php glass

কায়রো নাট্য উৎসবে বাংলাদেশের দুই নাটক

12 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

প্রতি বছরের মতো এবারও মিশর সরকারের সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয় আয়োজন করেছে ১০ দিনের ‘আন্তর্জাতিক কায়রো নাট্য উৎসব’। উৎসবে ৩০টি দেশের  নাট্য সংগঠন অংশ নিচ্ছে। উৎসব শুরু হবে ১০ অক্টোবর রোববার।

প্রতি বছরের মতো এবারও মিশর সরকারের সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয় আয়োজন করেছে ১০ দিনের ‘আন্তর্জাতিক কায়রো নাট্য উৎসব’। উৎসবে ৩০টি দেশের  নাট্য সংগঠন অংশ নিচ্ছে। উৎসব শুরু হবে ১০ অক্টোবর রোববার। চলবে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত। এ উৎসবে কেবল পরীণমূলক থিয়েটার।

উৎসবে বাংলাদেশের নাট্যকেন্দ্রের ‘আরজচরিতামৃত’ সরকারিভাবে এবং নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়ের ‘অপেক্ষমাণ’ বেসরকারিভাবে আমন্ত্রণ পেয়েছে। দুটি দলই মিশরের পৌঁছেছে বলে জানা গেছে।

আরজচরিতামৃত

আরজ আলী মাতব্বরের জীবন ও দর্শন নিয়ে ‘আরজচরিতামৃত’ নাটকটি লিখেছেন মাসুম রেজা ও নির্দেশনা দিয়েছেন তারিক আনাম খান। নাট্যকেন্দ্র এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে প্রথমবারের মতো নাটকটি নিয়ে দেশের বাইরে ভারতের বহরমপুর ও কলকাতার দুই বাংলার নাট্যোৎসবে মঞ্চায়ন করে।

বাংলাদেশের সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে শিল্পকলা একাডেমী ও বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার  ফেডারেশনের যৌথ নির্বাচনে নাট্যকেন্দ্র কায়রো উৎসবে ‘আরজচরিতামৃত’ নাটকটি নিয়ে যোগ দিয়েছে।

এ ধরনের উৎসবে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে নাট্যকেন্দ্রের সাংগঠনিক সম্পাদক ঝুনা চৌধুরী বলেন, ওখানে নাটকটির তিনটি প্রদর্শনী হবে। এ উৎসবে  যোগ  দেওয়ায় নিঃসন্দেহে দলের উপকার হবে। এতে কর্মীরা নতুন অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ পাবে। বিভিন্ন দেশের নাট্যকর্মীদের সঙ্গে মেশার এবং নাটক  দেখার সুযোগ পাবে।

ভাষা সংকটের প্রশ্নে দলপ্রধান এবং নির্দেশক তারিক আনাম খান বলেন, যেহেতু উৎসবে নানা দেশের ভাষাভাষী মানুষ থাকবেন, তাই নাটকটি যাতে দর্শকের কাছে পৌঁছানো যায়, দর্শকেরা যাতে বুঝতে পারেন,  সে বিষয়টি মাথায় রেখে নতুনভাবে কাজ করেছি ।

তারিক আনাম খানের নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের এই দলে আরও আছেন ঝুনা চৌধুরী, ইকবাল বাবু, ইউসুফ হাসান অর্ক, অবিদ রেহান, লুসি তৃপ্তি গমেজ, সঙ্গীতা  চৌধুরী, নিয়াজ  মোহাম্মদ তারিক, লিংকন অভি প্রমুখ।

অপেক্ষমাণ

তিনটি বিশেষ চরিত্র নিয়ে নাটক ‘অপেক্ষমাণ’। সৈয়দ শামসুল হকের ‘ঈর্ষা’, ইবসেনের ‘ডলস হাউস’ এবং ‘এনিমি অব দ্য পিপল’ থেকে এক-একটি  চরিত্র নিয়ে নাটকটি লিখেছেন সৈয়দ শামসুল হক এবং নির্দেশনা দিয়েছেন আতাউর রহমান ।

নাটকের প্রাসঙ্গিকতা এবং আমন্ত্রণ নিয়ে নির্দেশক ও দলপ্রধান  আতাউর রহমান জানান, ‘নাটকটির মধ্যে বর্তমান সময়ের অনেক কিছুই প্রতিফলিত হয়েছে। ফলে এর আবেদন অনেক  বেশি। এজন্য দর্শকের কাছে সহজে পৌঁছে যায়। গত বছর ঢাকায় ইবসেন নাট্যোৎসবে এর প্রথম মঞ্চায়ন হয়। তখন মিশরের শিল্পকলার একজন  কর্মকর্তা ঢাকায় নাটকটি দেখে যান। তিনিই আমাদের নাটকটি নিয়ে এক্সপেরিমেন্টাল এ উৎসবে আমন্ত্রণ করেছেন। গত বছর এ উৎসবে নাগরিক নাট্যসম্প্রদায় ‘রক্তকরবী’ নাটকটি মঞ্চস্থ করে। তখন আমন্ত্রণ ছিল সরকারি, এবারের আমন্ত্রণ বেসরকারিভাবে। তাই সব খরচ আমাদেরই বহন করতে হবে।’
 
তিনি জানান, এ বছর ৩১ আগস্ট কলকাতার বিভাষ চক্রবর্তীর অন্য থিয়েটার আয়োজিত উৎসবে নাটকটি মঞ্চস্থ হয়। আগামী ডিসেম্বরে নেপালে ইবসেন নাট্যোৎসবেও নাটকটির আমন্ত্রণ রয়েছে।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ২০৪০, অক্টোবর ০৯, ২০১০

ভারত পেঁয়াজ না দেওয়ায় দাম কমছে না
রাজশাহীতে এবার রেকর্ড কর আদায়ের প্রত্যাশা
১৫ নভেম্বর থেকে নাটোর চিনিকলে আখ মাড়াই শুরু
নাসের আল-খেলাইফি: জেলে থেকে ফরাসি ফুটবলের ‘সম্রাট’
এজেন্টদের টাকা দিয়ে মালয়েশিয়া গেলে পুনঃনিয়োগের অনুরোধ


সৌদিতে নারীশ্রমিক না পাঠানোর পক্ষে নারী সংগঠকরা 
সুন্দরবনে অনুপ্রবেশের দায়ে ইউপি সদস্যসহ আটক ১৯
বাড্ডায় গুলিতে আহত আরও এক ডাকাতের মৃত্যু
ড্রয়ে শেষ হলো রাজশাহী-খুলনা ম্যাচ
বনানীতে জিওর্দানোর আউটলেট