php glass

ওএমএস’র বরাদ্দ অপ্রতুল, ক্রেতারা হতাশ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

খোলা বাজারে স্বল্পমূল্যে বিতরণের চাল নিয়ে ক্রমেই ক্রেতাদের মধ্যে বাড়ছে হতাশা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না চাল। ফলে খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে না পাওয়ার কষ্ট নিয়ে।

ঢাকা: খোলা বাজারে স্বল্পমূল্যে বিতরণের চাল নিয়ে ক্রমেই ক্রেতাদের মধ্যে বাড়ছে হতাশা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না চাল। ফলে খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে না পাওয়ার কষ্ট নিয়ে।

ডিলাররা বলছেন, চাহিদার তুলনায় কম বরাদ্দ দেওয়ায় এই সংকট সৃষ্টি হচ্ছে।

তেজকুনি পাড়ার কাব ঘরের সামনে আমেনা খাতুন (৭৫) দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত দুই ঘণ্টা লাইন দিয়ে যখন শুনতে পেলেন যে আজ আর চাল নেই, তখন দুঃখে তার গলা ধরে আসছিলো।

তিনি কষ্টের কথা জানালেন এভাবে, ‘কাল শুক্রবার ট্রাক আসার কোন সম্ভাবনাই নেই। এ দু’দিন বাসায় ভাত রান্না হবে না।’

আমেনা ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নকর্মী।

ওই স্পটে ওএমএস’র চাল বিক্রি করছিলেন স্বর্ণা জেনারেল স্টোরের কর্মচারী মো. রুহুল আমিন।

তিনি বলেন, ‘একেক জন ডিলারকে প্রতিদিন বিক্রির জন্য তিন হাজার কেজি চাল দেওয়া হয়। আমরা একেকজন ব্যক্তির কাছে সর্বোচ্চ পাঁচ কেজি পর্যন্ত চাল বিক্রি করি। স্বল্প বরাদ্দের কারণে প্রতিদিনই দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়েও চাল পান না অনেক মানুষ। কখনো কখনো এ কারণে স্থানীয়দের তোপের মুখেও পড়তে হয়।’

বর্তমানে গুদাম থেকে ডিলারদের এ চাল কিনতে হয় ২২ টাকা ৫০ পয়সা মূল্যে যা সর্বোচ্চ ২৪ টাকা কেজি দরে বিক্রির নির্দেশ দেওয়া থাকে সরকারি বিলি আদেশে (ডিও)।

আগামী সপ্তাহ থেকে এ চালের মূল্য আরো বেড়ে যেতে পারে বলে জানা গেছে।

রুহুল আমিন বলেন, ‘মূল্য পরিশোধের পর মূলত ট্রাকের ভাড়া, শ্রমিকদের পাওনা ও গোডাউনে দেওয়া ঘুষ-বখশিস মেটানোর পর খুব বেশি লাভ থাকে না। যদি সরকার চালের বরাদ্দ নূন্যতম একে হাজার কেজিও বাড়াতো তাহলে ডিলারদের পাশাপাশি ভোক্তারাও অত্যন্ত লাভবান হতো।’

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১০

রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বাংলাদেশের জন্ম
দম ফেলার ফুসরত নেই সাভারের ফুল বিক্রেতাদের
১৬ ডিসেম্বর বাঙালির ইতিহাসে সর্বোচ্চ অর্জনের দিন
জাপার ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা
ফ্যান কারখানায় নিহত প্রত্যেকের পরিবার পাচ্ছে ৫০ হাজার টাকা


ইবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি আখতার, সম্পাদক মোস্তাফিজ
এক হাজারের বেশি নারীর প্রোলেপস সারিয়েছেন ডা. শিরীন
ইউনাইটেডকে বাঁচালেন গ্রিনউড
বুড়িগঙ্গা দূষণমুক্ত করতে বিআইডব্লিউটিএর অভিযান
সিএমপির প্রতিটি থানায় হবে মুক্তিযোদ্ধা কর্নার