শীতে জবুথবু কলকাতাবাসী, বৃষ্টির সম্ভাবনা ১ জানুয়ারি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শীতে জবুথবু কলকাতাবাসী। ছবি: বাংলানিউজ

walton

কলকাতা: মেঘ কাটতেই ঠাণ্ডায় জবুথবু কলকাতাবাসী। রোববার (২৯ ডিসেম্বর) কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে তিন ডিগ্রি কমে হয়েছে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা এ মৌসুমে এখন পর্যন্ত শীতলতম দিন। ফলে বছরের শেষ সাপ্তাহিক ছুটির দিনে রাজ্যজুড়ে জমাট শীতের আমেজ।

আগামী বুধবার (১ জানুয়ারি) অর্থাৎ বছরের প্রথমদিন থেকে শুরু হতে পারে বৃষ্টি। ৩ জানুয়ারির পর মেঘলা আকাশ এবং স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া কেটে যাওয়ার পর দ্রুত তাপমাত্রা নামতে থাকবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে কলকাতার আবহাওয়া অফিস। তবে, শনিবারের (২৮ ডিসেম্বর) পর রোববারও রাজ্যের সব জেলাতেই শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও বীরভূম জেলার মতো রাজ্যের বহু জেলায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার নিচে নেমে গেছে। তবে আকাশ ছিল পরিষ্কার।

এছাড়া, পশ্চিমবঙ্গের উত্তরের জেলাগুলো অর্থাৎ জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার এবং দুই দিনাজপুর বেলা অব্দি ঘন কুয়াশায় আবদ্ধ ছিল। কুয়াশার কারণে খালিচোখে দূরে দেখা দুষ্কর হয়ে পড়েছে। সঙ্গে রয়েছে উত্তরের হাওয়ার দাপট। ফলে ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে ভালোই।

রোববার কলকাতার সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা যথাক্রমে ২১ ও ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া, রাজ্যের আসানসোল ৮ দশমিক ২, বাঁকুড়া ৮ দশমিক ৫, ব্যারাকপুর ১০, বহরমপুর ১০, বর্ধমান ৮ দশমিক ৩, কোচবিহার ৯, দার্জিলিং ১ দশমিক ৫, জলপাইগুড়ি ৮ দশমিক ২, কালিম্পং ৪, মালদহ ৯, শিলিগুড়ি ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ছিল। এসব জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এর মধ্যেই থাকবে বলে জানায় কলকাতার আবহাওয়া অফিস।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
ভিএস/এফএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: কলকাতা ভারত
একই পরিবারের ৬ জন করোনায় আক্রান্ত, এলাকা লকডাউন
করোনার তথ্য পেতে ওয়েবসাইট চালু
পটুয়াখালীতে একদিনে বজ্রপাতে মৃত্যু ৪
পণ্যবাহী বাহনে যাত্রী পরিবহন করলে আইনানুগ ব্যবস্থা
ত্রাণ পেয়ে দু’দিনের জন্য নিশ্চিন্ত প্রতিবন্ধী সাবলু


হটলাইনে জেসার চিকিৎসাসেবা, থাকছেন ১৫০ চিকিৎসক
থামছেই না গলির আড্ডা
এক লাখ দিনমজুরকে রেশন দিচ্ছেন অমিতাভ বচ্চন
না'গঞ্জে লকডাউন হলো যেসব এলাকা
ধন্যবাদ না দিয়ে আদেশ করতে বললেন শাহরুখ