php glass

ভারতে পানিসঙ্কটে দ্বিতীয় পশ্চিমবঙ্গ 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

১১টি জলাধার সম্পূর্ণ শুকিয়ে গেছে। ছবি: বাংলানিউজ

walton

কলকাতা: দক্ষিণ ভারতের কেরালাসহ বিভিন্ন রাজ্যে পানির চরম সংকট চলছে। এ বছর দেশটির প্রায় সব রাজ্যেই বর্ষা মৌসুম দেরিতে শুরু হচ্ছে। যেটুকু মৌসুমি বায়ু প্রবেশ করেছে, তাও খুবই দুর্বল। এতে, গোটা ভারতজুড়ে পানির সঙ্কট সৃষ্টির আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। শঙ্কা রয়েছে পশ্চিমবঙ্গেও। জানা গেছে, ভারতে পানিসঙ্কটে পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।

গ্রীষ্মকালে জলাধারের পানি দিয়েই ভারতে চাষাবাদের কাজ চালানো হয়। এ বছর সেখানকার ৯১টি জলাধারের মধ্যে ৫৯টিতেই জলের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে আবার ১১টি জলাধার সম্পূর্ণ শুকিয়ে গেছে বলে জানা গেছে। 

কেরালার অনেক অফিসেই পানি বাঁচাতে কর্মচারীদের বাড়িতে থেকে কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে হোটেল, গেস্ট হাউজগুলো।

এখন পর্যন্ত ভারতে ৩৯ শতাংশ বৃষ্টির ঘাটতি নথিভুক্ত করা হয়েছে। বর্ষা আসতে আরও দেরি হলে এ ঘাটতি বাড়বে, যা আক্ষরিক অর্থেই বিপদসঙ্কেত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আবহাওয়া অধিদফতর ভারতকে ৩৬টি ডিভিশনে ভাগ করেছে। তারা জানিয়েছে, এর মধ্যে ২৫টি ডিভিশনেই বৃষ্টির সঙ্কট রয়েছে।

পানিসঙ্কটে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়ছে কৃষিকাজে। ইতোমধ্যেই ভারতের পরিবেশ রক্ষা সংগঠনগুলো এ নিয়ে সরব হয়েছে। বৃক্ষরোপণসহ বৃষ্টির পানি ধরে রেখে ব্যবহারের বিষয়ে উদ্যোগী হতে সবার উদ্দেশে আহ্বান জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, জুন ২৫, ২০১৯
বিএস/একে

শ্রীলঙ্কা সফর: টাইগারদের অনুশীলন শুরু
মাছ উৎপাদনে সারাদেশে ষষ্ঠ ‘রাজশাহী’
সঠিকভাবে গড়ে উঠেনি চট্টগ্রাম, বিকল্প সড়কও হয়নি
ফলপ্রকাশেও ভিড় নেই মিষ্টির দোকানে
ইঁদুরের হানায় ঝুঁকিতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ!


ধান কেনায় ডিসিদের সহায়তার নির্দেশ
বোর্ড সেরা ঝালকাঠি এন এস কামিল মাদরাসা
পুরান ঢাকায় পরিত্যক্ত দ্বিতল ভবনে ধস
পাঁচ বছরে সর্বোচ্চ জিপিএ-৫ চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে
‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনের যাত্রা শুরু