মুভ অ্যান্ড ফিট

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মুভ অ্যান্ড ফিট

দিনের প্রায় ১০ ঘণ্টা চেয়ারে বসে অফিস করেন শেতা। যাওয়া-আসা করেন গাড়িতে, বাসায় ফিরেও টিভি দেখা, খাওয়া, ঘুম। এর বাইরে খুব একটা শারীরিক পরিশ্রম হয় না। 

এভাবে বেশ কয়েক বছর যাওয়ার পর দেখা গেলো শেতা ৫ মিনিটও হাঁটতে পারছেন না। 
একটু পরিশ্রমেই হাঁপিয়ে উঠছেন, ওজনও বেড়ে গেছে, ফিগারও দেখতে বেঢপ। এমন অবস্থায় যে তাকে দেখছে সেই কিছু টিপস দিচ্ছে, কি করতে হবে, কি খেতে হবে এসব আরকি! 

শেতা নিজেই একটা সময় বুঝতে পারলেন, এভাবে চললে, অসুস্থ হয়ে যাবেন। তাকে নিজের জন্যই ফিট থাকতে হবে।  

নিজেই অনলাইন ঘেটে বের করলেন সঠিক ডায়েট প্লান আর সঙ্গে মাত্র ৫ মিনিট সময়। এরপর মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই শেতার এনার্জি লেভেল বেশ বেড়ে গেলো, তিনি দিব্যি ৩ কিলোমিটার হাঁটতে পারেন, ৬ তলায় উঠতে লিফট বন্ধ থাকলেও ধীরে ধীরে হেঁটেই উঠে যাচ্ছেন। ফিগারও কিন্তু আগের শেপ পেতে শুরু করেছে। সবাই বেশ আগ্রহ দেখাচ্ছে, কেউ কেউ টিপ্পনি কাটছে নতুন প্রেমে পড়েছে কিনা, যার জন্য সুন্দর হওয়ার এতো আয়োজন। 
উত্তরে শেতা মিষ্টি করে হাসেন। 

আচ্ছা এবার জেনে নেই, সেই ৫ মিনিটের রহস্য, আসলে শেতা কী করেছিলেন? প্রতিদিন শত ব্যস্ততার মাঝেও সময় করে শেতা মাত্র ৫ মিনিট দৌড়াতেন। শুরুর দিকে একটু কষ্ট হতো, তিনি এজন্য বাসার নিচে নেমে দৌড় শুরু করতেন টানা ২ মিনিট সামনে চলে যেতেন, এরপর ১ মিনিট রেস্ট নিয়ে দুই মিনিটে ফিরে আসতেন। 

এভাবে প্রতি তিনদিন পর শেতা এক মিনিট করে সামনে দৌড়ানো শুরু করেন, এবার ফিরতেও তিন মিনিট। তার মানে ৭ মিনিট, এভাবে তিন মাস পরে শেতা ১২ মিনিট দৌড়ে যান ৬ মিনিট রেস্ট নিয়ে আবার ১২ মিনিটে ফিরে আসেন। মোট কতো হলো? ৩০ মিনিট!

সুস্থ ও ফিট থাকতে অন্তত ৫ মিনিট দৌড়ান, এভাবেই শুরু করুন। কারণ এতে আয়ু বেড়ে যেতে পারে কয়েক বছর। সম্প্রতি প্রকাশিত জার্নাল অফ দ্য আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজিতে ৫৫ হাজার জনের ওপর চালানো গবেষণার ফলাফলে এতথ্য জানানো হয়েছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১২৫০ ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০১৮
এসআইএস

 

আ’লীগের মনোনয়নপত্র জমা দিলেন অপু বিশ্বাস
হলি আর্টিজান মামলার আসামি রিপন ৫দিনের রিমান্ডে 
সংস্কৃতি, সমাজকল্যাণ ও টেলিযোগাযোগে নতুন সচিব
হবিগঞ্জে জিকে গউছসহ বিএনপির ৪৮ নেতাকর্মীর জামিন
‘আতাউস সামাদ ছিলেন ভিন্ন উচ্চতার মানুষ’
দ্বি-পক্ষীয় সম্পর্ক শক্তিশালী করতে প্রস্তুত সিঙ্গাপুর 
নীলফামারীতে শতবর্ষী গাছ রক্ষার দাবি
কসবা সীমান্তে আসা রোহিঙ্গাদের নিয়ে এখনও জটিলতা কাটেনি
পুরো সিস্টেমকে অটোমেশনের আওতায় আনার প্রক্রিয়া চলছে
ধোনি-গিলক্রিস্টে অনুপ্রাণিত উইকেটরক্ষক সোহান