php glass

মৃতের জন্য ‘৭০ হাজার কালেমা পড়া’র ব্যাপারটি শুদ্ধ নয়

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : প্রতীকী

walton

প্রশ্ন: সমাজে প্রচলন আছে, মৃত ব্যক্তির জন্য ৭০ হাজার বার কালেমা তাইয়েবা পাঠ করলে, সে জাহান্নাম থেকে মুক্তি পায়। আবার কিছু মানুষ নিজ জীবদ্দশায় এ উদ্দেশ্যে ৭০ হাজার বার কালেমা পড়ে থাকে।

অন্যদিকে কেউ মারা গেলে তার কবরের আজাব মাফ হওয়ার জন্য এ ধরনের নিয়মে কালেমা পাঠের প্রথাটা বেশি। আর এ আমল করলে সত্যি কি জাহান্নাম থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে? সঠিক তথ্য জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর: কথাটি শুদ্ধ নয়। বরং এটি লোকমুখে প্রচলিত একটি কথা। যার কোনো প্রামাণ্যতা কিংবা ভিত্তি নেই। শায়েখ ইবনে তাইমিয়া (রহ.)-কে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘এটি সহিহ বা দুর্বল কোনো সনদেই বর্ণিত হয়নি।’ (মাজমুউল ফাতাওয়া, ইবনে তাইমিয়া ২৪/৩২৩)

কালেমা তাইয়েবা পাঠ করা অনেক বড় সওয়াবের কাজ। হাদিসের ভাষ্য অনুযায়ী এটি উত্তম জিকির। এ কালেমা পাঠের বহু ফজিলত বর্ণিত হয়েছে। এক হাদিসে এসেছে, ‘যে ব্যক্তি এখলাসের সঙ্গে লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ পাঠ করবে সে জান্নাতে যাবে। (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস নং: ১৯৬৮৯; শরহু মুশকিলিল আছার, হাদিস নং: ৪০০৩)

তবে কালেমা তাইয়েবা পাঠ করা কিংবা কোনো মৃত ব্যক্তির ইসালে সওয়াবের জন্য পাঠ করা উত্তম কাজ। কিন্তু প্রশ্নে উল্লেখিত সংখ্যা ও পদ্ধতির কোনো দলিলভিত্তি নেই। ফলে এ পদ্ধতি গ্রহণযোগ্য নয়।

ইসলাম বিভাগে লিখতে পারেন আপনিও। লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯
এমএমইউ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ইসলাম
টেস্টে আমি যা ভেবেছিলাম এর চেয়ে খারাপ হয়েছে: পাপন
টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারাটা মেনে নিতে পারছেন না পাপন
টেস্ট দল নিয়ে আলাদাভাবে ভাবছে বিসিবি
মওলানা ভাসানীর প্রয়াণ
ইতিহাসের এই দিনে

মওলানা ভাসানীর প্রয়াণ

পাহাড়ের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়


গভীর রাতে উন্নয়ন কাজ তদারকিতে মেয়র নাসির
আমিরাতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
সৌদিতে নারী কর্মী পাঠানো নিয়ে বিপাকে সরকার
রোববার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবে বিএনপি
১৮ কোটি মানুষ পেঁয়াজের জন্য আর্তনাদ করছে: কর্নেল অলি