php glass

বার্লিনে শনিবার বাজার না হলে রোববার উপোস!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ট্যাক্সি থেকে যখন নামলাম, তখন চারদিকে আলো ফুটে গেছে। বৃষ্টিও কিছুটা কমে গেছে। গেস্টহাউজে ঢুকে একটু চমৎকৃত হলাম। বেশ গোছানো - ছিমছাম। এতটা ভাল হবে আশা করিনি। ছোট্ট রুম, একচিলতে বারান্দা, গোছানো রান্নাঘর, টিপটপ বাথরুম, বেশ ভাল।

বার্লিন: ট্যাক্সি থেকে যখন নামলাম, তখন চারদিকে আলো ফুটে গেছে। বৃষ্টিও কিছুটা কমে গেছে। গেস্টহাউজে ঢুকে একটু চমৎকৃত হলাম। বেশ গোছানো - ছিমছাম। এতটা ভাল হবে আশা করিনি। ছোট্ট রুম, একচিলতে বারান্দা, গোছানো রান্নাঘর, টিপটপ বাথরুম, বেশ ভাল।

মুনিয়ার কাছে জানতে পারলাম, এখানে একটু বেশি সময়ের জন্য যারা আসে তারা হোটেলে না উঠে এসব গেস্টহাউজেই থাকে। খরচ কম হয়, আবার নিজের সুবিধামত থাকা যায়। কিছু নিয়ম আছে বটে, তবে হোটেলের মত এত ঘড়িঘন্টা ধরে সবকিছু হয় না।

মুনিয়াকে বিদায় দিয়ে ঝটপট তৈরি হয়ে নিলাম বাইরে খেতে যাব বলে। কিন্তু, বাইরে বের হয়েই বেশ বোকা হয়ে গেলাম। রোববার দেখে সবই বন্ধ। এমনকি আশেপাশে তেমন কোনো রেস্টুরেন্টও পেলাম না। সুতরাং, অভুক্তই থাকতে হল রাত পর্যন্ত। তবে বিকালে পরিচয় হয়ছিল কয়েকজন ইন্দোনেশিয়ান সাংবাদিকের সঙ্গে। তারাই  এ যাত্রা মুশকিল আসান।

তারা বেশ যতœ করেই রাতের খাবার খাওয়াল। পরে তাদের কাছেই জানলাম, এখানে রোববারে সবই বন্ধ থাকে। হাতে গোনা কয়েকটা দোকান খোলা থাকে। শনিবারে বাজার না করলে রোববার না খেয়ে থাকা ছাড়া কোনো গতি নাই।

পরদিন সকালে বের হলাম বাজার করব বলে । এখানে সাধারণত সকাল ৭ টায় সুপার মার্কেটগুলো খোলা হয়। ঠিক রাত ৮টায় সবই বন্ধ হয়ে যায়। কিছু কিছু এলাকায় অবশ্য ব্যতিক্রম।

এখানে আসার আগে ইন্টারনেটে বেশ কয়েকবার বাজার দর জানার চেষ্টা করেছি। লাভ হয়নি। তেমন কোন তথ্য পাইনি। তবে কেনাকাটা করতে গিয়ে বুঝলাম, খাবার জিনিস বেশ সস্তা। ৫০ ইউরোর বাজার করলে একজন দিব্যি একমাস খেতে পারবে। পাঠকের সুবিধার জন্য কিছু প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম (ইউরো/ কেজি প্রতি) লিখে দিলাম:

চাল -২.৪৯,মসুর ডাল- ১.৯৯, দুধ-.৫৬, চিনি-১.২৯, লবন-.১৫, সয়াবিন তেল-১.৪৯, চা- ২.৪৫, কফি-২.৯৯,আলু-২.৪৫, পেঁয়াজ- ১.৫৯, ডিম ১০টা-১.৫৯।

এছাড়া, জুস, চকোলেট, আইসক্রিম ইত্যাদির দাম বেশ কম। হামনসট্রাজা এলাকায় একটি এক-ইউরো শপ আছে। এক ইউরোতে মোটামুটি ভাল কিছু প্রয়োজনীয় দ্রব্য পাওয়া যায়।  
তবে আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে, এখানে ইলেকট্রনিক পণ্য, মোবাইল রিচার্জ কার্ড এবং পোষাকের দাম বেশ চড়া।

কয়েকটি ছোটখাট সুপারমার্কেট ঘুরে কিছু প্রয়োজনীয় কিছু সামগ্রীর দামের ভিত্তিতেই আমার এই ধারণা হয়েছে। তবে, বার্লিন অনেক বড় শহর, এখানে এসব ছোটখাট দোকানের পাশাপাশি রয়েছে বিশাল বিশাল শপিংমল। রয়েছে নানা চোখ ধাঁধান পণ্য। সেসবের কথা আরেকদিন হবে।

 

বার্লিন স্থানীয় সময়: ১২০৬ ঘন্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১১

‘ডি-রেডিকালাইজড’ প্রোগ্রামে গুরুত্বারোপের আহ্বান
বিপিএল কোচ সমাচার-জেমস ফস্টার
ডাকসু ভি‌পি নুরের বিরুদ্ধে মানহা‌নি মামলা
মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে সিলেটে র‌্যালি
মানবাধিকার দলিলে থাকলেও বাস্তবে নেই: ড. কামাল


গেন্ডারিয়ায় চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে দোকান দখলের অভিযোগ
সাবেক এমপিএ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদিরের মৃত্যু
বাগেরহাটে সরকারিভাবে আমন ধান সংগ্রহ শুরু
পল্লীর আলোকায়নে বসছে সড়কবাতি
খালেদা জিয়াকে পছন্দমতো হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার দাবি