মোদী সবচেয়ে বড় দুর্যোগ: মমতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

walton

কলকাতা: সদ্য ফণীর আঘাত সামলে উঠেছে ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গসহ প্রতিবেশী রাজ্যগুলি। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ঠিক কতো, সেই হিসেব এখনও করে উঠতে পারেনি প্রশাসন। কিন্তু তার মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে রাজনৈতিক প্রচারের দামামা। কারণ সোমবার (৬ মে) ভারতে পঞ্চম দফার নির্বাচন।

php glass

নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের এক প্রচারসভা থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সবচেয়ে বড় দুর্যোগ আর দুর্ভোগ মোদী। মোদী থাকলে মানুষ শান্তিতে থাকতে পারবে না। তাই মোদীকে বিদায় দিন।’

শুক্রবার রাতে নিজে সামনে থেকে ফণীর বিপর্যয় মোকাবিলায় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন মমতা। রাজ্যের যে জেলায় ফণী তাণ্ডব দেখিয়েছে, সেই মেদিনীপুর জেলায় বসেই বিষয়টা মনিটারিং করছিলেন তিনি। রোববারের (৫ মে) সভা থেকে আশ্বস্ত করে তিনি জানান, ‘ঝড়ে দুর্গতদের পাশে আছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।’

এরপর মমতা বলেন, ‘এবার আর ক্ষমতায় ফিরতে পারছে না মোদী। যদি বেশি করেও আসন ধরি তাহলেও সারা দেশ থেকে ১৫০ থেকে ১৬০টির বেশি আসন পাবে না বিজেপি। তাহলে কি করে সরকার গড়বে?’ এর আগে মমতা বিজেপির আসন সংখ্যা বলেছিলেন ১১০ থেকে ১২০।

যদি তৃণমূল সুপ্রিমোর হিসেব ঠিক হয় তবে কোনোভাবেই সরকার গড়তে পারছে না বিজেপি। এদিন বিজেপিকে দাঙ্গাবাজ দল বলেও অবিহিত করেন মমতা। এছাড়া অভিযোগ করেন, ‘গোটা দেশের সর্বনাশ করে, খালি মন কি বাত আর নিজের প্রচার করেছেন মোদী।’

মমতা বলেন, ফণীর তাণ্ডবে পশ্চিমবঙ্গে ৫ হাজার বাড়ির ক্ষতি হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ সরকার সেইসব বাড়ি তৈরি করে দেবে। আর যাদের বাড়ির আংশিক ক্ষতি হয়েছে, তাদেরও সাহায্য করা হবে বলে এদিনের সভা থেকে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৪ ঘণ্টা, মে ৬, ২০১৯
এমএইচএম

হুয়াওয়ের নিষেধাজ্ঞা ৩ মাস পেছালো যুক্তরাষ্ট্র
তিউনিসিয়ায় উদ্ধার ১৫ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন
মধু মাসের ফল লিচুর কদর
ঈদে দুঃস্থদের জন্য ১৫ কেজি করে চাল বরাদ্দ
রোনালদোর হাতের ট্রফির আঘাতে ছেলের মুখে চোট


ঈদে গহনা কিনতে চাচ্ছেন?
৪৬৮ জন ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নেবে ইসি
ফের ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট উইদোদো
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
নিম্নমানের কাগজে পাঠ্যবই মুদ্রণ, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার