php glass

মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে অবাঞ্জিত ঘোষণার দাবি তেল-গ্যাস রক্ষা জাতীয় কমিটির

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেমস এফ মরিয়ার্টিকে অবাঞ্জিত ঘোষণা ও জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক এলাহীকে অপসারণ করাসহ সাত দফা দাবি জানিয়েছে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ, বিদ্যুৎ ও বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি।

ঢাকা: মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেমস এফ মরিয়ার্টিকে অবাঞ্জিত ঘোষণা ও জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক এলাহীকে অপসারণ করাসহ সাত দফা দাবি জানিয়েছে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ, বিদ্যুৎ ও বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি।

রাজধানীর মুক্তি ভবনে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের জ্বালানি সম্পদ নিয়ে মার্কিন দূতাবাসের চাপ ও অপতৎপরতার প্রতিবাদে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

অন্যান্য দাবির মধ্যে রয়েছে জাতীয় সম্পদের ওপর শতভাগ মালিকানা, উন্মুক্ত খনন ও রপ্তানি নিষিদ্ধকরণ।

কমিটির সদস্য সচিব আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘সম্প্রতি উইকিলিকসে ফাঁস হওয়া তথ্য থেকে আমরা জানতে পেরেছি, বাংলাদেশের জ্বালানি মন্ত্রণালয় কার্যত পরিচালিত হয় কিছু বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থে। আর তাদের অন্যতম ‘লবিস্ট’ হিসেবে কাজ করে মর্কিন দূতাবাস।

আনু মুহাম্মদ বলেন, জনগণ ও জাতীয় স্বার্থের বিবেচনায় মর্কিন রাষ্ট্রদূতের বিধিবহির্ভূত হস্তক্ষেপ ও চাপের প্রতিবাদ করে আমরা এদেশে তার উপস্থিতি অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি। এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলের অপসারণ ও বিচার দাবি করছি।

তিনি আরও  বলেন, গ্যাস সংকট সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সরকার একদিকে সমুদ্রের গ্যাস চুক্তির কথা প্রচার করছে, অন্যদিকে শতকরা ৮০ ভাগ রপ্তানির বিধান রেখে গ্যাস ব্লক তুলে দিচ্ছে মার্কিন কোম্পানির হাতে।

আনু মুহাম্মদ বলেন, আমরা এরই মধ্যে উইকিলিকসে প্রকাশিত তথ্যের মাধ্যমে নিশ্চিত হতে পেরেছি,  ‘এশিয়া এনার্জি, ,কনোকো ফিলিপসসহ বিভিন্ন বিদেশি কোম্পানির হাতে আমাদের মূল্যবান খনিজ সম্পদ তুলে দিতে এদেশের সরকারকে চাপ প্রয়োগ করছে মার্কিন দূতাবাস। আর এদের সহযোগিতা করে আসছে জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক এলাহীর মত এদেশেরই কিছু দোসর যারা ’৭১ এর যুদ্ধাপরাধীদের মতো আধুনিক জ্বালানি-অপরাধী।’

সংবাদ সম্মেলনে তিনি অতি শিগগির মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে অপসারণ ও বিতাড়িত করা এবং তৌফিক -ই-এলাহীর অপসারণ ও তার উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

এছাড়া কমিটির উদ্যোগে জাতীয় সম্পদের ওপর শতভাগ মালিকানা প্রতিষ্ঠা, উন্মুক্ত খনন ও রপ্তানি নিষিদ্ধকরণ সরকারের জ্বালানি চুক্তি বিষয়ক সকল অস্বচ্ছতা ও গোপনীয়তা দূর করা, দূর্নীতি ও অনিয়মকে বৈধ করার আইন (২৬ সেপ্টম্বর ২০১০) বাতিলসহ জাতীয় কমিটির সাত দফা দাবির বাস্তবায়নের দাবিতে আগামী ৫ জানুয়ারি দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠান এবং একই মাসের ১০ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত বিভাগীয় সদরে সমাবেশ করার ঘোষণা দেন।

সাংবাদিক সম্মেলেনে আরও উপস্থিত ছিলেন কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, সদস্য সৈয়দ আবুল মকসুদ, রহিম হোসেন প্রিন্স প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১০

জয়ের জন্য রংপুরের টার্গেট ১৭৪
নাগরিকত্ব বিল প্রত্যাহার চান অরুন্ধতীসহ বিশিষ্টজনরা
তারকাদের ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন তথ্য সচিব
‘অজয় রায় আমাদের জন্য লাইট হাউস’
বিপিএলের পারিশ্রমিক নিয়ে মুখ খুললেন মুশফিক


উল্লাপাড়ায় ট্রাকচাপায় স্কুলছাত্রের মৃত্যু
মাদককে দেশ ছাড়া করবো: আইজিপি
চট্টগ্রামের এক মামলায় শামসুজ্জামান দুদুর জামিন
জাতীয় দলে ভালো খেলতে ‘স্বাধীনতা’ প্রয়োজন: ইমরুল
বিটিসিএলের সব স্কুলের প্রাথমিক শাখা হবে ডিজিটাল