রমজানে খাদ্যাভাস

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পবিত্র রমজান মাস এসে যাচ্ছে। আমরা রোজা রাখার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিচ্ছি। রমজানে আমাদের স্বাভাবিক জীবন যাপনের বেশকিছু পরিবর্তন ঘটে। আর সব থেকে বড় পরিবর্তন হয় খাবারের ক্ষেত্রে।

php glass

পবিত্র রমজান মাস এসে যাচ্ছে। আমরা রোজা রাখার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিচ্ছি। রমজানে আমাদের স্বাভাবিক জীবন যাপনের বেশকিছু পরিবর্তন ঘটে। আর সব থেকে বড় পরিবর্তন হয় খাবারের ক্ষেত্রে। এসময় আমরা অনেকেই শারীরিক সমস্যার মুখোমুখি হই । তবে একটু সাবধান হয়ে বুঝে চললে এই সমস্যা কাটিয়ে রোজা রাখতে পারবো।  

রোজা রাখা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নয়, রমজানে চাই স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার। আমরা সারা দিন রোজা রাখার পর ইফতারে অতিরিক্ত তেলে ভাজা খাবার খাই। এ খাবারগুলো অনেক সময় বাইরে থেকে কিনে আনি। যার মান নেয়ে সংশয় থেকেই যায়।

রোজার মাসে খাবার সাধারণত তিনবার খাওয়া হয় । বিশেষজ্ঞরা বলেন, নিয়ম করে সব ধরনের খাবারই খেতে হবে। যেন শরীর পুষ্টিকর খাবারের অভাবে দুর্বল না হয়। যেমন:

ইফতারিতে দু-একটা খেজুর, শরবত এবং টাটকা ফল খেলে শরীরের জন্য ভালো। সঙ্গে চাইলে ঘরে তৈরি মুখরোচক খাবার থাকতে পারে।  

সন্ধ্যা রাতের খাবারে ভাত বা রুটি, প্রচুর সবজি, দু-এক টুকরা মাছ বা মাংস, দুধ ও ফল খেতে হবে।

ইফতার ও ঘুমানোর মাঝের সময়ে প্রচুর পানি পান করতে হবে।

সেহরিতে একটু হালকা খাবারই ভালো।

এবারের রোজা গরমের সময় হচ্ছে। এখন দিন অনেক বড়, আমাদের প্রায় ১৫ ঘণ্টা না খেয়ে রোজা রাখতে হবে। প্রচুর আশযুক্ত খাদ্য এবং পানি পান নিশ্চিত করতে হবে।

রোজা রাখার মুল উদ্দেশ্য ভুলে গেলে চলবে না। সারা দিন রোজা রেখে খাবার গ্রহণেও সংযমী হতে হবে।
রোজা রাখুন এবং সুস্থ থাকুন

চুয়াডাঙ্গায় ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করলো বড় ভাই
দিল্লিকে হারিয়ে চেন্নাই’র জয়
বিশ্বখ্যাত স্থপতি এফআর খানের প্রয়াণ
রাজশাহীতে পর্দা নামলো আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক উৎসবের
বরগুনায় ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ


মুক্তিযোদ্ধাদের আঙুলের ছাপ নিয়ে ডকুমেন্টারি
আবৃত্তি-গান-নাটকে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত
লোকসভায় প্রার্থী হলেন প্রজ্ঞা
রাজধানীতে ‘থাই ট্রেড ফেয়ার’ শুরু বুধবার
আবারো ত্রিপুরায় যাচ্ছেন মোদী-অমিত শাহ