রাজ্যে বইছে শৈতপ্রবাহ, দার্জিলিংয়ে তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কলকাতায় বইছে শৈতপ্রবাহ। হাওড়া ব্রিজের ছবি

walton

কলকাতা: পৌষের শুরুতেই পশ্চিমবঙ্গে জেঁকে বসেছে শীত। উত্তরের কনকনে ঠাণ্ডা হাওয়ার দাপটে কাঁপছে কলকাতাসহ গোটা পশ্চিমবাংলা। হু হু করে নামছে তাপমাত্রা। 

রাজ্যর উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, বাঁকুড়া, বীরভূম, পুরুলিয়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, হুগলি, নদিয়া এবং মুর্শিবাদাদসহ অন্যায় জেলায় শৈত্যপ্রবাহের মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) কলকাতার আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, দিনগত মধ্যরাতে কলকাতার তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নেমে যেতে পারে। 

তবে দিনে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগামী ৪৮ ঘণ্টা এই আবহাওয়া বজায় থাকবে এবং জেলাগুলোর দুই একটি জায়গায় ঘন কুয়াশা থাকতে পারে বলেও জানানো হয়েছে।

এদিন রাজ্যের আসানসোল (৯.২), বাঁকুড়া (৯.৫), বর্ধমান (৯.৩), শ্রীনিকেতন (৭.৮), পুরুলিয়া (৮.৪), শিলিগুড়ি (৯.৪) ও দার্জিলিং (৪) ছাড়াও অন্যান্য জেলায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গেছে।

আবহাওয়া অফিসের মতে, তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে থাকলে তখন শৈতপ্রবাহ চলছে বলে ধরা হয়। সেক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গে ওইসব জেলাগুলোতে শৈতপ্রবাহ বিরাজ করছে। তবে পরপর কয়েকদিন এরকম অবস্থা চলতে থাকলে তখন শৈতপ্রবাহের সতর্কতা জারি করা হতে পারে।

এদিকে আগামী দুদিন তাপমাত্রা আরও বেশ কিছুটা নামার ইঙ্গিত দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। শীতল উত্তুরে হাওয়ার জেরে শুধুমাত্র রাতে নয়, দিনের তাপমাত্রাও নামবে খানিকটা।

আবহাওয়া অফিসের মতে, বৃহস্পতিবার কলকাতায় ছিল শীতলতম দিন। তাপমাত্রা গত দুদিনে নেমেছে ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাংলাদেশ সময়: ০৩২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৯
ভিএস/এমএ 

রাঙামাটিতে করোনার উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
হিলি স্থলবন্দরে আড়াই মাসে ৭৫ কোটি টাকার রাজস্ব আয় কম 
মুকসুদপুরে করোনায় আক্রান্ত এক ব্যক্তির মৃত্যু
আহছানিয়া মিশন ঘেরাও করবেন আলোকিত বাংলাদেশের সাংবাদিকরা
চিকিৎসা না পেয়ে মৃত্যু, প্রতিবাদে সিলেটে কফিন মিছিল


বাগেরহাটে ভ্রাম্যমাণ মৎস্য ক্লিনিক চালু
শেবাচিম হাসপাতালের অর্থপেডিক বিভাগ লকডাউন
কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক করোনায় আক্রান্ত
ফার্মেসির ‘ডাকাতি’ ঠেকাতে হাজারী গলিতে নিয়মিত অভিযানের দাবি
রায়পুরায় বজ্রপাতে স্কুলছাত্রের মৃত্যু