শিশুর প্রযুক্তির আসক্তি

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শিশুদেরকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একাউন্ট করে দেবেন না

তথ্য প্রযুক্তির যুগে আমাদের চারপাশে প্রতিনিয়ত ব্যবহৃত হচ্ছে বিভিন্ন প্রযুক্তি পণ্য। এগুলোর মাঝে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পণ্যটি হলো কম্পিউটার। বর্তমানে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাব, মোবাইল ফোন আমাদের পরিবারেই একটি অংশ বলে বিবেচিত হয়।

শিশু-কিশোরদের কাছেই বেশি আকর্ষণীয় এই প্রযুক্তি পণ্যগুলো। কেনইবা হবেনা, এসবের সাহায্যে কি না করা যায়! গেমস খেলা, ছবি আঁকা, গান শোনা, সিনেমা দেখা আরও কত কি! তাই সহজেই এই বস্তুটির প্রতি আকৃষ্ট হয় শিশু-কিশোররা। এই আকর্ষণ আসক্তিতে পরিণত হতে পারে যদি এখনই সঠিক পদক্ষেপ নেয়া না হয়।

অনেক অভিভাবক মনে করেন তার সন্তানটি সারাদিন কম্পিউটার নিয়ে বসে থাকলে হয়ত বড় হয়ে একজন প্রোগ্রামার কিংবা কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হবে। কিন্তু লক্ষ্য করে দেখুন সে কম্পিউটারে আসলেই শিক্ষামূলক কিছু করছে নাকি অযথা সিনেমা দেখে, গেমস খেলে সময় নষ্ট করছে। আর যদি ঘরে ইন্টারনেট সংযোগ থাকে তাহলে তো কথাই নেই, সারা বিশ্ব তার হাতের মুঠোয়। সারা বিশ্বের ভালো জিনিসগুলো যেমন তার হতের মুঠোয় আসতে পারে, তেমনি সারা বিশ্বের খারাপ জিনিসগুলোর প্রতিও তার আগ্রহ জন্ম নিতে পারে।শিশুদেরকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একাউন্ট করে দেবেন না

আপনার সন্তানের প্রযুক্তি পণ্যের প্রতি আসক্তি তাকে স্থুলকায় করে তুলতে পারে। পাশাপাশি কম্পিউটার সিনড্রম যেমন চোখ দিয়ে পানি পড়া, মাথাব্যথা, স্নায়ুবিক দুর্বলতা, উচ্চরক্তচাপ ইত্যাদি যোগ করতে পারে বাড়তি দুশ্চিন্তা। এর প্রভাবে লেখাপড়ার অবস্থা কী হবে তা নিশ্চয়ই আর বলে দিতে হবেনা।

এজন্যই আপনার সন্তানের কম্পিউটার ব্যবহার একটি নির্দিষ্ট মাত্রায় রাখুন। লক্ষ্য রাখুন আসলে সে কী করছে। 

শিশুদেরকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একাউন্ট করে দেবেন না। 

উরুগুয়েকে ১-০ গোলে হারালো ব্রাজিল
প্রেস দিবস উপলক্ষে আগরতলায় আলোচনা সভা
অবরুদ্ধ সময়ের কবিতায় মানবতার সুর
রাঙ্গাবালীতে পোকা মারার ট্যাবলেট খেয়ে ২ শিশুর মৃত্যু
রাঙ্গাবালীতে পোকা মারার ট্যাবলেট খেয়ে ২ শিশুর মৃত্যু
বরিশালে রান্না বিষয়ক কর্মশালা
আলোর উৎসবে হাজার হৃদয় রাঙিয়ে দিলেন শংকর-এহসান-লয়
বাম দলগুলোর নির্বাচনী প্রস্তুতি
স্বজনদের কাছে ফিরলো পুলিশ হেফাজতে থাকা শিশু আবির
দ্বিতীয়দিন রঘু দীক্ষিত-মমতাজ'র পরিবেশনায় মাতোয়ারা দর্শক