দ্রুত রায় কার্যকর চান রিশার সহপাঠী-স্বজনরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রায়ে সন্তুষ্ট রিশার বন্ধু, শিক্ষক ও স্বজনরা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: সুরাইয়া আক্তার রিশা হত্যা মামলার একমাত্র আসা‌মি ওবায়দুল হকের মৃত্যুদণ্ড হওয়ায় সন্তুষ্ট তার প‌রিবার, শিক্ষক ও সহপাঠীরা।

বুধবার (১০ অ‌ক্টোবর) বি‌কে‌লে রায় ঘোষণার পরপরই উল্লা‌স ক‌রেন তার সহপাঠীরা।

রা‌য়ের বিষ‌য়ে রিশার বাবা ব্যবসায়ী রমজান হো‌সেন বাংলা‌নিউজ‌কে ব‌লেন, আর কো‌নো মা-বাবার বুক যেন এভা‌বে খা‌লি না হয়। এখন আমরা দ্রুত রায় বাস্তবায়ন চাই।

আরও পড়ুন>> রিশা হত্যা মামলার একমাত্র আসামির মৃত্যুদণ্ড

মা তা‌নিয়া হো‌সেন ব‌লেন, রা‌য়ের ফ‌লে রিশার আত্মা কিছুটা হ‌লেও শা‌ন্তি পা‌বে। রা‌য়ে আমরা সন্তুষ্ট। শা‌স্তি দ্রুত কার্যকর হোক, সেটা চাই।

উইলস লিটল ফ্লাওয়া‌র স্কু‌লের প্রি‌ন্সিপাল আবুল হো‌সেন বাংলা‌নিউজ‌কে ব‌লেন, আশা কর‌ছি হাই‌কো‌র্টেও রায় বহাল থাক‌বে এবং দ্রুত তা কার্যকর হ‌বে। আমরা চাই আর কোনো শিক্ষার্থী‌কে যেন এভা‌বে অকা‌লে জীবন দি‌তে না হয়।

পুরান ঢাকার সিদ্দিক বাজারের ব্যবসায়ী রমজান হোসেনের ১৪ বছর বয়সী মেয়ে রিশা উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়তো। 

২০১৬ সালের ২৪ আগস্ট দুপুরে স্কুলের সামনে ফুটওভার ব্রিজে তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। চারদিন পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে।

হামলার দিনই রিশার মা তানিয়া বেগম রমনা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১০ ধারায় এবং দণ্ডবিধির ৩২৪/৩২৬/৩০৭ ধারায় হত্যাচেষ্টা ও গুরুতর আঘাতের অভিযোগে মামলা করেন। রিশা মারা যাওয়ার পর এটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়। মামলার একমাত্র আসা‌মি দ‌র্জির দোকানি ওবায়দুল হক।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১০, ২০১৯
কেআই/এইচএডি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: মৃত্যুদণ্ড
Nagad
মানিকছড়িতে সেনাবাহিনীর খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
তিস্তাপাড়ে বন্যার উন্নতি হলেও অবনতি হয়েছে ধরলা পাড়ে
স্বাস্থ্যমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবার পদত্যাগ দাবি
মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হত্যা: জামিন হয়নি মোহাম্মদ আলীর
অধিদপ্তরের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের কোনো সমস্যা নেই: জাহিদ মালেক


সরকার বন্যার্তদের নয়, লুটেরাদের বাঁচাতে ব্যস্ত: এলডিপি
ভোক্তা অধিকার-এনএসআই’র অভিযানে ২ বেকারিকে জরিমানা
টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে ৮ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প
প্লেনে হত্যার হুমকি, জরুরি অবতরণ
তিন গন্তব্য বাদে ফ্লাইট বাতিলের সময় বাড়ালো বিমান