php glass

শিল্পে উদ্যোগ বাড়াতে বন্ধ কারখানায় প্রোমোটারি নয়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রতীকী ছবি

walton

কলকাতা: বন্ধ কারখানার জমি ব্যবহারের আইনকে সরলীকরণ করতে চলছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এর জন্য আইনের ধারায় সংশোধনী আনতে চাইছেন তারা। সেজন্য একটি মন্ত্রিগোষ্ঠীও তৈরি করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে রয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, অমিত মিত্র, ফিরহাদ হাকিম ও শুভেন্দু অধিকারী। এ মন্ত্রিগোষ্ঠীর চেয়ারম্যান হলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সংশোধনী ধারায় বলা হচ্ছে, বন্ধ কারখানার জমিতে যে ধরনের শিল্প ছিল, তা ছাড়াও তথ্যপ্রযুক্তি শিল্প, লজিস্টিক হাব, স্বাস্থ্য ও শিক্ষা সংক্রান্ত শিল্পের অনুমোদন দেওয়া হবে। তবে কোনো ভাবেই ফ্ল্যাট করার জন্য প্রোমোটারির অনুমতি দেওয়া হবে না। কি কি ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হবে, তার একটি তালিকাও তৈরি করা হয়েছে। শিল্প বা ব্যবসায় আগ্রহ বাড়াতেই সরলীকরণ করার কথা ভাবছেন শীর্ষকর্তারা। 

এর আগে পশ্চিমবঙ্গে ভূমি সংস্কার আইন অনুযায়ী, চা বাগান বাদ দিয়ে মিল, কারখানার অব্যবহৃত জমি নতুন করে ব্যবহারের পরিধি বাড়ানো হয়েছে। ইতোমধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার, ভূমি সংস্কার আইনে ৩০টি ক্যাটিগরিতে ছাড় দিয়েছে। যেমন- তথ্যপ্রযুক্তি, তথ্যপ্রযুক্তি সহায়ক শিল্প, বিদ্যুৎ উৎপাদন, সিমেন্ট, কেমিক্যাল, শিপ বিল্ডার্স ইত্যাদি।
 
আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চান, রাজ্যে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে জমি যেন কোনো প্রতিবন্ধকতা না হয়ে দাঁড়ায়। পুরোনো জুটমিল বা কারখানা বন্ধ হয়েছে, এমন জায়গায় নতুন করে অন্য ব্যবসা করার সুযোগ দিচ্ছে রাজ্য সরকার।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ০৫, ২০১৯
ভিএস/এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: কলকাতা
ksrm
ইন্দোনেশিয়ার সাবেক রাষ্ট্রপতির শোক বইয়ে মোমেনের সই
ই-কমার্স মার্চেন্টদের জন্য প্রিপেইড কার্ড 
মমেক ছাত্রকে কোপানোর ঘটনায় যুবকের যাবজ্জীবন
জাপান প্রবাসীদের নিয়ে ক্রিকেট প্রতিযোগিতা
সাদার্নের ইংরেজি বিভাগে বিদায় অনুষ্ঠান


১১ লাখ রোহিঙ্গার তথ্য ইসির কাছে, ভোটার হওয়ার সুযোগ নেই
সার্জেন্টের ওপর মোটরসাইকেল তুলে দিল কেসিসির কর্মচারী
নুহাশ হুমায়ুনের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে সুনেরাহ
আরএসআরএমের স্টিল মিল পরিদর্শনে সিআইইউর শিক্ষার্থীরা
মাদকবিরোধী প্রচারণায় ২২ কিমি পথ পেরোবেন ২৩৬ সাইক্লিস্ট