php glass

ওকালতনামা সঠিক নয় বলে শুনানি হয়নি, সাকার হাজিরা ১৭ জানুয়ারি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

১৯৭১ সালে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের হাজির করা হলেও ওকালতনামা সঠিক না থাকায় এ সংক্রান্ত মামলার শুনানি হয়নি। সাকা চৌধুরীকে ১৭ জানুয়ারি হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা: ১৯৭১ সালে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের হাজির করা হলেও ওকালতনামা সঠিক না থাকায় এ সংক্রান্ত মামলার শুনানি হয়নি। সাকা চৌধুরীকে ১৭ জানুয়ারি হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ট্রাইব্যুনালের প্রধান নিজামুল হক নাসিমের নেতৃত্বে  সকাল সাড়ে ১০টায় আদালত বসে।

শুরুতেই সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী কথা বলতে চাইলে বিচারপতি নিজামুল হক বলেন, ‘নট নাউ’।

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এসময় দাবি করেন, তার কোনো আইনজীবী নেই। কিন্তু আদালত জানায় তার আইনজীবী আছেন।

বিচারপতি নিজামুল হক বলেন, এজলাসে এর আগে অন্য কোনো আসামিকেই কথা বলতে দেওয়া হয়নি, তাকে কথা বলতে দিলে সেটি অন্যায় হবে।

তবে এর মধ্যেও তার ওপর নির্যাতন চালানো হচ্ছে বলে জানিয়ে এজলাসে কথা বলার চেষ্টা করেন সাকা চৌধুরী।

বিচারপতি এসময় বলেন, ‘মি. চৌধুরী আপনি থামুন দেখুন আমরা কি নির্দেশ দিই।’

পরে ট্রাইব্যুনাল সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ওকালতনামা তৈরি করার জন্য তার আইনজীবীদের কারাগারে সব ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। ১৭ জানুয়ারি পরবর্তী শুনানির তারিখ ঘোষণা করে আদালত শেষ করেন।
 
আদালত শেষ হওয়ার পর সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী স্বভাবসূলভ ভঙ্গিতে বাগাড়ম্বর শুরু করেন। তিনি বলেন, ‘ডিজিএফআই ও র‌্যাব সদস্যরা আমাকে নির্যাতন করেছে। তাদের ডাকুন। আমাকে কোনো আইনগত সুবিধা দেওয়া হয়নি। এ সরকারের আইনগত বৈধতা নেই। ৩২ বছর ধরে আইন প্রণয়ন করছি। নিজেই নিজের মৌলিক অধিকার রক্ষা করতে পারছি না। পুলিশ কাস্টডিতে অনেক নির্যাতন হয়েছে। ডিজিএফআই’র নিয়ন্ত্রণেই তা হয়েছে। প্রয়োজনে এই বিচার পল্টনে বা কারওয়ানবাজারে হবে। ’

‘প্রয়োজনে ৫ হাজার আইনজীবী নিয়োগ দেবো... কেউ ঠেকাতে পারবে না। ক্যাঙারু কোর্ট আমি সংসদ ভবনেও দেখেছি ’ এমন সব কথা চিৎকার দিয়ে দিয়ে বলতে থাকেন তিনি।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেল কারাগার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল আটটা পাঁচ মিনিটে  ট্রাইব্যুনালে আনা হয় সাকা চৌধুরীকে। এসময় ট্রাইবুনাল ভবনের নিচতলায় অবস্থিত হাজত খানায় রাখা হয় তাকে।

আদালতে আগেই উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমসহ আরও আইন কর্মকর্তারা। এই প্রথম আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালে আসেন দেশের প্রধান আইন কর্মকর্তা।

সাকা চৌধুরীর  বিরুদ্ধে গত ১৫ ডিসেম্বর মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে গেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। কিন্তু তার পরদিন ১৬ ডিসেম্বর অন্য মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

১৭ ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে কাস্টডিয়াল ওয়ারেন্ট জারি করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল। সেদিন সাকা চৌধুরীকে আজকের তারিখে আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর হজিরা উপলক্ষে পুরো হাইকোর্ট এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

রমনা জোনের ডিসি কৃষ্ণপদ রায় বাংলানিউজকে জানান, ‘রুটিন নিরাপত্তার বাইরে শুধুমাত্র আজকের জন্য বিভিন্ন বাহিনীর  অতিরিক্ত প্রায় ২০০ সদস্যকে নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত রাখা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘শুধু হাইকোর্ট চত্বরে নয়, ওদিকে দোয়েল চত্বর থেকে কার্জন হল পর্যন্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।’

বুধবারই সাকা চৌধুরীর আইনজীবী  গোলাম মোঃ চৌধুরী আলম বাংলানিউজকে জানান, ‘ তারা আজকের শুনানিতে অংশ নেওয়ার জন্য পুরোপুরি পস্তুত আছেন।’ তিনিসহ সাকা চৌধুরীর আইনজীবী নিতাই রায় চেীধুরী এবং ব্যারিস্টার ফখরুল ইসলামও উপস্থিত হন যথা সময়ে।

ট্রাইবুনালের চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপুসহ অন্য প্রসিকিউটররা ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও ছিলেন সাকা চৌধুরীর স্ত্রী ফারহাত কাদের চৌধুরী, ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরী ও ফাইয়াজ কাদের চৌধুরী এবং মেয়ে ফারহান কাদের চৌধুরী।

মার্কিন দূতাবাসের সহকারী রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ লুবাইন চৌধুরী মাসুমও আদালতে ছিলেন। লুবাইন চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, ‘ ট্রাইবুনালের কার্যক্রম পরিদর্শনের জন্যই আমি আজ এখানে এসেছি।’

এজলাস বসার আগেই সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরী বাংলানিউজের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ‘এটা একটা ক্যামেরা ট্রায়াল হতে যাচ্ছে। কারণ এখানে রক্তের সম্পর্ক ছাড়া আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এমনকি সব আইনজীবীদেরও আদালতে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।’

আদালতের কড়াকড়ির কারণে কয়েকজন সাংবাদিককেও এজলাসে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ১১১৯ ঘন্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১০

একই কারখানায় ২ বছরে তিন বার আগুন
সু চির অস্বীকার: রোহিঙ্গারা বললেন ‘মিথ্যুক’
সোলায়মানের পদত্যাগ নিয়ে জামায়াতে তোলপাড়
রাজশাহীর মধ্য শহর থেকে বাস টার্মিনাল সরবে আগামী বছর
স্মার্ট রেফ্রিজারেটরের বিজ্ঞাপনে মাশরাফি


নেপিদোতে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সেনাপ্রধানদের বৈঠক
এবার রাজ্যসভায়ও পাস হলো ‘বিতর্কিত’ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল
আগুনের সূত্রপাত ‘গ্যাস রুমে’, নেভাতে গিয়েই দগ্ধ শ্রমিকরা
বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন মেয়র আতিকুল
মেডিক্যাল বোর্ডের রিপোর্ট কোর্টে, শুনানি বৃহস্পতিবার