অদ্ভুত সন্তানে ভরে গেছে ঘর | বিএম বরকতউল্লাহ্

কিশোর গল্প/ভূত ফিকশন  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রতীকী ছবি

[পূর্বপ্রকাশের পর]
​‘কথা যে ক্যামনে কয় হেইডা জানি না বাবা, তয় কটর কটর কথা কইতাছে, হেগর কথার মধ্যে কোনো ফাঁক নাই, ভুল নাই।’ দাইমা একটা দীর্ঘশ্বাস ফেলে কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ার আগে বললো, ‘তুমি তোমার সন্তানদের সামাল দেও, হোনো গিয়ে হ্যারা কী বলে আর কী করে। আজব কারবার।’ 

সেরালি শঙ্কিত মনে লম্বা পায়ে ঘরে প্রবেশ করে স্ত্রীর পাশে গিয়ে বসলো। চারদিক থেকে তার নবজাত সন্তানেরা দৌড়ে এসে সেরালিকে ঘিরে ধরলো। এরা ইঁদুর-বিড়ালের মতো এদিক-ওদিক ছোটাছুটি করছে। সন্তান সংখ্যা পঁচিশ-ত্রিশটা হবে। একেকটার চেহারা-সুরত একেক রকমের। 

একেকটার উচ্চতা আকার-আকৃতি রং-ঢং একেক রকমের। কোনোটা ইঁদুরের মতো, কারো পায়ে আঁকাবাঁকা নখ, দেখতে লাগে গাছের শিকড়ের মতো, কোনোটার কান মাটি পর্যন্ত ঝুলে আছে, কোনোটার গতরের চেয়ে মাথা বড়ো, একটার মাথা চেপ্টা আরেকটার মাথা লাউয়ের মতো। কেউ দৌড়াচ্ছে, কেউ খেলা করছে, কেউ সেরালির হাত-পা বেয়ে মাথায় চড়ে বসে আছে, কয়েকটা পকেটের ভেতরে গিয়ে বসে আছে, কোনোটা আবার দেখতে ছোট বানরের মতো, কোনোটার লম্বা লেজ আছে আবার কোনোটার লম্বা নাক, মার্বেলের মতো চোখ, কোনোটার লম্বা কালো দাঁত, ঠোঁট ভেদ করে বেরিয়ে আছে।

এর মধ্যে দু'টোর অদ্ভুত ধরনের মুখ। শরীরের তুলনায় তিন চার গুণ লম্বা মুখ। বিশাল হা। একটাও পরিপূর্ণ মানুষের মতো নয়। একেকটা একেক রকমের। এরা একটু পর পর নিজের রূপ বদলে ফেলছে। এরা খেলছে-দুলছে। কটর কটর কথা বলছে। ওরা সেরালিকে জান-প্রাণ দিয়ে বাবা বলে ডাকছে। সন্তানের মুখে বাবা ডাক শুনে সেরালির অন্তরাত্মা ঠাণ্ডা না হয়ে হঠাৎ গরমে টগবগিয়ে উঠছে। সেরালির কাছে প্রসূতিঘরটা আলাদা এক স্বপ্নরাজের মতো মনে হলো। সে অদ্ভুত সন্তানদের কাণ্ডকীর্তি দেখে চুপ করে বসে রইলো।  

হঠাৎ করে সেরালি মাথাটা সোজা করে বসলো এবং খুব উৎফুল্ল হয়ে উঠলো। সে ‘বাবা-সোনা’ বলে সন্তানদের ডাকাডাকি করে কাছে আসতে বললো। ওরা হুড়োহুড়ি করে এসে বাপকে ঘিরে ধরেছে। বড় মাথাওয়ালা এক ছেলেকে আদর করতে হাত বাড়িয়ে দিতেই, তার ছেলেটা খাবলা মেরে সেরালির হাত টেনে নিয়ে বললো, আরও কাছে আসো বাবা। ভয় পাও নাকি? আমরা তো তোমার ছেলে-মেয়ে, প্রাণপ্রিয় সন্তান। আর তুমি হলে আমাদের বাবা সেরালি। 

সেরালি খুশিতে সন্তানদের মাথা হাতিয়ে ’কুতুতুতু, ওয়াও-ওয়া, চুচু-মুচু’ ইত্যাদি শব্দ করে আদর-স্নেহ করছে। সন্তানেরা সেরালির আদর পেয়ে বিড়ালছানার মতো মোলায়েম হয়ে গেছে। তারা আরও আদর পাওয়ার জন্য বাবার কোলে-পিঠে চড়ে আনন্দে লাফালাফি করতে লাগলো। এতে সেরালির মনে কোনো বিরক্তির ছাপ দেখা গেলো না। সে খুব আনন্দের সঙ্গে তার অদ্ভুত সন্তানদের স্বাভাবিকভাবে আদর-স্নেহ বিলিয়ে দিলো। 

চলবে….
***
অদ্ভুত সন্তানে ভরে গেছে ঘর | বিএম বরকতউল্লাহ্
***সেরালির স্ত্রীর উপর ভূতের আছর | বিএম বরকতউল্লাহ্
***ভূত-দেবতার চালাকি | বিএম বরকতউল্লাহ্
***ভূতপাহাড়ের ভূত-দেবতা | বিএম বরকতউল্লাহ্
***সেরালি | বিএম বরকতউল্লাহ্


ইচ্ছেঘুড়ি
বাংলাদেশ সময়: ১০৩৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭
এএ

আস্থা রাখুন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ফখরুল
মীর মশাররফ-হুমায়ূন আহমেদের জন্ম
ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা পেলো ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ
ব্যাটিংয়ের আগেই স্কোর বোর্ডে যোগ হলো ১০ রান!
ফারসি সাহিত্য সমাদৃত তার সৌন্দর্য এবং মানবতায়
চট্টগ্রামে দ্বিতীয় দিনে কমিশনের ফরম নিলেন ২৪ প্রার্থী
নবান্ন উৎসব কমিটির সভাপতি কামরুন মালেক
বরিশালে স্টিমারের ধাক্কায় বালুবাহী বাল্কহেড ডুবি
রাজৈরে বিএনপির ৭ নেতার আওয়ামী লীগে যোগদান
প্রাণ রায়ের কুকুর খেতে গিয়ে ধরা ২ চীনা নাগরিক