রামগতি পৌরসভায় গোপনে দরপত্র আহ্বান: সিডিউল কেনায় বাধা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

লক্ষ্মীপুর রামগতি পৌরসভায় উন্নয়ন কাজে গোপনে দরপত্র আহ্বানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

php glass

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুর রামগতি পৌরসভায় উন্নয়ন কাজে গোপনে দরপত্র আহ্বানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। 


খবর পেয়ে ঠিকাদাররা সিডিউল কিনতে গেলে পৌর মেয়র তাদেরকে বাধা দেয় এবং পৌরসভা থেকে ফিরিয়ে দেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার শেষ বিকেলে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ ঠিকাদারেরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ইতোমধ্যে লিখিতভাবে অভিযোগ দাখিল করেছেন।

আজ বুধবার দরপত্র খোলা হবে বলে জানান ক্ষুব্ধ ঠিকাদাররা।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ক্ষুব্ধ ঠিকাদাররা লিখিত অভিযোগ পত্রে বলেন, ‘পৌর মেয়র আজাদ উদ্দিন চৌধূরী পৌরসভার আর. সি. সড়ক ও সুফিয়া বাজার সড়ক উন্নয়নের জন্য ১১ লাখ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয় নির্ধারণ করে একটি গোপন দরপত্র আহ্বান করেন। মঙ্গলবার ওই দরপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল।’
 
তারা মেয়রের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রে বলেন, ‘গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দুপুরে ঠিকাদাররা পৌরসভা অফিসে সিডিউল কিনতে গেলে ওই সড়ক ২টির উন্নয়নের জন্য কোনো প্রকার দরপত্র আহ্বান করা হয়নি বলে পৌর মেয়র তাদের কাছে দাবি করেন এবং সিডিউল বিক্রয় না করে তাদেরকে ফিরিয়ে দেন।’  

দরপত্র আহ্বানের কথা স্বীকার করে পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. হুমাযুন কবীর বাংলানিউজকে জানান, ‘পৌর মেয়র আজাদ উদ্দিন চৌধূরীর নির্দেশে ওই দরপত্র প্রচার ও প্রকাশ করা হয়নি।’ দরপত্র প্রচার, প্রকাশ এবং সিডিউল বিক্রয়ের বিষয়টি পৌর মেয়র নিজেই নিয়ন্ত্রণ করেন বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র আজাদউদ্দিন চৌধুরী দরপত্রের সিডিউল ক্রয়ে বাধা দেওয়ার অভিযোগটি অস্বীকার করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. দৌলতুজ্জামান খাঁন ঠিকাদারদের অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৬, ২০১০

বিএনপিকে বাটি চালান দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না
বিএনপি সবকিছুতে সরকারের ছায়া খুঁজছে: আইনমন্ত্রী
দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার পেলেন ক্যালিস
আইএসের সঙ্গে সম্পৃক্ত ১৪০ শ্রীলঙ্কানকে খুঁজছে পুলিশ
ত্রিপুরায় দুই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার


মেলায় ১০০ লিচু ৪০০ টাকা!
রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে জাতিসংঘের প্রতিনিধি দল
এবার বিগ ব্যাশ থেকেও ওয়াটসনের অবসর
৩০ এপ্রিলের মধ্যে বাকিরাও শপথ নেবেন, আশা হানিফের
ভাঙছে নদী-বাঁধ, কাটছে নির্ঘুম রাত!