রংপুরে ধর্ষণ মামলায় কৃষি কর্মকর্তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

বেরোবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পুলিশ হেফাজতে জাকিরুল ইসলাম মিলন। ছবি: বাংলানিউজ

walton

রংপুর: মায়ের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য বাসায় ডেকে এনে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে এক কৃষি কর্মকর্তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

php glass

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক রোকনুজ্জামান এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত জাকিরুল ইসলাম মিলন রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের পাঠানপাড়া গ্রামের আনছার আলীর ছেলে। তিনি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। 

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ৪ জুলাই মিলন জ্বরে আক্রান্ত তার অসুস্থ মায়ের মাথায় পানি দেওয়ার জন্য প্রতিবেশী এক স্কুলছাত্রীকে কৌশলে বাড়িতে ডেকে এনে হাত-বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এ ঘটনার নয়দিন পর মিলনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর আদালতে মামলা দায়ের করেন ওই স্কুলছাত্রীর পরিবার। পরে ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত মিলনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করে নির্যাতিতা ওই ছাত্রীকে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

রায় ঘোষণায় সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন বাংলানিউজকে বলেন, এ ঘটনার সময় আসামি মিলন কৃষি ডিপ্লোমা নিয়ে পড়াশুনা করতেন। পরবর্তী তিনি সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। এই রায়ে বাদীপক্ষ ন্যায় বিচার পেয়েছেন। এতে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন রশীদ চৌধুরী ও এমদাদুল হক। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৬, ২০১৯
আরআইএস/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ধর্ষণ যাবজ্জীবন মামলা রংপুর
মানুষের মৃত্যুর প্রহর গুনেন তারা
অসহ্য গরমের পর স্বস্তির বৃষ্টি চট্টগ্রামে
পাইকারিতে আড়াই টাকার লেবু খুচরা পর্যায়ে ১০ টাকা
মার্কেটে মার্কেটে পুলিশের সেবা বুথ
ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে লক্ষ্য সুনির্দিষ্ট: পলক


২৫০ রোগীর বিপরীতে ১ জন চিকিৎসক
বগুড়া-৬ উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া
খিলগাঁয়ে কাভার্ড ভ্যানচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু
ট্রেনের টিকিটের জন্য রাত জাগছেন তারা
ক্রেতা টানতে বুলি, ফুটপাতে জমেছে বিকিকিনি