php glass

সন্ত্রাসীদের হাতে চিকিৎসক আহত: রমেক হাসপাতালে ইন্টার্ন ধর্মঘট

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

সন্ত্রাসীদের হাতে এক ইন্টার্ন চিকিৎসক আহত হওয়ার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি শুরু করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে কর্মরত ইন্টার্ন চিকিৎসকরা।

রংপুর: সন্ত্রাসীদের হাতে এক ইন্টার্ন চিকিৎসক আহত হওয়ার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি শুরু করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে কর্মরত ইন্টার্ন চিকিৎসকরা।

শুক্রবারের ওই ঘটনার জের ধরে শনিবার বেলা ১১টা থেকে এ ধর্মঘট শুরু হয়।

রমেক হাসপাতাল ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি এবিএম মনিরুজ্জামান মিলন বাংলানিউজকে জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে মুক্তা হোস্টেল থেকে কুতুবুদ্দিন নামে এক ইন্টার্ন চিকিৎসককে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা।

বর্তমানে তিনি রমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ডা. রাকিবুল সালেহীন জানান, সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার আর ক্যাম্পাসে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন না করা পর্যন্ত তাদের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।  

এদিকে খোঁজ নিয়ে দেখা যায় হাসপাতালে চিকিৎসা কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। তবে কর্মরত চিকিৎসক ও কর্মচারীরা জানান, ইন্টার্নদের ধর্মঘটের ফলে চিকিৎসা কর্মকাণ্ড পরিচালনায় কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করলে হাসপাতালের পরিচালক ডা. সিদ্দিকুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, সমস্যা দ্রুত সমাধানের চেষ্টা চলছে।


এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসক বাংলনিউজকে জানান, চিকিৎসকদের দু’টি পরে কোন্দলের কারণে রমেক হাসাপাতালে প্রায়ই এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। সন্ত্রাসীরা চিকিৎসকদের মারধর করে আর চিকিৎসকরা ধর্মঘট করেন যার ফল ভোগ করতে হয় সাধারণ রোগীদের।

তিনি অভিযোগ করেন, রমেক ক্যাম্পাসে পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনের দাবি অনেক পুরনো। কিন্তু আজ পর্যন্ত তা করা হয়নি।


বাংলাদেশ সময়: ১২২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৯, ২০১১

বনায়নের নামে শতবর্ষী গাছ কাটার পাঁয়তারা!
আট লাখ ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৪ মাদকব্যবসায়ী
কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ 
নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে কলকাতায় পালন হবে বিজয় দিবস
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বরিশালে ছাত্রদলের মশাল মিছিল


রিয়াদে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস পালিত
১৩ ডিসেম্বর বগুড়া হানাদারমুক্ত দিবস
ঝালকাঠিতে দুই আওয়ামী লীগ নেতার সমর্থকদের সংঘর্ষ
মানিকগঞ্জ হানাদার মুক্ত হয় ১৩ ডিসেম্বর
পাহাড়ে শান্তি চুক্তি হলেও বন্ধ হয়নি অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানি