খুলনার ময়ূর নদীর তীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে নির্দেশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

হাইকোর্ট। ফাইল ফটো

walton

ঢাকা: খুলনার ময়ূর নদীর তীরে থাকা সব অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সিএস রেকর্ড ও আরএস রেকর্ড জরিপের পর অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করে দুই মাসের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।
 
এক সম্পূরক আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও মোহাম্মদ উল্লাহ’র হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
 
আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। খুলনা সিটি করপোরেশনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আব্দুল গাফফার। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবু ইয়াহিয়া দুলাল।  
 
২০১৬ সালে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি) করা রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অন্তর্বর্তীকালীন আদেশসহ আদালত এ বিষয়ে রুল জারি করেছিলেন।
 
আইনজীবী মনজিল মোরসেদ বলেন, আদালতের ওই নির্দেশনা অনুযায়ী খুলনা সিটি করপোরেশন তাদের ছয়টি স্থাপনা ভেঙে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেছে। সঙ্গে একটি ভিডিও দাখিল করেন। ওই ভিডিওতেই দেখা গেছে আরও বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা রয়ে গেছে।
 
সেসব স্থাপনা অপসারণের নির্দেশনা চেয়ে রোববার (০২ ফেব্রুয়ারি) এইচআরপিবির পক্ষ থেকে একটি সম্পূরক আবেদন করা হয়। ওই আবেদনের শুনানির পর আদালত দুই মাসের মধ্যে নদীর তীরে সব অবৈধ স্থাপনা অপসারণের নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে নদীর তীর দখলকারীদের নাম, পরিচয়, ঠিকানাসহ তালিকা প্রস্তুত করে তা দাখিল করতেও নির্দেশ দেন বলে জানান মনজিল মোরসেদ।
 
এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ৬ এপ্রিল দিন রেখেছেন আদালত।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২০
ইএস/আরবি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আদালত
কাঁঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় 
কমেছে মাছ-মুরগি-সবজির দাম
সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের স্বাক্ষর
চিকিৎসাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তিন করোনাযোদ্ধা
শনির দশা কাটছে না রাজশাহীর আমের


লিবিয়ায় বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি যে লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন
স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা
পত্নীতলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ ভাইয়ের মৃত্যু
দৌলতদিয়া ঘাটে বাড়ছে যাত্রীদের চাপ
ফতুল্লায় করোনা আক্রান্ত হয়ে আ’লীগ নেতার মৃত্যু