php glass

রবি কনসার্ট ঘিরে ব্রাহ্মণণবাড়িয়ায় মৌলবাদীদের আস্ফালন, শহরে জঙ্গি মিছিল

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

গত ২১ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিয়াজ মুহাম্মদ স্টেডিয়ামে রবি বিজয় কনসার্টকে কেন্দ্র করে জেলা প্রশাসকের অপসারণের দাবিতে মিছিল করেছে মৌলবাদীরা। একইসঙ্গে মিছিলে অংশ নেওয়া মৌলবাদীরা জঙ্গি স্লোগান দিয়ে তালেবান হওয়ার আস্ফালন দেখিয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: গত ২১ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিয়াজ মুহাম্মদ স্টেডিয়ামে রবি বিজয় কনসার্টকে কেন্দ্র করে জেলা প্রশাসকের অপসারণের দাবিতে মিছিল করেছে মৌলবাদীরা। একইসঙ্গে মিছিলে অংশ নেওয়া মৌলবাদীরা জঙ্গি স্লোগান দিয়ে তালেবান হওয়ার আস্ফালন দেখিয়েছে।

বুধবার বিকেলে কনসার্টের প্রতিবাদ এবং জেলা প্রশাসকের অপসারণ দাবিতে শহরের টেংকের পাড় থেকে কওমী ইসলামী ছাত্র ঐক্য পরিষদের ব্যানারে জেলার বিভিন্ন মাদ্রাসা থেকে লাঠিসোঁটায় সজ্জিত হয়ে আসা কয়েক হাজার মাদ্রাসা ছাত্র শহরে জঙ্গি মিছিল করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিজয় কনসার্ট করার অনুমতি দেওয়া এবং কনসার্টের উদ্বোধন করায় জঙ্গি মিছিল থেকে জেলা প্রশাসকের অপসারণ দাবির পাশাপাশি ‘আমরা হব তালেবান বাংলা হবে আফগান’ স্লোগান দেওয়া হয়।

মাদ্রাসা ছাত্র-শিক্ষক স্বমন্বয়ে জঙ্গি মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে কাউতলীতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যাওয়ার সময় পুলিশি বাধার মুখে কাউতলী মোড়ে গিয়ে অবস্থান নেয়।

এ সময় লাঠিসোঁটা হাতে মাদ্রাসা ছাত্রদের জঙ্গি হুঙ্কারে গোটা শহরের পরিবেশ থমথমে হয়ে পড়ে।

মাদ্রাসা ছাত্ররা কাউতলী মোড়ে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে অবরোধ করে সেখানে প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

প্রতিবাদ সমাবেশে হাফেজ বোরহান উদ্দিনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মুফতি আব্দুর রহিম, হাফেজ মো: ইদ্রিস, মাওলানা শরিফ উদ্দিন আফতাবি, মুফতি এনামুল হাসান, মুফতি জাকারিয়া, মাওলানা আব্দুল হাকিম প্রমুখ।

এ সময় প্রায় এক ঘণ্টা মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। প্রতিবাদ সভায় বক্তারা জেলা প্রশাসকের অপসারন দাবি করেন এবং আগামী ৬ জানুয়ারি মহা সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক আব্দুল মান্নান বাংলানিউজকে বলেন, ‘রবি বিজয় কনসার্টকে কেন্দ্র করে এমনটি হওয়ার কথা নয়। কেননা এটি আমি উদ্বোধন করেছি মাত্র। এটি জেলা প্রশাসনের কোনো অষ্ঠুষ্ঠান নয়।’

তিনি বলেন, ‘আজকে যারা শহরে প্রতিবাদ মিছিল করেছে তাদের অনেকে নাকি সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর মুক্তিও দাবি করেছে এবং ‘আমরা হবো তালেবান বাংলা হবে স্লোগান’ দিয়েছে শুনেছি। তবে ঘটনা যাই হোক, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা বিষয়টিকে গভীর ভাবে পর্যবেণ করছি।’

মৌলবাদীদের মিছিল-সমাবেশ করা বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসি হামিদুল ইসলাম জানান, রবি বিজয় কনসার্টকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এরকম অরাজক পরিস্থিতি হওয়ার কথা নয়। কোনো অপশক্তি হয়তো সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলার জন্য অপতৎপরতা চালাচ্ছে।’

এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করা হবে বলে জানান ওসি।

বাংলাদেশ সময়: ২৩১৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১০

সাকিবের পরিবর্তে বর্ষসেরা স্টোকস, সমালোচিত ভারত আর্মি
বান্দরবানে বেড়েছে শীত, গরম পোশাকের বাজার
নাগরিকত্ব বিল আর এনআরসি একই মুদ্রার দুই পিঠ: মমতা
ফুটবল খেলা বাঙালির রক্তের সঙ্গে মিশে আছে
নানা আয়োজনে যশোরে হানাদারমুক্ত দিবস পালন


বিএনপি আইন-আদালত মানে না: নাসিম
ডিসি হিল সংস্কৃতিচর্চার জন্য উন্মুক্ত করার দাবি
বিশ্বকাপ নয়, আপাতত বিপিএল নিয়েই ভাবছেন সানি
ধরে নিয়ে যাওয়া ২ জেলেকে ফেরত দিলো বিএসএফ
মৌসুমের শুরুতেই ভোলায় জেঁকে বসেছে শীত