মুখের গড়নে কেমন সানগ্লাস

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মুখের গড়নে কেমন সানগ্লাস

বাইরে যাওয়ার সময় প্রখর রোদে যথন তাকানোই দায়, তখন চোখের সুরক্ষা এবং দেখার স্বস্তির জন্য আমরা নির্ভর করি  রোদ চশমায়। 

সানগ্লাস শুধু ফ্যাশনের জন্যই নয়, একটি প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সানগ্লাসের ডিজাইনেরও পরিবর্তন এসেছে। তবে শুধুমাত্র ব্র্যান্ডেড সানগ্লাসই না- ব্যক্তিত্ব, চুলের রং ও মুখের আদলের সঙ্গে মিলিয়ে রোদ চশমা কেনা উচিত। 

নিজের মুখের আদল বুঝে সানগ্লাস বাছাই করুন। মুখের আদল বিভিন্ন রকম হতে পারে । যেমন- গোলাকার, পানপাতা, চারকোনা বা ডায়ামন্ড শেপ। 
সানগ্লাসের শেপ সাধারণত মুখের আদলের বিপরীত শেপের কেনা উচিত। যেমন মুখের আদল যদি গোলাকার হয় তাহলে একটু কোনাচে ধাঁচের সানগ্লাস বাছাই করুন। 

চারকোনা শেপের মুখের জন্য গোলাকার সানগ্লাস ভালো মানায়। এক্ষেত্রে গোল ফ্রেম মুখের আদলকে তুলনামূলক কোমল দেখাতে সাহায্য করবে। এই শেপের বড় বা ছোট যেকোনো আকৃতিই মানানসই।

পানপাতার মতো মুখের ক্ষেত্রে চোয়ালের অংশ ও কপালের অংশের সামঞ্জস্য রাখতে মোটা ফ্রেমের সানগ্লাস বাছাই করুন। এক্ষেত্রে সানগ্লাসের নিচের অংশ ওপরের অংশের তুলনায় ভারি হলে দেখতে ভালো লাগবে। 

যাদের মুখের আকৃতি ডিমের মতো তারা সব ধরনের ফ্রেমই ব্যবহার করতে পারেন। 

ডায়ামন্ড শেপ মুখেও সব ধরনের সানগ্লাসই  ভালো লাগে। তবে ফ্রেমসহ সানগ্লাস বেশি মানায়। খেয়াল রাখতে হবে সানগ্লাসের ফ্রেম যেন গালের হাড় বরাবর হয়।  

কেনার সময় পোলারাইজড সানগ্লাস কিনুন। কারণ এই লেন্সের সানগ্লাস পানি, বরফ ও রোদের ক্ষতিকারক প্রভাব থেকে চোখকে সুরক্ষিত রাখবে। 

হাতীবান্ধায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ
ব্যাংকের দাপটে পুঁজিবাজারে উত্থান
স্বাস্থ্যসেবায় আরও ১১ কোটি ডলার দেবে এডিবি
প্রেমে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে কুপিয়ে জখম
বিভিন্ন দেশে মুসলিম সংস্কৃতির বিবাহ (পর্ব- ০২)
সিদ্ধিরগঞ্জে দেয়াল চাপায় যুবকের মৃত্যু
সালমান শাহকে সরাসরি দেখে মুগ্ধ হয়েছিলাম: পূর্ণিমা
মেডিকেল বোর্ডের ‘ব্যবস্থাপত্র’ জানানো হলো খালেদাকে
রাজকুমারের নায়িকা পরিণীতি
সিনিয়র সচিব হয়ে চুক্তিতে নিয়োগ পেলেন শহীদুল হক