কুড়িগ্রামের ব্যতিক্রমী আয়োজন দেনমোহর মেলা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

নারী নির্যাতন, যৌতুক, যৌন হয়রানি এরকম নানান প্রতিবন্ধকতার বেড়াজালে নারী যখন আবদ্ধ। তখনই নারী অধিকারের ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়ে বুধবার কুড়িগ্রামে আয়োজন কার হলো ব্যতিক্রমধর্মী ‘দেনমোহর পরিশোধ মেলা।’

কুড়িগ্রাম: নারী নির্যাতন, যৌতুক, যৌন হয়রানি এরকম নানান প্রতিবন্ধকতার বেড়াজালে নারী যখন আবদ্ধ। তখনই নারী অধিকারের ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়ে বুধবার কুড়িগ্রামে আয়োজন কার হলো ব্যতিক্রমধর্মী ‘দেনমোহর পরিশোধ মেলা।’

জীবনের শেষ সায়াহেৃ এসে দাঁড়িয়েছে আব্দুল জব্বার (৯৫) ও সরিষা বালা (৭০) দম্পতি। উলিপুর উপজেলার বজরা ইউনিয়নের হাজীরহাট এলাকার ওই দম্পতি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন প্রায় ৫৮ বছর আগে ১৯৫২ সালে। সেই সময় তাদের বিয়ে হয় ১৫১ টাকা দেনমোহরানায়। এই মেলায় এসেছিলেন ওই টাকা পরিশোধ করতে।

নারী নির্যাতন ও যৌতুক প্রতিরোধ এবং নারীর মতায়নের লক্ষ্যে সমাজে তাদের দেনমোহর প্রাপ্তি নিশ্চিত ও সামাজিকভাবে নারীর প্রতি বৈষম্য দূর করে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় আয়োজন করা হয় এ মেলার।

উলিপুর মহারাণী স্বর্ণময়ী স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে দিনব্যাপী উদ্বুদ্ধকরণ মেলায় এরকম অনেক দম্পতি তাদের স্ত্রীর দেনমোহর পরিশোধ করেন।

মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় দেনমোহর পরিশোধ মেলার এ আয়োজন করে স্থানীয় এনজিও মহিদেব যুব সমাজ কল্যান সমিতি (এমজেএসকেএস)।

এমজেএসকেএসর পরিচালক শ্যামল চন্দ্র সরকার জানান, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় পারিবারিক নির্যাতন হ্রাসে স্থায়ীত্বশীল কাঠামো গঠন প্রকল্পের আওতায় উলিপুর উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে উদ্ভূদ্ধকরণ কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়। ৩ বছর ব্যাপি এ কর্মসূচির মাধ্যমে ৫৪৮জন দম্পতিকে উদ্বুদ্ধ করা হয়। পরিবারগুলোকে সকল ধরণের নির্যাতন মুক্ত করার অঙ্গীকারে এরই অংশ হিসেবে তাদের স্বামীরা দেনমোহরানার টাকা পরিশোধের সিদ্ধান্ত নেয়।

এ মেলায়, ৫৪৮ জন দম্পতির স্বামীরা নিজ নিজ স্ত্রীর হাতে দেনমোহরের টাকা বুঝিয়ে দেন। কেউ কেউ তাদের স্ত্রীর নামে দেনমোহর বাবদ জমি লিখে দেন। কেউ দেন মূল্যবান সম্পদ। সব মিলিয়ে ৫৪৮ জন স্ত্রীর ৩ কোটি ১৭ লাখ ৯ হাজার ৯৪ টাকা দেনমোহরানা পরিশোধ করা হয়।
বিয়ের দীর্ঘদিন পর স্ত্রীরা তাদের অধিকার বুঝে পেয়ে খুশিতে আত্মহারা। দেনমোহরের এ টাকা স্বাধীনভাবে সংসারের কাজে লাগানোর প্রত্যাশা জানালেন তারা।

মেলা উপলক্ষ্যে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হক। প্রধান অতিথি ছিলেন, উলিপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম কফিল উদ্দিন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র হায়দার আলী, অধ্য আহসান হাবীব রানা, এমজেএসকেএস এর পরিচালক শ্যামল চন্দ্র সরকার, সমাজকর্মী আব্দুল মজিদ হাড়ি, সাংবাদিক মোন্নাফ আলী, রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০১১

সেই নারীর খোঁজে হাসপাতালে স্বামী
প্রচারণার জোয়ার ভোটের বাক্সেও দেখতে চান মেনন
আমার কোনো গ্রুপ নেই, চবি ছাত্রলীগ নিয়ে নওফেল
দারুণ দুর্দশায় মাইলি সাইরাস
মোদী ঢাকায় আসছেন ১৭ মার্চ


ঢাকার ভোট পর্যবেক্ষণে থাকছেন ৬৭ বিদেশি পর্যবেক্ষক
করোনাভাইরাস আতঙ্ক প্রভাব ফেলেছে চীনের ক্রীড়াঙ্গনেও
জেরুজালেম বিক্রির জন্য নয়: আব্বাস
স্ত্রী-কন্যাসহ ভোটের প্রচারণায় আতিক
বান্দরবানে ফের ধ্বংস নিষিদ্ধ পপি ক্ষেত, আটক ১