তার গতিরোধ করে। এরপর তারা শামসুল ইসলামকে ব্যস্ত রাস্তায় শত শত লোকের সামনে গুলি করে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

বাম বুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেল সোয়া চারটার তার মৃত্যু হয়।  

নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।   মর্গের সামনে নিহতের আত্মীয়-স্বজনেরা লাশ গ্রহণ করার জন্য ভিড় করছেন।

তাদের আহাজারিতে মর্গের সামনে এক হৃদয়বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa