কাপড় নষ্ট করছে ব্রিটিশরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ব্রিটিশরা প্রতি বছর কত টাকার কাপড় নষ্ট করে তা ভাবলে অবাক হওয়ার আর কিছু বাকি থাকে না। কাপড় মানে পোশাক। তারা ক্রমাগত পোশাক কেনে আর তা বাতিল করে দিতে বাধ্য হয়। এর জুতসই একটা বড় কারণ স্থুলতা বা মুটিয়ে যাওয়া। আর সেই থলথেলে চর্বিওয়ালা শরীর ঢাকতেই তাদের এই পোশাকের পেছনে অর্থ অপচয়।

php glass

ব্রিটিশরা প্রতি বছর কত টাকার কাপড় নষ্ট করে তা ভাবলে অবাক হওয়ার আর কিছু বাকি থাকে না। কাপড় মানে পোশাক। তারা ক্রমাগত পোশাক কেনে আর তা বাতিল করে দিতে বাধ্য হয়। এর জুতসই একটা বড় কারণ স্থুলতা বা মুটিয়ে যাওয়া। আর সেই থলথেলে চর্বিওয়ালা শরীর ঢাকতেই তাদের এই পোশাকের পেছনে অর্থ অপচয়।

এক জরিপে দেখা গেছে, একেকজন ব্রিটিশ প্রতি বছর গড়ে ৭১ পাউন্ড দামের সমপরিমাণ পোশাকের অপচয় করে। এ হিসাবে দেখা গেছে, পোশাকের পেছনে পুরো ব্রিটেনে বছরে অপচয় হচ্ছে সাড়ে তিন বিলিয়ন পাউন্ড! ভাবা যায়, যেখানে পৃথিবীর অনেক দেশের মানুষ না খেয়ে মরে যাচ্ছে আর সেখানে ব্রিটিশদের এই অপচয়!

আমেরিকায় যেমন মোটাদের হার বাড়ছে ক্রমাগত, ব্রিটেনেও এই হার থেমে নেই। সেখানকার নারীদের সঙ্গে সঙ্গে পুরুষরাও মোটা হচ্ছে। তবে এই মোটুত্ব ঢাকতে তাদের চেষ্টার অন্ত নেই।

মোটা ব্রিটিশরা মনে করে টাইট পোশাক পরলে তাদের স্লিম দেখাবে। এজন্য তারা শরীরের মাপের চেয়ে ছোট পোশাক কেনে আর কয়েক দিন পর তা ফেলে দেয়। কারণ টাইট পোশাক পরার কয়েক দিন পর যখন তারা আরও মোটা হয়ে যায় তখন আর তা পরতে পারে না। ফলে ওই পোশাক ফেলে দিতে হয়। এছাড়া বেঢপ শরীর ঢাকতে গিয়ে ছোট মাপের কাপড় আর কত সহ্য করে বলুন। কয়েক দিন পরই তা ছিঁড়ে যায়, না হলে সেলাই ফেঁসে যায়। এটাকে সাধু ভাষায় আমরা অপচয় বলতে পারি। তবে সোজা কথায় অপচয় না বলে ‘কাপড় নষ্ট’ করা বলাই বোধহয় ভালো।

কাপড় নষ্ট করা বিষয়ে এ জরিপ চালিয়েছে শ্যাপ স্মার্ট নামের একটি ব্রিটিশ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়ছে, টাইট পোশাক পরলে স্লিম দেখাবে এজন্য ব্রিটেনের লোকজন ছোট আকারের পোশাক কেনে। এক্ষেত্রে মেয়েরাই এগিয়ে।
 
জরিপে অংশ নেওয়া ২৭ ভাগ নারীই বলেছেন, তারা নিয়মিত ছোট মাপের পোশাকই কেনেন। পুরুষরাও এক্ষেত্রে কোনো অংশে কম নন। ১৭ ভাগ পুরুষ টাইট পোশাক কেনার পেছনে অর্থ ব্যয় করেন।

অন্যদিকে ব্রিটেনের ২০ জন নারীর মধ্যে মাত্র একজন তার শরীরের সঠিক মাপ অনুযায়ী পোশাক কেনেন।

৫৩ ভাগ নারী বছরের শুরুতে ডায়েটিং শুরু করেন প্রতি বছর। কিন্তু ২১ ভাগই এটা ধরে রাখতে পারেন না।

ডায়েটিশিয়ানদের বক্তব্য, অনেকেই আছেন যারা এক মাসের মধ্যেই স্লিম হতে চান। এত ব্যর্থ হয়ে শেষে টাইট পোশাকের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন। আঁটসাঁটো কালো পোশাক পরেই তারা স্লিম হওয়ার ইচ্ছা কিছুটা মিটিয়ে নেন। কারণ কালো রঙের টাইট পোশাকে কিছুটা হলেও কম মোটা মনে হয়।

বাংলাদেশ সময় ০০৩৫, জানুয়ারি ১২, ২০১১   

মিরপুরে সিঁড়ির ফাঁক দিয়ে পড়ে নারীর মৃত্যু
সৈয়দ আশরাফ ছিলেন তেজোদীপ্ত ও সাহসী: কৃষিমন্ত্রী
কাজী শুভ’র ‘ভুলিয়া না যাইও’
মোদীকে ইমরানের ফোন, একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান
পুণ্যময় রমজানে রিজিকে লাগে বরকতের ছোঁয়া


বিএনপির সিদ্ধান্তের কোনো ঠিক নেই: নাসিম
বরিশালে স্কুলছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু
কৃষিখাতে উৎপাদন বাড়াতে প্রশিক্ষণ দেবে এনপিও
শিবগঞ্জে আম বাগান মনিটরিং টিম গঠন
আনন ফাউন্ডেশনের ২৯তম শিশুসাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত