php glass

ডিআইজি মিজানের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে প্রেরণ 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আদালতে ডিআইজি মিজানুর রহমান। ছবি: ডিএইচ বাদল/বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: দুর্নীতি মামলায় সাময়িক বরখাস্ত পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

শুনানি শেষে মঙ্গলবার (০২ জুলাই) ঢাকা মহানগর আদালতের সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েস এ আদেশ দেন। 

এরআগে সকাল ১১টার কিছু আগে ডিআইজি মিজানকে আদালতে হাজির করে শাহবাগ থানা পুলিশ। পরে তার পক্ষে জামিন আবেদন করেন আইনজীবী অ্যাডভোকেট এহসানুল হক সমাজি। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

সোমবার (০১ জুলাই) হাইকোর্টে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন মিজান। কিন্তু আদালত তা খারিজ করে কাস্টডিতে নেওয়ার নির্দেশ দেন। পরে তাকে শাহবাগ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। 

এর আগে ৩ কোটি ৭ লাখ টাকার সম্পদের তথ্যগোপন এবং ৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগের মামলায় ডিআইজি মিজানুর রহমান জামিনের জন্য হাইকোর্টে হাজির হন।

পড়ুন>>
**
ডিআইজি মিজানকে আদালতে হাজির

২৫ জুন মিজানুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করার প্রস্তাবে অনুমোদন দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। পরে তাকে পুলিশ সদর দফতরে সংযুক্ত করা হয়।

ডিআইজি মিজান ঢাকা মহানগর পুলিশে (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বিয়ে গোপন করতে নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে স্ত্রীকে গ্রেফতার করানোর অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে। 

এছাড়া এক সংবাদপাঠিকাকে প্রাণনাশের হুমকি ও উত্ত্যক্ত করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করা হয়। নারী নির্যাতনের অভিযোগে গত বছরের জানুয়ারির শুরুর দিকে তাকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দফতরে সংযুক্ত করা হয়। 

সম্প্রতি দুদক কর্মকর্তাকে ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি সামনে এলে তড়িঘড়ি করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মিজানকে সাময়িক বরখাস্তের একটি প্রস্তাব রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের জন্য পাঠায়। মিজানের ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে পুলিশ অধিদফতর। 

কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যদিও নারী নির্যাতন, ঘুষ প্রদান, অবৈধ সম্পদ অর্জনসহ নানা অপকর্মের অভিযোগে দুই বছর ধরে মিজানের নাম আলোচনায় এলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

২৪ জুন ৩ কোটি ৭ লাখ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও ৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা অবৈধভাবে অর্জনের অভিযোগে মিজানুরের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। 

মামলায় মিজানুর রহমান, তার স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রত্না, ছোট ভাই মাহবুবুর রহমান ও ভাগনে পুলিশের কোতোয়ালি থানার এসআই মো. মাহমুদুল হাসানকে আসামি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪১ ঘণ্টা, জুলাই ০২, ২০১৯
ইএস/এমএ

৩ জুনের পর ছাত্রদলের কোনো কমিটি বৈধ নয়
তীব্র স্রোতে চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরি চলাচল ব্যাহত
বাংলাদেশ সিরিজ শেষে অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হবেন মালিঙ্গা
মেঘনা গ্রুপে সরাসরি সাক্ষাৎকার
ড. কামালের সংবাদ সম্মেলন সোমবার


গ্রিন লাইনের নতুন আইনজীবী, সময় পেলো এক সপ্তাহ
বেলের ‘বিদায় ঘণ্টা’ বাজলো
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা
গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদে অফিস সহায়ক নিয়োগ
সাভারে গণপিটুনিতে নারী নিহত হওয়ার ঘটনায় আসামি ৮০০