ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ঢেলে সাজানো হচ্ছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো

শরিফুল ইসলাম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১০৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০১০
ঢেলে সাজানো হচ্ছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো

ঢাকা: ডিজিটাল বাংলাদেশের একটি রূপকল্প ঘোষণা করেছে সরকার। ঘোষিত রূপকল্প বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে সরকার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের নাম পরিবর্তন ও পরিসংখ্যান ব্যুরোকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে।

এখন থেকে পরিসংখ্যান বিভাগ পরিচিত হবে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ নামে।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) একমাত্র সরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের মাধ্যমে সরকারের সব ধরনের তথ্য নিয়ন্ত্রণ ও সরবরাহ করবে। এজন্য প্রয়োজনীয় অর্থ ও জনবল নিয়োগ করা হচ্ছে বলে জানান বিবিএস’র মহাপরিচালক মো. শাহজাহান আলী মোল্লা।

তিনি বলেন, ‘সঠিক ও নির্ভরযোগ্য তথ্য পেতে এবং কার্যক্রমে গতি আনতে বিবিএস’র মান্নোয়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ’

এ সম্পর্কিত একটি প্রস্তাবনা অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ ও সংস্থাপন মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বিবিএস কার্যালয় সূত্র।

এখন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের মাধ্যমে বিবিএস’র কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। কার্যক্রমে গতি আনতে পরিসংখ্যান বিভাগের নাম পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য একজন সচিব ও দু’জন উপসচিবের নেতৃত্বে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। পাশাপাশি প্রতিটি জেলায় উপপরিচালক পদমর্যাদার জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা নিয়োগসহ দেশের প্রতিটি কার্যালয়ে অতিরিক্ত পাঁচজন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ করা হবে।

এরই মধ্যে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সঙ্গে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক কম্পিউটার সরবরাহ করা হয়েছে।

বাড়তি জনবলকে দক্ষভাবে গড়ে তুলতে আধুনিক প্রশিক্ষণ একাডেমি স্থাপনসহ উন্নত প্রযুক্তির ডাটা আরকাইভ ও ডিজিটাল লাইব্রেরি গড়ে তোলা হবে বলেও বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে জানান মহাপরিচালক।


মহাপরিচালক আরও বলেন, ‘সঙ্কট ও সীমাবদ্ধতার মধ্যেও নিয়মিত জনসংখ্যা ও কৃষিশুমারি, শিা, স্বাস্থ্য, শিল্প এবং অর্থনীতির বিভিন্ন জরিপ ও সমীা প্রকাশ করে বিবিএস তার স্বাতন্ত্র্য প্রমাণ করেছে। এ প্রতিষ্ঠানকে পর্যাপ্ত সহায়তা দেওয়া হলে কাজের মানোন্নয়ন ও সময় কমিয়ে আনা সম্ভব হবে। ’

এদিকে, আগামী বছর মার্চে দেশে পঞ্চম জনসংখ্যা-শুমারি ও গৃহ-গণনার কাজ শুরু হবে। এ কাজের সঙ্গে এবার যুক্ত হবে সামগ্রিক নাগরিক ডাটাবেস। এ ডাটাবেসে দেশের প্রত্যেক নাগরিকের বিস্তারিত তথ্য নিবন্ধিত থাকবে। এছাড়া দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে সহজে তথ্য আদান-প্রদানের জন্য বিবিএস’র সার্ভারকে আরও শক্তিশালি করা হচ্ছে বলে জানায় ওই সূত্র।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa