php glass

‘আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা’

বিশ্বকাপ ক্রিকেট চলাকালে সাবোটাজের আশঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলাকে বানচাল বা বিঘ্ণ ঘটাতে বিএনপি, জামায়াতসহ জঙ্গিগোষ্ঠী সাবোটাজ করতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওযামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তারা নানা ধরণের নাশকতা চালাতে তৎপর হতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেছেন।

ঢাকা: বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলাকে বানচাল বা বিঘ্ণ ঘটাতে বিএনপি, জামায়াতসহ জঙ্গিগোষ্ঠী সাবোটাজ করতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওযামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তারা নানা ধরণের নাশকতা চালাতে তৎপর হতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার রাতে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় এ আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বলে সুত্র জানায়।

এসময় প্রধানমন্ত্রী কেউ যাতে কোনো নাশকতামুলক তৎপরতা চালাতে না পারে সে ব্যাপারে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।
 
সুত্র আরো জানায়, সভায় দ্রব্যমুল্য নিয়ন্ত্রণে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করেছেন কেন্দ্রƒীয় নেতারা। সেই সঙ্গে শেয়ারবাজারের পতনের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানানো হয়েছে।

বৈঠকে উপস্থিত একজন সদস্য বাংলানিউজকে জানান, সভায় দলের কার্যনির্বাহি কমিটির সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন দ্রব্যমুল্য বৃদ্ধিতে সিন্ডিকেটের কথা বলা হচ্ছে কিন্তু জনগণ এতে সন্তুষ্ট হতে পারছে না। মানুষ এসব কথা বুঝতে চায় না। তারা দাম কম দেখতে চায়।

বিএনপি নেতা মোছাদ্দেক আলী ফালু এবং লুৎফর রহমান বাদল শেয়ার কেলেংকারির সঙ্গে জড়িত বলেও নাসিম অভিযোগ করেন।

ওই সদস্য আরও জানান, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  আরও বলেন, শেয়ারবাজারে পতনের সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক, সে আওয়ামী লীগের লোক হলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। খাদ্যমন্ত্রী কেন সভায় আসেননি, সভায় তার উপস্থিত থাকা উচিত ছিলো বলেও নাসিম মন্তব্য করেন।

বৈঠক সুত্র জানায়, সভায় আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও অর্থমন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আনহ মোস্তফা কামাল (লোটাস কামাল) নেতাদের ক্ষোভের মুখে পড়েন। শেয়ারবাজার নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য রাজনৈতিক বক্তব্য বলে লোটাস কামাল যে মন্তব্য করেছিলেন।

কেন তিনি এ ধরনের মন্তব্য করেছিলেন সেটা জানতে চান মুহাম্মদ নাসিম।

এ ছাড়া বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে ঢাকাকে দৃষ্টিনন্দন করতে ইসলামী ব্যংকের সহযোগিতা এবং ঢাকা ব্যাংকের মাধ্যমে ক্রিকেটের টিকিট বিক্রির কেন করা হলো তা জানতে চান হারুণ অর রশিদ।

এসময় সভায় উপস্থিত অধিকাংশ নেতাই তাদের এ বক্তব্য সমর্থন করে লোটাস কামালের ওপর ুব্ধ হলে লোটাস কামাল ভুল স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলা যাতে সুন্দরভাবে সম্পন্ন করা যায় সে জন্য লোটাস কামালকে সহযোগিতা করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে বিএনপি-জামায়াত এবং জঙ্গি গোষ্ঠী সাবোটাজ করতে পারে, নানা ষড়যন্ত্র করতে পারে সে দিকে সতর্ক থাকতে হবে। এসব নিয়ে এতো কথা লোটাস কামালকে বলার দরকার নেই। এগুলো আমি দেখবো।

বৈঠকে লোটাস কামাল আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রত্যেককে দুইটি করে ক্রিকেটের টিকিট দিয়েছে বলে জানা গেছে।

সভায় পৌরসভা নির্বাচনে বিপর্যয়ের বেশ কিছু কারণ সাংগঠনিক সম্পাদকদের রিপোর্টে উঠে আসে। এর মধ্যে বিদ্রোহী প্রার্থী, কিছু কিছু মন্ত্রী, এমপি, দলের বড় নেতাদের বিতর্কিত ভ’মিকা এবং মহাজোটের শরিকদের ভূমিকা উঠে আসে।

এ নির্বাচনে মৌলভীবাজারে সরকার দলীয় চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ দল সমির্থিত প্রার্র্থী বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছে বলে রিপোটে অভিযোগ করা হয়েছে। এছাড়া দিনাজপুর, ভোলাসহ বিভিন্ন স্থানে মন্ত্রী এমপি ও বড় নেতাদের বিতর্কিত ভূমিকা উঠে আসে।

নির্বাচনে মহাজোটের শরিক দলগুলো আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেনি বলে দেখানো হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে মহাজোটের শরিকদের প্রার্থী থাকায় ফল বিপর্যয় হয়েছে।

সভায় পৌর নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়ে নেতারা এ ব্যাপারে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন। তবে শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি বলে সুত্র জানায়।

সুত্র আরো জানায়, সম্প্রতি ১৪ দলের শরিক নেতারা সরকারের সমালোচনা করে যে সব বক্তব্য দিয়েছেন সেগুলো তারা ঠিক করেনি বলে প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য করেছেন। শেখ হাসিনা বলেছেন, তারা তো আমাদের ওপর ভর করে চলে। তাদের তেমন সাংগঠনিক শক্তি নেই। আমাদের সঙ্গে থেকে এ ধরনের কথা বলা ঠিক হয়নি।

তবে আমরা জোটকে সঙ্গে নিয়েই অগ্রসর হতে চাই। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পক্ষে জনমত সংগঠিত করতে বিভাগীয় পর্যায়ে মহাসমাবেশে করা হবে বলে তিনি সভায় জানিয়েছেন। ১৪ দলকে আরো সক্রিয় করতে তিনি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে নির্দেশ দেন।

এদিকে সভায় চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র মহিউদ্দীন চৌধুরীর বিষয়ে কতঅ উঠলে শেখ হাসিনা বলেন, বিষয়টি আমি দেখবো। মহিউদ্দীন মহিউদ্দীনই। দলের বিপদের সময় তাকে পাওয়া যায়।


বাংলাদেশ সময়: ০২২০ঘন্টা, ফেব্রুয়ারি ১৩ , ২০১১

মায়ের ওপর অভিমান, রাজধানীতে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
নোয়াখালীতে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে প্রাণ গেলো দু’জনের
প্রণব মুখার্জি-খান আতার জন্ম
খালেদার মুক্তির জন্য স্বেচ্ছায় কারাভোগে রাজি ফেনী বিএনপি
‘মাথাপিছু আয় ৬০০০ ডলারের আগেই সবার কাছে গাড়ি থাকবে’


দলের জন্য সবটুকু অভিজ্ঞতা ঢেলে দেবেন গিবস
কর দিতে হয়রানি হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা: অর্থমন্ত্রী
মিয়ানমারে গণহত্যার বিচার শুরু, সন্তুষ্ট রোহিঙ্গারা
বিশ্বসভ্যতার ইতিহাসই মানবাধিকার অর্জনের ইতিহাস
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নানা আয়োজন সিএমপির