সোমবার থেকে লকডাউন কলকাতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফাঁকা কলকাতার ব্যস্ততম সড়ক

walton

কলকাতা: দেশজুড়ে ৩১ মার্চ পর্যন্ত লকডাউন করার সুপারিশ করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিন্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকারগুলিই। তবে এসময় সব রকম জরুরি পরিষেবা খোলা থাকবে।

কেন্দ্রীয় সরকারের এ ঘোষণার পরপরই সোমবার (২৩ মার্চ) বিকেল ৪টা থেকে কলকাতার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে আপাতত ২৭ মার্চ পর্যন্ত লকডাউন হয়ে যাচ্ছে কলকাতাসহ রাজ্যের সব শহর। বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে মেট্রো পরিষেবাও। শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, ভারতের মোট ৭৫টি জায়গা লকডাউন ঘোষণা হয়েছে। 

রোববার (২২ মার্চ) ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের মুখ্য সচিবদের সঙ্গে পরামর্শে করে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের প্রশাসনিক ভবন নবান্ন।

লকডাউনের এসময় পেট্রোপণ্য যেমন ডিজেল, কেরোসিন, খাদ্যদ্রব্য, ওষুধের দোকান, প্যাথলজি ল্যাবের মতো অত্যবশ্যকীয় পরিষেবা খোলা থাকবে। অ্যাম্বুলেন্স, হাসপাতাল, চিকিৎসা ব্যবস্থা থাকবে লকডাউনের আওতার বাইরে। রেশন থেকে গরিবদের দেওয়া হবে চাল, ডাল, কেরোসিন।

রেল পরিষেবা বন্ধ। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে মেট্রোও। রোববার মধ্যরাত থেকে সব দূরপাল্লার মেইল, এক্সপ্রেস, প্যাসেঞ্জার ট্রেন বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে বোর্ড। তবে অত্যাবশকীয় পণ্য পরিবহনের জন্য শুধু চালু থাকবে মালগাড়ি।

লকডাউন নিয়ে অযথা আতঙ্ক নয়, এমন বার্তা দিয়েছে প্রশাসন। 

করোনা সংক্রমণে গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে তিন জনের। মৃত বেড়ে হয়েছে ৭। সরকারিভাবে ৩৪১ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে।
 

বাংলাদেশ সময়: ১৬১০ ঘণ্টা, মার্চ ২২, ২০২০
ভিএস/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: করোনা ভাইরাস
একই পরিবারের ৬ জন করোনায় আক্রান্ত, এলাকা লকডাউন
করোনার তথ্য পেতে ওয়েবসাইট চালু
পটুয়াখালীতে একদিনে বজ্রপাতে মৃত্যু ৪
পণ্যবাহী বাহনে যাত্রী পরিবহন করলে আইনানুগ ব্যবস্থা
ত্রাণ পেয়ে দু’দিনের জন্য নিশ্চিন্ত প্রতিবন্ধী সাবলু


হটলাইনে জেসার চিকিৎসাসেবা, থাকছেন ১৫০ চিকিৎসক
থামছেই না গলির আড্ডা
এক লাখ দিনমজুরকে রেশন দিচ্ছেন অমিতাভ বচ্চন
না'গঞ্জে লকডাউন হলো যেসব এলাকা
ধন্যবাদ না দিয়ে আদেশ করতে বললেন শাহরুখ