php glass

ক্রস ড্যামের মাধ্যমে ২৮৯ ব. কিমি ভূমি পুনরুদ্ধারের সিদ্ধান্ত

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ভোলার চর মাইনকা, চর ইসলাম ও পটুয়াখালীর চর মন্তাজে ক্রস ড্যাম নির্মাণ করে ২৮৯ বর্গ কিলোমিটার ভূমি পূনরুদ্ধারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ঢাকা: ভোলার চর মাইনকা, চর ইসলাম ও পটুয়াখালীর চর মন্তাজে ক্রস ড্যাম নির্মাণ করে ২৮৯ বর্গ কিলোমিটার ভূমি পূনরুদ্ধারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এতে সরকারের ব্যয় হবে ২৪ কোটি ৩৭ লাখ। জলবায়ু পরিবর্তন তহবিল থেকে এ অর্থ দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সভাকে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক ট্রাস্টি বোর্ডের সপ্তম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পরিবেশ ও বন প্রতিমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সভাপতিত্বে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে গত ৩১ আগস্ট ট্রাস্ট ফান্ডের বৈঠকে নোয়াখালীর উড়ির চরে ক্রস ড্যামের মাধ্যমে ৬০০ বর্গ কিলোমিটার ভূমি পূনরুদ্ধারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশ। আমাদের দেশের একটি বড় অংশ সমুদ্রগর্ভে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ডুবে যাওয়ার ঝুঁকির মধ্যে থেকে আমরা যদি সমুদ্র থেকে ভূমি পুনরুদ্ধার করতে পারি তা হবে আমাদের জন্য বড় সাফল্য।’

এ সময় তিনি জানান, এ প্রকল্পের মাধ্যমে সমুদ্র গর্ভ থেকে নতুন ১০৫ বর্গ কিলোমিটার নতুন ভূমি উদ্ধার ও জেগে ওঠা ভূমির মধ্যে ১৪৪ বর্গ কিলোমিটার ব্যবহার উপযোগী করা হবে।

অন্যান্য প্রকল্প বিষয়ে তিনি বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের তিকর প্রভাব মোকাবেলায় প্রায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে উপকূলীয় এলাকায় বনায়ন প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বন অধিদপ্তর এটি বাস্তবায়ন করবে।’

এছাড়া ‘ফরেস্ট ইনফরমেশন জেনারেশন অ্যান্ড নেটওয়ার্কিং সিস্টেম’ নামে আরও একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘এ প্রকল্পের মাধ্যমে আমরা বনের ডিজিটাল ম্যাপিং প্রস্তুত করবো। এটা করতে পারলে মন্ত্রণালয়ে বসেই বনের খুব ছোট ছোট অংশও পর্যবেক্ষণ করা যাবে।’

এ প্রকল্পে ৮ কোটি ২৭ লাখ ৬৭ হাজার টাকা ব্যয় হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বনে কেউ গাছ কাটলেও মন্ত্রণালয়ে বসেই আমরা স্যাটেলাইটের সহায়তায় তা দেখতে পারব।’

এছাড়া চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী, রাউজান ও হাটহাজারী উপজেলার ওপর দিয়ে প্রবাহিত কর্ণফূলী, ইছামতি ও হালদা নদীর ভাঙনকবলিত এলাকায় প্রতিরা ব্যবস্থা গড়ে তুলতে প্রায় ২০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প মঙ্গলবারের বৈঠকে অনুমোদিত হয়।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইনস্টলেশন অব সোলার পাওয়ার্ড প্ল্যান্ট স্থাপনে ২৩ কোটি ৬ লাখ টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে ট্রাস্টি বোর্ড।

হাছান মাহমুদ জানান, জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট ফান্ডের জন্য ২০০৯-১০ অর্থ বছরে ৭০০ কোটি এবং ২০১০-১১ অর্থ বছরে ৭০০ কোটিসহ মোট ১ হাজার ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এর মধ্যে ৩৪ শতাংশ স্থায়ী আমানত হিসেবে রাখার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

এজন্য ৫৭৯ কোটি ৩৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকা স্থায়ী আমানত বাদ দিয়ে ৮২০ কোটি ৬৬ লাখ ৬৭ হাজার টাকা প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য নির্ধারিত ছিল।

এর মধ্যে এ পর্যন্ত প্রায় ৫০০ কোটি টাকা বিভিন্ন প্রকল্পে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

বৈঠকে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক, খাদ্যমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান, মন্ত্রী পরিষদ সচিব আবদুল আজিজ, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমানসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময় : ১৯০৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০১০

ksrm
মুষ্টিমেয় শিক্ষক আন্দোলনের কলকাঠি নাড়াচ্ছেন
নকলায় বাসচাপায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত
জাতীয় নারী দাবায় শীর্ষস্থানে রানী হামিদ
আন্দোলনের মুখে ইবি প্রক্টরকে অব্যাহতি
ফরিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এনজিও কর্মকর্তা নিহত


বিজয়নগর সায়েম টাওয়ার থেকে আটক ১৭
চট্টগ্রাম বিভাগীয় ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন ছাগলনাইয়া পাইলট
ইয়েমেনের কাছে হেরে গেলো বাংলাদেশের কিশোররা
বৃক্ষরোপণে জীবনমান উন্নত হবে: এমএ মালেক
ঈশ্বরদীতে ছাত্রলীগ নেতা ইয়াবাসহ গ্রেফতার