php glass

গুলশানে জোড়া খুন: সাক্ষ্য দিলেন বীথি

‘রুবেল প্রথমে বাবার মাথায়,পরে আম্মুর মাথায় গুলি করে।’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

রাজধানীর গুলশানে জোড়া খুনের মামলায় আদালতে সাক্ষ্য দিলেন নিহতের মেয়ে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সুমাইয়া ইয়াসমিন বীথি।

ঢাকা: রাজধানীর গুলশানে জোড়া খুনের মামলায় আদালতে সাক্ষ্য দিলেন নিহতের মেয়ে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সুমাইয়া ইয়াসমিন বীথি।

বৃহস্পতিবার ঢাকার তিন নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত হয়ে তিনি এ সাক্ষ্য দেন।

সাক্ষ্য দিতে গিয়ে বীথি আদালতে ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদতে থাকায় সাক্ষ্য নেওয়া বার বার বিঘ্নিত হয়। এমন অবস্থায় আদালতের পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। সাক্ষ্য নিতে গিয়ে বীথির সঙ্গে কেঁদেছেন আদালতের বিশেষ সরকারি কৌশুলী মো. মাহবুবুর রহমানও।

বীথি বলেন, ‘২৪ মার্চ সকালে রুবেল ও মিথুন আমাদের বাসার কলিংবেল টিপলে মা দরজা খুলে দেন। আমি ড্রইংরুমে ছিলাম। রুবেল আমাকে বলে তোমার বাবাকে ডাক।

আমি বাবাকে ডেকে দিই, মাও সঙ্গে আসেন। তারপর রুবেল আমার বাবাকে বলে,

আপনার মেয়ে ইতিকে আমার সঙ্গে  দিয়ে দেন। আমি ইতিকে বিয়ে করবো। এ কথা বলে রুবেল ভিতরের রুমের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে বাবা রুবেলকে বলেন, কোথায় যাও, পাগলামি করো না। তখন রুবেল বাবার মাথায় গুলি করে। তখন মা চিৎকার করে- ‘এই তুমি কী করলা’ বলে সোফা থেকে উঠতে চাইলে মিথুন আমার মাকে ধরে রাখে। সঙ্গে সঙ্গে রুবেল আম্মুর মাথায়ও গুলি করে।’

বিচারক কানিজ আক্তার নাসরিনা খানম সাক্ষ্য গ্রহণ মুলতবি করে আগামী ৪ জানুয়ারী সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করেন।
গত ৪ অক্টোবর ঢাকার মহানগর প্রথম অতিরিক্ত দায়রা জজ মোহাম্মদ হারুনার রশিদ এ মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। আসামিরা হলেন- রুবেল, মিথুন, আলতাফ হোসেন ও মহিউদ্দিন আহাদ। রুবেল ও মিথুন কারাগারে আটক আছেন। আলতাফ ও মহিউদ্দিন জামিনে আছেন।


মামলার এজাহারে জানা যায়, গুলশানের কালাচাঁদপুরের জিপি-ক ৫৪/৪ নং ৬ তলা বিল্ডিংয়ের দ্বিতীয় তলার ফ্যাটে বাস করতেন নিহত ছাদিকুর রহমান, তার স্ত্রী রোমানা নার্গিস, মেয়ে ইতি ও বিথী। ওই ফ্যাটেই গত ২৪ মার্চ সকালে মেয়ে ইতির বন্ধু রুবেলের পিস্তলের গুলিতে খুন হন ছাদিকুর রহমান ও তার স্ত্রী রোমানা নার্গিস।


ওই দিনই নিহতের বেয়াই আবুল হোসেন বাদী হয়ে গুলশান থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক শাহানুর খান গত ৩০ মে রুবেল, মিথুন, আলতাফ হোসেন ও মহিউদ্দিন আহাদকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট প্রদান করেন।


রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন বিশেষ সরকারী কৌশুলী অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুর রহমান।

বাংলাদেশ সময় : ২০০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বও ৩০, ২০১০

পেঁয়াজ ছাড়া রান্না হলে, আ’লীগ ছাড়াও দেশ চলবে: রাঙ্গা
‘তথ্য বিভ্রাট ও গোপন করাই দুর্নীতির কারণ ও উন্নয়নে বাধা’
ডাকসু নেতাদের কর্মকাণ্ড ভালো লাগে না: রাষ্ট্রপতি
‘অজয় রায় আমাদের জন্য পথ তৈরি করেছিলেন’
জাতীয় কৃষক পার্টির সভাপতি সাহিদুর, সম্পাদক লিয়াকত 


বিডিওয়াইইএ’র বার্ষিক সাধারণ সভা
৮ হাজার ইয়াবাসহ দুইজন গ্রেফতার
শাজাহান খানের বক্তব্যে সরকার বিপদে পড়বে না: কাদের
লঙ্কানদের হারিয়ে সৌম্য-শান্তদের স্বর্ণ জয়
গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর ডিজিটাল সেবায় জিপি-সৃজনী-ফেরাটম গ্রুপ