php glass

ডাক বিভাগে পরীক্ষামূলক পোস্টাল ক্যাশ কার্ড চালু

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

নগদ টাকা বহনের ঝামেলা থেকে গ্রাহককে বাঁচাতে পোস্টাল ক্যাশ কার্ড ব্যবস্থা চালু করেছে ডাক বিভাগ। এরই মধ্যে ঢাকা ও কুমিল্লায় পরীক্ষমূলকভাবে এ পদ্ধতি শুরু হয়েছে।

ঢাকা: নগদ টাকা বহনের ঝামেলা থেকে গ্রাহককে বাঁচাতে পোস্টাল ক্যাশ কার্ড ব্যবস্থা চালু করেছে ডাক বিভাগ। এরই মধ্যে ঢাকা ও কুমিল্লায় পরীক্ষমূলকভাবে এ পদ্ধতি শুরু হয়েছে। ব্যাংকের এটিএম বুথের আদলে দেশের পোস্ট অফিসগুলোতে বসানো পয়েন্ট অব সেল (পস) মেশিন থেকে এই কার্ডের মাধ্যমে টাকা তোলা যাচ্ছে।

ডাক বিভাগের মহাপরিচালক মোবাশেরুর রহমান এ বিষয়ে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকা ও কুমিল্লায় পোস্টাল ক্যাশ কার্ড চালু হয়েছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষও যাতে এ সুবিধা পায় সেজন্য ভবিষ্যতে সারাদেশে এ কার্ড চালু করা হবে।’

সংশ্লিস্ট কর্মকর্তারা জানান, ঢাকার জিপিও, সদরঘাট, গুলশান, শান্তিনগর, মিরপুর ও বৃহত্তর কুমিল্লা জেলার ২৬টিসহ মোট ৩১টি অফিসে এই কার্ড চালু করা হয়েছে। আগামী অক্টোবরের মধ্যে সারাদেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় অবস্থিত ৬০০ অফিসে এই কার্যক্রম চালু করা হবে।

এছাড়া বিপণী বিতান পর্যায়ে পস মেশিন স্থাপন করে সর্বস্তরে এই সেবা ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে মোবাশশেরুর রহমান জানান।

পোস্টাল ক্যাশ কার্ড ব্যাবহারের জন্য পোস্ট অফিসগুলোতে এ মেশিন থাকবে। পস মেশিন থেকে টাকা তোলার জন্য গ্রাহককে একটি চার সংখ্যার গোপন কোড নাম্বার দেওয়া হবে। গ্রাহক ওই নাম্বার ব্যবহার করে পস মেশিন থেকে টাকা তুলতে পারবেন।

তবে প্রাথমিক পর্যায়ে কোড নম্বরটি থাকছে শুধু পোস্ট মাস্টারের কাছে। কার্ডটি থাকবে গ্রাহকের কাছে। গ্রাহক কার্ড দিলে  গোপন কোড ব্যাবহার করে গ্রাহককে তার চাহিদা মাফিক টাকা তুলে দেবেন পোস্ট মাস্টার। বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে এ কথা জানান মহাপরিচালক মোবাশশেরুর রহমান।

আপাতত এই কার্ড শুধু অফিস সময়ে ব্যবহার করা যাবে বলেও জানান তিনি।

এই পদ্ধতিতে উদ্যোগটি কতটা সফল হবে বলে মনে করছেন জানতে চাইলে মহাপরিচালক বলেন, ‘ব্যাংকগুলোর সঙ্গে চুক্তি করে এই সেবা এটিএম বুথ পর্যায়ে নিয়ে আসার চেষ্টা চলছে। আশা করি তখন এই সমস্যা থাকবে না।’

প্রতিটি কার্ডের দাম ধরা হয়েছে ৩০ টাকা। তবে ১০০ বা তারচে বেশি কার্ড নিলে প্রতিটির দাম ১০ থেকে ১৫ টাকা করা হবে। প্রতিটি কার্ডে ১ টাকা থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা করা যাবে। এজন্য প্রতি শতাংশে ১ টাকা চার্জ দিতে হবে।

এছাড়া পোস্টাল ক্যাশ কার্ডের টাকা প্রয়োজনে অন্য পোস্টাল ক্যাশ কার্ডে জমা করা যাবে। এজন্য প্রতিবার অন্য কার্ডে টাকা জমা করতে ৭টাকা ও তোলার জন্য ৭টাকা চার্জ দিতে হবে। এ কার্যক্রমটি পরিচালনায় সব ধরনের কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে কিউ ক্যাশ গ্রুপ। এজন্য প্রতিটি লেনদেনে তারা ৪ টাকা করে পাবে।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ১১০৫ ঘণ্টা জুলাই ১০, ২০১০

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
সেভিয়ার কাছে লিভারপুলের হার
রাজধানীতে ৫ ডাকাত আটক
ধোবাউড়ায় গণধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি গ্রেফতার
বরিশালে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা


ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বারান্দায় শিশুদের পাঠদান
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
জমতে শুরু করেছে ভাসমান পেয়ারার বাজার
টানা বৃষ্টিতে লোকসানে মরিচ চাষিরা
১১ ঘণ্টায়ও মেলেনি তুরাগে পড়া ট্যাক্সিক্যাব