বাপার দাবি মানেনি বিমান, চার বৈমানিককে শোকজ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ বৈমানিকদের অবসরের বয়সসীমা ৫৭ থেকে ৬২ বছর করার অফিস আদেশ বাতিলের দাবি মেনে নেয়নি। উল্টো আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী চার বৈমানিককে শোকজ করেছে।

php glass

ঢাকা: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ বৈমানিকদের অবসরের বয়সসীমা ৫৭ থেকে ৬২ বছর করার অফিস আদেশ বাতিলের দাবি মেনে নেয়নি। উল্টো আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী চার বৈমানিককে শোকজ করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ডেকে আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা ও বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে বিমান কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ এয়ারলাইন পাইলটস এসোসিয়েশনের (বাপা) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ক্যাপ্টেন জাকির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ক্যাপ্টেন এম বাসিত মাহতাব, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ফার্স্ট অফিসার শাহরিয়ার এম ফারাজি ও ক্যাপ্টেন এ এম মাকসুদ আহমেদকে এই শোকজ নোটিশ দেন।  

বৈমানিকদের আন্দোলনের কারণে তিনদিন ধরে বিমানের ফাইট শিডিউলে বিপর্যয় দেখা দেয়। এ পরিস্থিতিতে রোববার রাতে বিমানের প্রধান কার্যালয় বলাকা ভবনে আন্দোলনরত বৈমানিকদের দাবি দাওয়া নিয়ে পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভা বসে।

সভায় বৈমানিকদের ৫ দফা দাবি নিয়ে আলোচনা হয়। এতে বৈমানিকদের অন্য দাবিগুলো মেনে নেওয়া হলেও এক নম্বর দাবি মেনে নেওয়া হয়নি। সভা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সভায় বিমানের চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল (অব:) জামাল উদ্দিন আহমেদ সভাপতিত্ব করেন।

বাপা ২১ অক্টোবর সংবাদ সম্মেলন করে বৈমানিকদের অবসরে বয়সসীমা ৫৭ থেকে ৬২ বছর করার অফিস আদেশ বাতিল, দ্রুততর সময়ের মধ্যে সব ওয়েট লিজ বাতিল করে ড্রাই লিজে পরিণত করা, বিমানের সাধারণ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ব্যক্তিগত ভাতা সমন্বয়ের মাধ্যমে ইনক্রিমেন্ট বন্ধের ‘নীল নকশা’ বন্ধ করা, চাকরিচ্যুৎ দুই কর্মকর্তাকে অবিলম্বে চাকরিতে পুনর্বহাল করা ও গ্রাউন্ড হ্যান্ডেলিংয়ের মান উন্নত করতে ২৪ ঘন্টার আলটিমেটাম দেয়।

নিয়মানুযায়ী বিমানের বৈমানিককে মাসে ৭০ ঘন্টা ফাইট করতে হয়। আন্দোলন কর্মসূচির অংশ হিসেবে তারা বাপার সাথে চুক্তির বাইরে বাড়তি দায়িত্ব পালন না করার ঘোষণা দেয়। ২২ অক্টোবর থেকে এ কর্মসূচি শুরুর পরপরই বিমানের শিডিউল বিপর্যয় শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, বিমানের ১৬৬ বৈমানিক থাকার কথা থাকলেও বর্তমানে ১১৭ জন বৈমানিক রয়েছেন। এ কারণে প্রায়ই বৈমানিকদের মাসের ৭০ ঘন্টার বেশি ফাইট করতে হয়।

এদিকে, বিমানের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক (প্রশাসন) রাজপতি সরকার স্বাক্ষরিত শোকজের জবাব দেওয়ার জন্য বৈমানিকদের ৯৬ ঘন্টার সময় বেধে দেওয়া হয়। চিঠিতে বলা হয়, তারা বিমানের শ্রম আইন ভঙ্গ করে সংবাদ সম্মেলন করে আইনের পরিপন্থী কাজ করেছেন। এছাড়া বৈমানিকের দাবির বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। বিচারাচাধীন বিষয় নিয়ে কথা বলা আদালত অবমাননার শামিল।

বিমানের সাধারণ সম্পাদক ক্যাপ্টেন মাহতাব বাসিত রাতে বাংলানিউজকে জানান, তিনি বাদে সবাই এ শোকজ নোটিশ হাতে পেয়েছেন।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, রোববার ক্যাপ্টেন মাকসুদের একটি ফাইট ছিল। শোকজ নোটিশ পাওয়ার পর তিনি জানিয়ে দেন এ অবস্থায় তার পক্ষে ফাইট পরিচালনা করা সম্ভব নয়।

এসব কারণে আজও একটি ফাইট বাতিল ও বেশ কয়েকটি ফাইট বিলম্বে ছাড়ে।  

বাংলাদেশ সময় : ২৩০৬ ঘন্টা, অক্টোবর ২৪, ২০১০

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে পণ্য তৈরি, ১২ লাখ টাকা জরিমানা
পলাশবাড়িতে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১
শ্রীমঙ্গল থেকে বিশালাকৃতির ‘শঙ্খিনী’ সাপ উদ্ধার
মহম্মদপুরে আম পাড়া নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫, আটক ৪
নিম্নমানের চাল কেনায় গোডাউন সিলগালা


পাকিস্তানের ভিসা বন্ধ করে দিলো বাংলাদেশ
‘ভোরের পাখি’ বিহারীলালের জন্ম
ছাত্রলীগের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাখ্যান করেছে পদবঞ্চিতরা
‘সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই’
খাদ্যে ভেজাল মিশ্রণকারীদের মৃত্যুদণ্ড দাবি নাসিমের