এনটিভির ভিডিও এডিটর হত্যা মামলা: সাক্ষ্যগ্রহণ ১৬ মার্চ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

এনটিভির ভিডিও এডিটর আতিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যাসহ ছিনতাইয়ের অভিযোগ (চার্জ) গঠন করা হয়েছে। সেইসঙ্গে আগামী ১৬ মার্চ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করা হয়।

php glass

ঢাকা: এনটিভির ভিডিও এডিটর আতিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যাসহ ছিনতাইয়ের অভিযোগ (চার্জ) গঠন করা হয়েছে। সেইসঙ্গে আগামী ১৬ মার্চ মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করা হয়।

বুধবার ঢাকার ২য় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ফজিলা বেগম এ চার্জ গঠন করেন।

আসামিরা হলেন- আব্দুল্লাহ মো. ইবনে আলী সরকার ওরফে নাহিদ, মো. খোকন, মো. শাকিল শিকদার ও ফোরকান।
মো. খোকন ছাড়া অপর তিন আসামি জেল হাজতে আছেন।

আসামিদের পক্ষে জামিনের আবেদন করা হলে বাদীপক্ষে তার বিরোধিতা করেন অ্যাডভোকেট রায়হান মোর্শেদ। শুনানি শেষে আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, এনটিভির ভিডিও এডিটর নিহত আতিকুল ইসলাম প্রতিদিনের মতো গত বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি রাত ৮ টার সময় অফিসের কাজ শেষে করে নিজের মোটর সাইকেলযোগে বাসায় ফিরছিলেন। মগবাজার রেল ক্রসিংয়ের তালতলা গলিতে বাবুলের চায়ের দোকানের সামনে আসলে সন্ত্রাসীরা আতিকুলকে পরপর দু’টি গুলি করে তার মোটর সাইকেল ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়।

এ সময় গুলিবিদ্ধ আতিককে পথচারী জাফর ও টিটু ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে যান। কিন্তু রাত সাড়ে ১০ টায় আতিকের মৃত্যু হয়।

এর পরের দিন নিহতের ভাই আবু বকর সিদ্দিক রমনা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আবুল খায়ের তদন্ত করে গত বছরের ৯ আগস্ট আব্দুল্লাহ মো. ইবনে আলী সরকার ওরফে নাহিদ, মো. খোকন, মো. শাকিল শিকদার ও ফোরকানকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন।

হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে নাহিদ, মো. খোকন ও মো. শাকিল শিকদার ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দি দেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৬, ২০১০

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নিরপেক্ষ ছিল পুলিশ-প্রশাসন
‘যুব সমাজকে জনসম্পদে রূপান্তর করাই বড় চ্যালেঞ্জ’
শ্রীলঙ্কায় শেখ সেলিমের মেয়ে জামাই আহত, নাতি নিখোঁজ 
ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাণ্ডজ্ঞান!
ওয়ার্নার-বেয়ারস্টোর ব্যাটে জয় পেল হায়দ্রাবাদ


নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন
এসআই আমির হামজার বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রমাণ পেল কমিটি
নদীর একইঞ্চি জমিও দখল করতে দেওয়া হবে না
যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় নিরাপত্তা বাহিনী সজাগ
সন্ত্রাসীদের ধর্ম নেই, সবাইকে সোচ্চার হতে হবে