php glass

হুমায়ুন আজাদ: ফের পেছালো বিস্ফোরক মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ড. হুমায়ুন আজাদ

walton

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও বহুমাত্রিক লেখক ড. হুমায়ুন আজাদের হত্যাচেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা বিস্ফোরক মামলায় সাক্ষী না আসায় আবারো পিছিয়েছে সাক্ষ্যগ্রহণ।

সোমবার (২৭ মে) ঢাকার চতুর্থ মহানগর দায়রা জজ মাকসুদা পারভিন সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ৮ জুলাই নতুন দিন ধার্য করেছেন।

বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চত করেন একই আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মাহফুজুর রহমান চৌধুরীর বেঞ্চ সহকারী ইফতেখার আহম্মেদ।

বিস্ফোরক মামলায় ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। প্রথমে হত্যাচেষ্টা হিসেবে মামলা দায়ের করা হলেও পরবর্তীতে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে চার্জশিট দেওয়া হয়। বর্তমানে মামলা দুটি একই আদালতে বিচারাধীন।

তবে হত্যা মামলাটিতে ৪১ জন সাক্ষীর সাক্ষগ্রহণ শেষে ১৭ জুন যুক্তিতর্কের জন্য দিন ধার্য আছে।

২০০৪ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি বইমেলা থেকে বাসায় ফেরার পথে রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের সামনে বহুমাত্রিক লেখক ড. হুমায়ুন আজাদের ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। পরে দেশে ও থাইল্যান্ডে চিকিৎসা নেন তিনি। মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে সুস্থ হয়ে তিনি ওই বছরেরই ৮ আগস্ট জার্মানির মিউনিখে যান। সেখানে ১১ আগস্ট মারা যান এই ভাষাবিজ্ঞানী।

এদিকে, ওই ঘটনার পরদিন অর্থাৎ ২৮ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর রমনা থানায় ড. হুমায়ুন আজাদের ছোটভাই মঞ্জুর কবির বাদী হয়ে একটি হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করেন। যা পরে হত্যা মামলায় রূপ নেয়।

প্রথাবিরোধী লেখক হিসেবে পরিচিত হুমায়ুন আজাদের জন্ম বিক্রমপুরের রাঢ়িখালে ১৯৪৭ সালের ২৮ এপ্রিল। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক এবং সভাপতিও ছিলেন। হুমায়ুন আজাদের প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৬০ এর বেশি।

বাংলাদেশ সময় ১৬২০ ঘণ্টা, মে ২৭,২০১৯
এমএআর/এমজেএফ

কর্ণফুলীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু
রেকর্ড জয় এনে দিলেন সাকিব-লিটন
দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করে মাহমুদউল্লাহর পাশে সাকিব 
বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক সাকিব
আদালতে মারা গেলেন মিশরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মুরসি


শিবগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু
রামপালসহ ‘বিতর্কিত’ প্রকল্প স্থগিত চায় টিআইবি
৭৬ জন টেকনিক্যাল এক্সপার্টের চাকরি রাজস্ব খাতে নিতে রুল
ফিরলেন মুশফিক, সাকিবের টানা তিন ফিফটি
চায়না হারবারের কর্মীদের অভিযুক্ত করে মামলা