php glass

গোলটেবিল আলোচনা

নিজেদের সঙ্কটের কথা মন্ত্রীদের জানালেন আবাসন ব্যবসায়ীরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

গ্যাস-বিদ্যুৎ নিয়ে নিজেদের ভোগান্তি আর সঙ্কটের কথা মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে তুলে ধরলেন আবাসন ব্যবসায়ীরা। বললেন, সঙ্কটের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ হতে বসেছে।

ঢাকা: গ্যাস-বিদ্যুৎ নিয়ে নিজেদের ভোগান্তি আর সঙ্কটের কথা মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে তুলে ধরলেন আবাসন ব্যবসায়ীরা। বললেন, সঙ্কটের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ হতে বসেছে।

প্রকৌশল, স্থাপত্য ও আবাসন শিল্প সংক্রান্ত পত্রিকা ‘মুক্তআকাশ’ আয়োজিত ‘বিদ্যুৎ এবং গ্যাস সংকটে আবাসন শিল্প:সম্ভাব্য করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তারা এ কথা বলেন।

প্ল্যানার্স টাওয়ার অডিটরিয়ামে এ গোলটেবিলের প্রধান অতিথি ছিলেন আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অব. এনামুল হক।

আহসানউল্লাহ্ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য ড. অধ্যাপক আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন রিহ্যাবের সাবেক সভাপতি প্রকৌশলী মো. আব্দুল আউয়াল।

তিনি বলেন, বিদ্যুৎ ও গ্যাসের সংকটের কারণে আবাসন ব্যবসায়ীরা পাঁচ হাজার ফ্যাট ডেলিভারি দিতে পারছেন না বলে যে বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে আদতে এ সংখ্যা আরো বেশি।

তিনি আরো বলেন, দেশে বর্তমানে রিহ্যাবের সদস্য সংখ্যা ৯০০। সে হিসেবে রেডি ফ্যাটের সংখ্যা ১০ হাজারেরও বেশি।

আব্দুল আউয়াল পরিসংখ্যান দিয়ে বলেন, প্রতিটি ফ্যাটের দাম ৭৫ লাখ টাকা হলেও এ ১০ হাজার ফ্যাটের দাম সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা। যা থেকে ১২ ভাগ সুদ হিসেবে বছরে সাড়ে ৪শ কোটি টাকা সুদ গুনতে হচ্ছে। অন্যদিকে সময়মত ফ্যাট বুঝে না পেয়ে ক্রেতারা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করছেন। ফলে ৯০ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ এখন চরম ঝুঁকিতে আছে।

বাংলাদেশ প্ল্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আবাসন ক্ষেত্রে গ্যাস-বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া বন্ধের ঘোষণা ছিল সম্পূর্ণ অবৈধ এবং বে-আইনি।’

তিনি বলেন, ‘বাসা-বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দিলে দেশে সর্বচ্চ ২০ থেকে ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ লাগবে এতে পরিস্থিতি খুব একটা খারাপ হবে না। বরং এ শিল্পের সঙ্গে জড়িত অন্য শিল্পসহ লাখ লাখ শ্রমিক বেকার হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পাবে।’

আলোচনায় অংশ নিয়ে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হোসেন মনসুর বলেন, ‘এ খাতের সমস্যা সমাধানে আবাসন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠকে বসা হবে।’

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান এস এম আলমগীর কবির বলেন, ‘দেশের মোট বিদ্যুতের ২ হাজার মেগাওয়াট খরচ হয় কুলিংলোডের কারণে। বিত্তবানদের বিষয়টি মনে রাখতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী এনামুল হক বলেন, ‘এ খাতের সংকট সমাধানের জন্য জ্বালানি ব্যবহারে আমাদের সচেতন হতে হবে, অপচয় দূর করতে হবে।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আবাসন ব্যবসায়ীদের মনে রাখতে হবে ভবন নির্মাণের নকশা যেনো আলো-বাতাস বান্ধব হয়।’

এ ক্ষেত্রে তিনি দিনের আলো ব্যবহারের ওপর জোর দিয়ে বলেন, ‘আমাদের গ্রামের দরিদ্র কৃষকের কথা ভাবতে হবে। এছাড়া শিল্প-কারখানার দিকেও তাকাতে হবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘মুক্তআকাশ’ সম্পাদক শামসুল আলম, প্রকৌশলী সিরাজুল মজিদ মামুন, কাজি গোলাম মওলা, আ ন ম খায়রুল বাসার প্রমুখ।

স্থানীয় সময়: ১৬৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৯, ২০১১

বকশীগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ব্যবসায়ীর মৃত্যু
প্রতিবন্ধী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান করতে লাগবে ৭৫ জন শিক্ষার্থী
ঘোলা পানিতে মাছ শিকারিদের সতর্ক করলেন চেয়ারম্যান কালাম
মানিকগঞ্জে তৈরি পোশাকের শো-রুম মালিককে জরিমানা
মিলনের সঙ্গে প্রথমবার জুটি বাঁধলেন তানহা


১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার আসামি একদিনের রিমান্ডে
সিলেট নগরে মিললো ৬ বিষধর সাপ
কমলাপুরে ট্রেনের বগিতে মিললো মাদ্রাসাছাত্রীর মরদেহ
ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যায় নিম্নগতি: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর
কোহলির ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন স্মিথ